বিজ্ঞাপন

কলকাতার টানা দ্বিতীয় জয়

October 1, 2020 | 6:48 am

স্পোর্টস ডেস্ক

ফের ব্যাট হেসেছে তরুণ শুভমান গিলের। পরে বল হাতে উজ্জ্বলতা ছড়ালেন কলকাতার দুই তরুণ পেসার কমলেশ নাগারকোটি ও শিভম মাভি। তরুণ্যের জ্বলে উঠার দিনে আইপিএলে নিজেদের দ্বিতীয় জয় পেয়েছে কলকাতা। রাজস্থান রয়্যালসকে কাল ৩৭ রানে হারিয়েছে দিনেশ কার্তিকের দল।

বিজ্ঞাপন

এই জয়ে পয়েন্ট টেবিলের দুই নম্বরে উঠে এলো আইপিএলের সাবেক চ্যাম্পিয়ন দলটি। তিন ম্যাচ খেলে দুটিতে জেতা কলকাতার পয়েন্ট এখন ৪। শীর্ষে থাকা দিল্লি ক্যাপিটালও তিন ম্যাচে জিতেছে দুটিতে।

দুবাই আন্তর্জাতিক স্টেডিয়ামে টস হেরে প্রথমে ব্যাটিং করেছে কলকাতা। আগের ম্যাচে অপরাজিত ৭০ রানে ইনিংস খেলে কলকাতাকে জেতানো শুভমান গিল কালও শুরুতে আলো ছড়িয়েছেন। ৩৪ বলে ৫ চার ১ ছয়ে ৪৭ রান করেছেন ২১ বছর বয়সী তরুণ।

বিজ্ঞাপন

আন্দ্রে রাসেল ব্যাটিং অর্ডার উন্নতি করে নেমেছিলেন চার নম্বরে। ১৪ বল খেলে তিন ছয়ে ২৪ রান করে আউট হয়েছেন ক্যারিবিয়ান হার্ডহিটার। কলকাতার দ্বিতীয় সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক ইয়ান মর্গান। ছয়ে নেমে ২৩ বলে ১ চার ২ ছয়ে ৩৪ রান করেছেন। শেষ পর্যন্ত নির্ধারিত ২০ ওভারে ৬ উইকেট হারিয়ে ১৭৪ রানের সংগ্রহ পায় কলকাতা। রাজস্থানের হয়ে ১৮ রানে দুই উইকেট নিয়েছেন জোফরা আর্চার।

জস বাটলার, স্টিভেন স্মিথ, সাঞ্জু স্যামসনদের ফর্মে থাকা রাজস্থান জবাব দিতে নেমে খেই হারিয়েছে শুরুতেই। কলকাতার দুই পেসার কমলেশ নাগারকোটি ও শিভম মাভি গতির ঝড় তোলেন ইনিংসের শুরুতে। সঙ্গে অভিজ্ঞ প্যাট কামিন্স তো ছিলেনই। সব মিলিয়ে ৪২ রানে পাঁচ উইকেট হারায় রাজস্থান।

বিজ্ঞাপন

এই ধাক্কা পরে আর কাটিয়ে উঠতে পারেনি দলটি। এক টম কুরান ছাড়া কেউ সেভাবে দাঁড়াতেও পারেননি। শেষ পর্যন্ত নির্ধারিত ২০ ওভারে নয় উইকেট হারিয়ে ১৩৭ রান তুলতে পেরেছে রাজস্থান। সাত নম্বরে নেমে ৩৬ বলে ২ চার ৩ ছয়ে ৫৪ রান করেন কুরান। রাজস্থানের পক্ষে এছাড়া দুই অঙ্কের কোটা পেরুতে পেরেছেন কেবল জস বাটলার ২১ ও রাহুল তিওয়াতিয়া।

কলকাতার হয়ে কমলেশ নাগারকোটি ১৩ ও শিভম মাভি ২০ রানে দুটি উইকেট নিয়েছেন। ২৫ রান খরচায় দুই উইকেট পেয়েছেন বরুন চক্রবর্তীও।

বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা/এসএইচএস

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন