বিজ্ঞাপন

‘পূজাকে টার্গেট করে জাল টাকা ছড়িয়ে দিতে চেয়েছিল একটি চক্র’

September 29, 2020 | 3:39 pm

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: ‘আসন্ন দুর্গাপূজাকে টার্গেট করে ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন জায়গায় জাল টাকা ছড়িয়ে দিতে চেয়েছিল একটি চক্র। এসব জাল এক লাখ টাকার বান্ডিল হাত বদল হতো পনেরো থেকে বিশ হাজার টাকায়।’ মঙ্গলবার (২৯ সেপ্টেম্বর) দুপুরে ডিএমপির মিডিয়া সেন্টারে এক সংবাদ সম্মেলনে ডিবির অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার এ কে এম হাফিজ আক্তার এসব তথ্য জানান।

বিজ্ঞাপন

তিনি জানান, গতকাল সোমবার বিশেষ অভিযান পরিচালনা করে রাজধানীর ডেমরা এলাকা থেকে জাল টাকা একটি চক্রকে গ্রেফতার ডিএমপির গোয়েন্দা সাইবার ক্রাইম বিভাগ। গ্রেফতারকৃতরা হলো- মো. ইউসুফ আলী, আব্দুর রহিম ওরফে হেলাল হোসেন রহিম, ফজলে রাব্বী মিয়া ও মো. জাহিদ ইসলাম।

এসময় তাদের কাছ থেকে ৬৫ লাখ টাকার জাল নোট ও জাল টাকা তৈরির সরঞ্জাম জব্দ করা হয়।

বিজ্ঞাপন

অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার এ কে এম হাফিজ আক্তার বলেন, ‘রাজধানী ও দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে জাল টাকার নোট উৎপাদনকারীরা ঈদ, পূজা ও বড় উৎসবকে টার্গেট করে বাজারে জাল নোট ছড়িয়ে দিত। এক লাখ টাকার জাল নোট তৈরি করতে তাদের খরচ হয় দশ হাজার টাকা। পরবর্তীতে এক লাখ টাকার জাল নোট পাইকারের কাছে বিক্রি করতো পনেরো হাজার টাকায়। পাইকারি বিক্রেতা প্রথম খুচরা বিক্রেতার কাছে বিক্রি করতো বিশ থেকে পঁচিশ হাজার টাকায়। পরবর্তী ধাপে প্রথম খুচরা বিক্রেতা দ্বিতীয় খুচরা বিক্রেতার কাছে বিক্রি করতো চল্লিশ থেকে পয়তাল্লিশ হাজার টাকায়।

আসামিদের জিজ্ঞাসাবাদের বরাত দিয়ে তিনি জানান, মাঠপর্যায়ে তাদের কর্মীরা নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র কিনে এই জাল টাকা বাজারে সরবরাহ করতো। গ্রেফতারকৃতদের বিরুদ্ধে ডেমরা থানায় মামলা দায়ের হয়েছে বলেও জানান তিনি।

বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা/ইউজে/এমও

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন