বিজ্ঞাপন

খাবারে রুচি নেই রাহির

September 27, 2020 | 2:54 pm

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট

করোনা রোগীদের যে উপসর্গগুলো সাধারণত দেখা যায় এর সিংহভাগই নেই তরুণ পেসার আবু জায়েদ রাহির। জ্বর, কাশি, ঠান্ডা, শরীর ব্যথা কিংবা শ্বাস-প্রশ্বাসের জটিলতা; এর সবকিছুই তার শরীরে অনুপস্থিত। একমাত্র জটিলতা বলতে যেটি আছে সেটি হল খাবারে রুচি পাচ্ছেন না। আপাতত তাই মিরপুরে জাতীয় একাডেমি ভবনে বিসিবির তত্বাবধানে চিকিৎসাধীন আছেন লাল সবুজের এই টেস্ট বোলার। তাছাড়া যেহেতু এই মুহুর্তে খেলার ব্যস্ততা নেই তাই তার পরবর্তী পরীক্ষা নিয়েও তাড়াহুড়ো করছে না বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) মেডিকেল বিভাগ। আক্রান্ত শনাক্ত হওয়ার ১৫ দিন পরে তার পরবর্তী পরীক্ষাটি নেওয়া হবে।

বিজ্ঞাপন

শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে তিন ম্যাচ সিরিজের টেস্ট সামনে রেখে গত ২২ সেপ্টেম্বর ২৭ ক্রিকেটার, সাপোর্ট স্টাফ ও কোচিং স্টাফসহ মোট ৩৫ জনের করোনা পরীক্ষা করিয়েছিল বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড-বিসিবি। পরদিন পাওয়া রিপোর্টে জানা যায় একমাত্র আবু জায়েদ রাহি ব্যতীত সবাই সুস্থ। প্রতিবেদন পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে তাকে আইসোলেশনে রেখে চিকিৎসার ব্যবস্থা করে বিসিবির মেডিকেল ইউনিট। তবে ভাল খবর হল, শুরু থেকেই ২৭ বছর বয়সী এই তরুণের তেমন কোন সমস্যা নেই।

যথাসময়ে শ্রীলঙ্কা সফর মাঠে গড়ালে বা সফর উপলক্ষ্যে ভ্রমনের ব্যাপার থাকলে ২৫ সেপ্টেম্বরই রাহিসহ দলের বাদবাকি ২৬ জনকে দ্বিতীয় পরীক্ষার মধ্য দিয়ে যেতে হত। কিন্তু যেহেতু কোয়ারেন্টাইন ইস্যুতে শ্রীলঙ্কান ক্রিকেট বোর্ড বিসিবিকে এখনো কোন চুড়ান্ত সিদ্ধান্তই দিতে পারেনি তাই সিরিজটিও পিছিয়ে গেছে। সঙ্গত কারণেই তার করোনা পরীক্ষা নিয়ে তাড়াহুড়োর কোন কারণ দেখছে না টাইগার প্রশাসনের মেডিকেল বিভাগ।

বিজ্ঞাপন

রোববার (২৭ সেপ্টেম্বর) সারাবাংলাকে এতথ্য দিলেন বিসিবির প্রধান চিকিৎসক দেবাশীষ চৌধুরী।

তিনি জানালেন,‘ওর প্রথম থেকেই কোন সমস্যা নেই। শুধু মুখে রুচি নেই। ওর কখনো জ্বর আসেনি বা শ্বাস-প্রশ্বাসে সমস্যা হয়নি। একদিন হয়ত এসেছিল। ওর কোন উপসর্গ নেই। কিছুদিন পর ওর একটি পরীক্ষা করব। যেহেতু কিছুদিন সময় পেয়েছি তাই তাড়াহুড়ো নেই। প্রথম টেস্টের ১৫ দিন আগে করলে কোন লাভ হয় না। ১৫ দিনের যত কাছে করতে পারি তত ভাল। এখন করলে কোন লাভ হবে না।’

বিজ্ঞাপন

শ্রীলঙ্কা সিরিজের সবশেষ আপডেট নিয়ে গতকাল বিসিবিতে সংবাদ মাধ্যমের মুখোমুখি হয়েছিলেন বোর্ডের ক্রিকেট পরিচালনা বিভাগের চেয়ারম্যান আকরাম খান। তিনি জানিয়েছেন, ‘যেহেতু সফর পেচ্ছাচ্ছে আমাদের যে তারিখে যাওয়ার কথা ছিল হচ্ছে না। ওরা চেষ্ট করছে। ওরা চাচ্ছে যত তাড়াতাড়ি সম্ভব সিরিজটা করতে। আমার মনে হয় ওরা ইতিবাচক আছে। আজকে বা কালকে ওদের বন্ধ। আশা করছি সোমবার বা মঙ্গলবার চূড়ান্ত কিছু চলে আসবে। যদি ইতিবাচক হয় আমরা আগামী মাসের ৭-১০ তারিখের মধ্যে যেতে পারি। যেহেতু ওদের যে শ্রীলঙ্কান টি টোয়েন্টি হওয়ার কথা ছিল সেটা এখন নিশ্চিত না।’

সারাবাংলা/এমআরএফ/এসএইচএস

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন