বিজ্ঞাপন

টাইব্রেকারে চেলসিকে হারিয়ে কারাবো কাপের কোয়ার্টারে স্পার্স

September 30, 2020 | 2:58 am

স্পোর্টস ডেস্ক

কারাবো কাপের শেষ ১৬'তে লন্ডন ডার্বিতে মুখোমুখি হয় চেলসি আর টটেনহাম হটস্পার্স। নির্ধারিত ৯০ মিনিট ১-১ গোলে সমতায় শেষ হলে ম্যাচ গড়াই টাইব্রেকারে। আর পেনাল্টি শ্যুট আউটে চেলসিকে ৫-৪ ব্যবধানে হারিয়ে কোয়ার্টার ফাইনাল নিশ্চিত করে টটেনহাম হটস্পার্স। ম্যাচের শুরুর দিকে চেলসিকে গোল করে এগিয়ে নেন চলতি মৌসুমে যোগ দেওয়া জার্মান স্ট্রাইকার টিমো ভার্নার আর ম্যাচের অন্তিম মুহূর্তে গোল করে স্পার্সকে সমতায় ফেরান এরিক লামেলা। এরপর ম্যাচ গড়ায় টাইব্রেকারে, সেখানে স্পার্স পাঁচটি শটেই গোল করে আর চেলসির হয়ে শেষ শটটি মিস করেন তরুণ মিডফিল্ডার মেসন মাউন্ট।

বিজ্ঞাপন

শেষ ১৬'র লড়াইয়ে মুখোমুখি লন্ডনের দুই ক্লাব স্পার্স ও চেলসি। কেবল লন্ডন ডার্বিই নয় সেই সঙ্গে লড়াইটা গুরু ও শিষ্যেরও। জোসে মোরিনহোর অধীনে এক সময় ইপিএল মাতিয়েছেন ল্যাম্পার্ড আর সময়ের পরিবর্তনের সঙ্গে সঙ্গে এখন চেলসির ডাগ আউটে ল্যাম্পার্ড আর নানান ক্লাব ঘুরে টটেনহামের দায়িত্ব নিয়েছেন স্পেশাল ওয়ান। গুরু শিষ্যের শেষ দুই দেখাতে ল্যাম্পার্ডই শেষ হাসি হেসেছিল তবে এবার চিত্র পাল্টে গেল। টাইব্রেকারে স্পেশাল ওয়ানের মুখে ফুটবল হাসি।

ম্যাচের ১৯তম মিনিটে সদ্যই রিয়াল মাদ্রিদ থেকে স্পার্সে নাম লেখানো তরুণ ফুলব্যাক সার্জিও রেগুলন ভুল করে বসেন। বল হারিয়ে ফেলেন আজপিলিকুয়েটার কাছে আর তার কাছ থেকে বল পান চেলসির জার্মান স্ট্রাইকার টিমো ভার্নার। মৌসুমে এর আগে গোল না পেলেও এবার গোলের খাতা খুলে ফেলেন স্পার্সের জালে বল জড়িয়ে। আর সেই সঙ্গে দলকে এগিয়ে নেন ১-০ ব্যবধানে। এর ঠিক তিন মিনিট পরে স্পার্সকে প্রায় সমতায় ফিরিয়ে ফেলেছিলেন গেডসন ফার্নান্দেজ। তবে সে যাত্রায় রক্ষা পায় ব্লুজরা।

বিজ্ঞাপন

টাইব্রেকারে চেলসিকে হারিয়ে কারাবো কাপের কোয়ার্টারে স্পার্স

এদিকে লেইপজিগের হয়ে দুর্দান্ত মৌসুম কাটানো টিমো ভার্নার চেলসির হয়ে এদিন প্রথম গোল করেন। গেল মৌসুম থেকে শুরু করে সদ্য শুরু হওয়া নতুন মৌসুম পর্যন্ত ভার্নারের থেকে বেশি গোল করেছেন কেবল তিনজন খেলোয়াড়। বায়ার্ন মিউনিখের রবার্ট লেভান্ডোফস্কি (৫৬), ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো (৪০) এবং চিরো ইম্মোবিল (৪০) আর ভার্নারের গোল সংখ্যা ৩৫টি।

বিজ্ঞাপন

তবে শেষ পর্যন্ত চেলসির হয়ে তার প্রথম গোল দলকে জয় এনে দিতে পারেনি। ম্যাচের অন্তিম মুহূর্তে স্পার্সকে সমতায় ফেরান আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ড এরিক লামেলা। ম্যাচের ৮৪তম মিনিটে সার্জিও রেগুলন স্পার্সের বাঁ-প্রান্ত থেকে বল নিয়ে চেলসির ডি বক্সের কোণায় ঢুকে পড়েন আর সেখান থেকে দুর্দান্ত এক ক্রস করেন। রেগুলনের ক্রস দূরের পোস্টে পেয়ে যান লামেলা আর ঠান্ডা মাথায় বল পাঠিয়ে দেন জালে। তাতেই ১-১ গোলের সমতায় ফেরে চেলসি। আর ম্যাচ শেষ হয় সমতাতেই।

টাইব্রেকারে চেলসিকে হারিয়ে কারাবো কাপের কোয়ার্টারে স্পার্স

বিজ্ঞাপন

এবার পালা ম্যাচ মীমাংসার, তাই তো খেলা গড়ায় টাইব্রেকারে। পেনাল্টি শ্যুট আউটে স্পার্সের হয়ে গোল করেন এরিক ডায়ার, এরিক লামেলা, এমিল হজবার্গ, লুকাস মৌরা এবং হ্যারি কেন। চেলসির হয়ে প্রথম চারটি শট থেকে গোল করেন টামি আব্রহাম, চেজার আজপিলিকুয়েটা, জর্জিনহো এবং এমারসন। এরপর ৫ম শটটি নিতে আসেন চেলসির তরুণ ইংলিশ মিডফিল্ডার মেসন মাউন্ট। শট নিতে এসে বল গোলপোস্টের বাইরে পাঠিয়ে দেন মাউন্ট। আর তাতেই ম্যাচ হাতছাড়া হয় ব্লুজদের।

টাইব্রেকারে ৫-৪ গোলের ব্যবধানে জিতে শেষ পর্যন্ত কারাবো কাপের কোয়ার্টার ফাইনাল নিশ্চিত করে জোসে মোরিনহোর টটেনহাম হটস্পার্স।

বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা/এসএস

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন