বিজ্ঞাপন

নিঃসন্তান বোনের দুঃখ ঘোচাতে নিজের ছেলে দান!

September 30, 2020 | 6:12 pm

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট

চট্টগ্রাম ব্যুরো: চট্টগ্রাম নগরীর আকবর শাহ থানা এলাকায় নিজ বাসা থেকে নিখোঁজ দেড় বছরের এক শিশুকে আপন খালার হেফাজত থেকে উদ্ধার করা হয়েছে। পুলিশ জানিয়েছে, নিঃসন্তান বোনের দুঃখ ঘোচাতে শিশুটির মা-ই তাকে স্বামীর অগোচরে বোনের হেফাজতে দিয়ে দেয়। পরে শিশুটির বাবা থানায় অপহরণ মামলা দায়ের করলে পুলিশ তদন্তে নেমে মায়ের সম্পৃক্ততা পায়। শিশুটিকে উদ্ধারের পাশাপাশি পুলিশ মা ও খালাকে গ্রেফতার করেছে।

বিজ্ঞাপন

বুধবার (৩০ সেপ্টেম্বর) ফেনী জেলার ছাগলনাইয়া উপজেলার পশ্চিম ছাগলনাইয়া গ্রামে নজির আহমদের ভাড়াঘরে খালার বাসা থেকে শিশুটিকে উদ্ধার করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন আকবর শাহ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. জহির হোসেন।

শিশু হাবিবুর রহমান রোহান নির্মাণ শ্রমিক আব্দুল হান্নানের ছেলে। তাদের বাসা নগরীর আকবর শাহ থানার বিশ্ব কলোনীর বি-ব্লকে এছাক ডাক্তারের ভবনের নিচতলায়। পুলিশ তার মা মাবিয়া খাতুন (৩৩) ও খালা শাহেনা আক্তারকে (৪০) গ্রেফতার করেছে।

বিজ্ঞাপন

ওসি জহির সারাবাংলাকে জানান, গত ২৪ সেপ্টেম্বর দুপুর ২টার দিকে বাসা থেকে নিখোঁজ হয় রোহান। তার বাবা আব্দুল হান্নান প্রতিবেশিদের জিজ্ঞাসাবাদ করে এবং সিসি ক্যামেরার ফুটেজ পর্যালোচনা করে নিশ্চিত হন, অজ্ঞাতনামা এক নারী আরও কয়েকজনের সহযোগিতায় রোহানকে অপহরণ করে নিয়ে গেছে। ২৭ সেপ্টেম্বর তিনি থানায় ছেলেকে অপহরণের অভিযোগে মামলা করেন। এতে তিনি অভিযোগ করেন, ঘটনার দিন দুপুরে তার মেয়ে জান্নাতুল ফেরদৌস সুমাইয়া (৪) ও ছেলে হাবিবুর রহমান রোহান ঘুমাচ্ছিলেন। তার স্ত্রী মাবিয়া বাথরুমে গোসল করছিলেন। তখন বাসায় অজ্ঞাতনামা নারীসহ কয়েকজন ঢুকে রোহানকে প্রলুব্ধ করে নিয়ে যান।

‘মামলা তদন্তের শুরুতেই সিসি ক্যামেরার ফুটেজ পর্যালোচনা করে আমাদের কাছে মাবিয়া খাতুনের বিষয়ে সন্দেহ হয়। জিজ্ঞাসাবাদের একপর্যায়ে মাবিয়া জানান, তার বড় বোন শাহেনার কোনো সন্তান নেই। এ নিয়ে স্বামী আব্দুল মান্নানের সঙ্গে তার প্রায়ই ঝগড়া হয়। শাহানা সবসময় কষ্টের কথা মাবিয়াকে বলতেন। তখন মাবিয়াই তার স্বামীর অবর্তমানে নিজের ছেলেকে শাহেনাকে দিয়ে দেওয়ার বিষয়ে সম্মত হন। তদন্তে পাওয়া গেছে, মাবিয়া নিজেই ছেলেকে কর্ণেলহাট এলাকায় নিয়ে শাহেনার হাতে তুলে দেয়। এরপর তাকে ফেনীর বাসে তুলে নিয়ে যান শাহেনা। এই তথ্য পাবার পর আমরা মাবিয়াকে গ্রেফতার করি। ফেনীতে শাহেনার বাসায় অভিযান চালিয়ে তার হেফাজত থেকে শিশুটিকে উদ্ধার করি এবং তাকেও গ্রেফতার করি।’

বিজ্ঞাপন

এর আগে, শাহেনা বিশেষভাবে সক্ষম একটি শিশুকে দত্তক নিলেও তাতে স্বামী আব্দুল মান্নান সন্তুষ্ট ছিলেন না। এরপর বোনের ছেলেকেই নিজের কাছে নিয়ে স্বামীকে সন্তুষ্ট করার পরিকল্পনা শাহেনা নিয়েছিলেন বলে তদন্তে পাওয়া তথ্যের ভিত্তিতে জানিয়েছেন ওসি জহির।

গ্রেফতার শাহেনা ও মাবিয়া এবং শিশু রোহানকে বুধবার বিকেলে আদালতে হাজির করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন ওসি।

বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা/আরডি/একে

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন