বিজ্ঞাপন

‘প্রধানমন্ত্রীর বহুমুখী প্রতিভা আমাদের জন্য অনুপ্রেরণা’

September 28, 2020 | 5:46 pm

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার মাঝে বহুমুখী প্রতিভা আছে বলে মন্তব্য করেছেন স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় (এলজিআরডি) মন্ত্রী মো. তাজুল ইসলাম। তিনি বলেন, বহুমুখীর প্রতিভার অধিকারী আমাদের দেশনেত্রী দৃঢ়তার সঙ্গে দেশকে এগিয়ে নিচ্ছেন। এটা আমাদের অনুপ্রেরণা জোগায়।

বিজ্ঞাপন

সোমবার (২৮ সেপ্টেম্বর) দুপুরে প্রধানমন্ত্রীর ৭৪তম জন্মদিন উপলক্ষে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন (ডিএনসিসি) আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন। প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিন উপলক্ষে রাজধানীর গুলশানে বিচারপতি সাহাবউদ্দিন আহমেদ পার্কে এক চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়।

অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দূরদর্শী নেতৃত্বের প্রশংসা করে স্থানীয় সরকারমন্ত্রী তাজুল ইসলাম বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে আমরা উন্নত দেশের কাতারে স্থান পেয়েছি। এটা এমনি এমনি হয়নি। এর পেছনে তার অসংখ্য ত্যাগ রয়েছে। তার মাঝে বহুমুখী প্রতিভা সমন্বিত আছে। প্রধানমন্ত্রীকে অনুকরণ করার অনেক কিছু আছে। আমরা তাকে দেখে অনুপ্রাণিত হই। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান জীবিত থাকলে আমরা ২০০০ সালের মধ্যেই উন্নত দেশে উন্নীত হতাম। অবশ্য এখন তারই সুযোগ্য কন্যা শেখ হাসিনা আমাদের নেতৃত্ব দিচ্ছেন।’

বিজ্ঞাপন

এ সময় ঢাকার দুই সিটি করপোরেশনের মেয়র এবং নিজ মন্ত্রণালয় প্রসঙ্গে এলজিআরডি মন্ত্রী বলেন, ‘ঢাকা শহর ময়লার শহর, অপরিচ্ছন্ন শহর; এই ধারণা থেকে সবাইকে আমরা বের করতে সক্ষম হব। দুই মেয়র এ বিষয়ে কাজ করছেন। মেয়ররা দায়িত্ব নিয়ে কাজ করছেন। কোভিড সময়েও একদিনও অফিস বন্ধ দেইনি আমরা। এই অনুপ্রেরণা আমরা প্রধানমন্ত্রীর কাছ থেকে পাই।’

অনুষ্ঠানে সভাপতির বক্তব্যে ডিএনসিসি মেয়র আতিকুল ইসলাম বলেন, ‘সড়ক ফুটপাত দখল করার অবৈধ মনোভাব পরিহার করতে হবে। অনেকেই ফুটপাত দখল করে রাখেন, সড়ক দখল করে নিজেদের মালসামানা রাখেন। বিশাল বিশাল অট্টালিকা বানান। কিন্তু তার সরঞ্জাম পড়ে থাকে ফুটপাতে, সড়কে। এই অবৈধ মনোভাব থেকে বেরিয়ে আসুন। নইলে অবৈধ স্থাপনা বুলডোজার দিয়ে গুড়িয়ে দেবো।’

বিজ্ঞাপন

প্রধানমন্ত্রী শিশুদের পছন্দ করেন উল্লেখ করে আতিক বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী সব থেকে বেশি পছন্দ করেন শিশুদের; খেটে খাওয়া মানুষদের। তাই আজকে আমরা ৭৪ জন শিশু নিয়ে চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতার আয়োজন করেছি। আমাদের সিটি করপোরেশনের যারা পরিচ্ছন্নতাকর্মী, প্রতিদিন শহরটাকে যারা সুন্দর রাখেন তাদেরই বাচ্চারা এখানে অংশ নিয়েছে। তাদের দিয়ে পায়রা উড়িয়ে প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিন উদযাপন করা হবে।’

অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মাঝে উপস্থিত ছিলেন জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন, সাংসদ ও সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব আসাদুজ্জামান নূর, সংসদ সদস্য এ কে এম রহমত উল্লাহ, সাবেক বিজিএমইএ চেয়ারম্যান এবং সংসদ সদস্য শফিউল মহীউদ্দিন, সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব এবং মুক্তিযোদ্ধা নাসির উদ্দিন ইউসুফ বাচ্চু, ঢাকায় নিযুক্ত তুরস্কের রাষ্ট্রদূত মোস্তফা উসমান তুরান প্রমুখ।

বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা/এসএইচ/পিটিএম

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন