বিজ্ঞাপন

চতুর্থবারের মতো বাফুফে সভাপতি কাজী সালাউদ্দিন

October 3, 2020 | 7:26 pm

স্পোর্টস করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: সব জল্পনা কল্পনা এবং অপেক্ষার পালা শেষে চতুর্থবারের মতো বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের (বাফুফে) নির্বাচনে সভাপতি পদে জয় লাভ করলেন কাজী সালাউদ্দিন। আর সিনিয়র সহ-সভাপতি পদে আব্দুস সালাম মুর্শেদী জয়লাভ করেছেন। শনিবার (৩ অক্টোবর) ২১ পদের বিপরীতে ৪৭জন প্রার্থী অংশ নেন এই নির্বাচনে। দুপুর দুইটায় শুরু হয়ে এই ভোট চলে সন্ধ্যা ছয়টা পর্যন্ত। এরপর ভোট গণনা শেষে আনুষ্ঠানিক ঘোষণায় কাজী সালাউদ্দিনকে বিজয়ী ঘোষণা করা হয়। ভোট গণনা শেষে জানা যায় সভাপতি পদে কাজী সালাউদ্দিন ৯৪টি, বাদল রায় ৪০টি এবং শফিকুল ইসলাম মানিক ১টি ভোট পেয়েছেন। এছাড়া সিনিয়র সহ-সভাপতি পদে আব্দুস সালাম মুর্শেদী ৯০টি এবং শেখ আসলাম ৪৫টি ভোট পেয়েছেন।

বিজ্ঞাপন

আগের তিনবারের নির্বাচনে দুইবার তাকে প্রতিদ্বন্দ্বিতার সম্মুখীন হতে হয়েছিল। প্রথমবার প্রয়াত মেজর জেনারেল (অব:) আমিন আহমেদ চৌধুরীকে হারিয়েছিলেন তিনি। দ্বিতীয় বার অবশ্য বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতাতেই জয়ী হয়েছিলেন। আর গতবার হারিয়েছিলেন কামরুল ইসলাম পোটনকে। এবারও নির্বাচনি চ্যালেঞ্জ জিতেই জয়ী হয়েছেন সালাউদ্দিন।

এর আগে গত দুইদিন ভোট কেন্দ্র পর্যবেক্ষণে রেখে সকল প্রস্তুতি সেরে নেয় নির্বাচন কমিশন।

বিজ্ঞাপন

চার বছর পর বিভিন্ন মেয়াদে নির্বাচন পেছালেও ৩ অক্টোবর (শনিবার) আয়োজন করা হয় আলোচিত এই নির্বাচন। এই নির্বাচনের মাধ্যমে আগামী চার বছরে কারা দেশের সর্বোচ্চ ফুটবল নিয়ন্ত্রক সংস্থার সর্বোচ্চ আসনে থাকবেন তা ভোটের মাধ্যমে নির্ধারিত হলো। রাজধানীর প্যান প্যাসিফিক সোনারগাঁও হোটেলে সকালে সাধারণ সভা এবং দুপুর দু’টা থেকে ভোটগ্রহণ শুরু হয়ে চলে সন্ধ্যা ৬ টা পর্যন্ত। এরপর ভোট গণনার পর ফলাফল ঘোষণা করা হয়।

চতুর্থবারের মতো বাফুফে সভাপতি কাজী সালাউদ্দিন

বিজ্ঞাপন

এবারের বাফুফে নির্বাচনে দুটি প্যানেল অংশ নেয়। একদিকে কাজী সালাউদ্দিন-মুর্শেদীর নেতৃত্বে সম্মিলিত ফুটবল পরিষদ, অন্যদিকে সভাপতি পদ ছাড়া প্যানেল ঘোষণা করে আসলাম-মহি সমন্বয় পরিষদ। স্বতন্ত্রভাবে বিভিন্ন পদে নির্বাচনে দাঁড়িয়েছিলেন আরও ৫জন। স্বতন্ত্রভাবে সভাপতি পদে কাজী সালাউদ্দিনের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে নামেন শফিকুল ইসলাম মানিক। ব্যালট পেপারে নাম থাকলেও আনুষ্ঠানিকভাবে নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ানোর ঘোষণা দিয়েছিলেন বাদল রায়।

কমিশনার হিসেবে নির্বাচনে দায়িত্ব পালন করেন মাহফুজুর রহমান সিদ্দিকী, মোতাহার হোসেইন সাজু ও সাধারণ সম্পাদক আবু নাঈম সোহাগ।

বিজ্ঞাপন

নির্বাচনকে কেন্দ্র করে সকল আয়োজন হলেও এদিন সকালে বাফুফের বার্ষিক সাধারণ সভাও অনুষ্ঠিত হয়েছে। যেখানে গত চার বছরে এজিএম হয়েছে মাত্র একবার। এজিএমে আর্থিক প্রতিবেদন থেকে শুরু করে ফেডারেশনের যাবতীয় হিসেব উপস্থাপন করা হয়।

সারাবাংলা/জেএইচ/এসএস

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন