বিজ্ঞাপন

চোট থামিয়ে দিল সেরেনাকে

September 30, 2020 | 11:15 pm

স্পোর্টস ডেস্ক

মাত্র একটা ধাপ পেরুলেই চূড়ায় উঠে বসবেন। একটা শিরোপা জিততে পারলেই কিংবদন্তি মার্গারেট কোর্টের সঙ্গে যৌথভাবে নারী একক টেনিসে সর্বোচ্চ গ্র্যান্ড স্লাম জয়ী বনে যাবেন সেরেনা উইলিয়ামস। কিন্তু এই এক শিরোপার অপেক্ষাই আর ঘুচাতে পারছেন না তিন বছর ধরে। ইউএস ওপেনের সেমিফাইনাল থেকে বিদায় নেওয়া সেনেরাকে ফ্রেঞ্চ ওপেনে থামতে হলো চোটের কারণে।

বিজ্ঞাপন

ফ্রেঞ্চ ওপেনের শুরুটা হয়েছিল দুর্দান্ত। সোমবার প্রথম রাউন্ডে স্বদেশী ক্রিস্টি আহনের বিপক্ষে ৭-৬, ৬-০ ব্যবধানে জিতেছিলেন সেরেনা। আজ বুধবার দ্বিতীয় রাউন্ডের ম্যাচে মুখোমুখি হওয়ার কথা ছিল বুলগেরিয়ার সেতানা পিরোনকোভার। কিন্তু গোড়ালির পুরনো চোটটা এমনভাবে জেগে উঠল যে কোর্টে আর নামা হলো না মার্কিন কৃষ্ণকলির।

পুরো টুর্নামেন্ট থেকেই নাম প্রত্যাহার করে নিয়েছেন তিনি। ইউএস ওপেনের সেমিফাইনালেই জেগে উঠেছিল এই চোট। পূনর্বাসনের পর ফিট হয়েছিলেন। ফ্রেঞ্চ ওপেন খেলতে গিয়েছিলেন ফিট হয়েই। কিন্তু প্রথম রাউন্ড শেষ হতেই আবার জেগে উঠেছে গোড়ালির চোট। মার্কিন কিংবদন্তি তাতেই বুঝে গেছেন, টুর্নামেন্টে আর খেলা হচ্ছে না তার।

বিজ্ঞাপন

নাম প্রত্যাহার করে নেওয়ার পর ৩৯ বছর বয়সী তারকা সাংবাদিকদের বলেন, 'আমার মনে হচ্ছে আমাকে চার থেকে ছয় সপ্তাহ কোনো কাজ না করে বসে থাকতে হবে। আমরা হাঁটতেও অসুবিধা হচ্ছে। আমাকে পুনর্বাসন করতে হবে। অ্যাকিলিস এমন একটি আঘাত যা নিয়ে আপনি খেলতে চাইবেন না - আমার মনে হয় এটি সবচেয়ে বাজে ইনজুরির একটি। সেই পর্যায়ে যেতে চাই না, আমি চাই এটা দ্রুত ভালো হয়ে যাক।'

এক রাউন্ড খেলার পর চোটের কারণে নাম প্রত্যাহার করে নেওয়ার বিষয়টি যে পোড়াচ্ছে সেটাও ফুটে উঠল সেরেনার কথায়, 'এই ধরনের চোটকে হালকা করে নেওয়া যায় না। আমি টেনিস ভালোবাসি। প্রতিযোগিতাও ভালোবাসি। কিন্তু অনেক সময় কিছু করার থাকে না।'

বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা/এসএইচএস

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন