বিজ্ঞাপন

চিকিৎসাধীন অবস্থায় মোটর শোভাযাত্রা করে সমালোচিত ট্রাম্প

October 5, 2020 | 4:40 pm

ফিচার ডেস্ক

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে ওয়াশিংটনের সেনা হাসপাতাল ওয়াল্টার রিড ন্যাশনাল মিলিটারি মেডিক্যাল সেন্টারে ভর্তি মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। সেখান থেকেই প্রেসিডেন্টের দায়িত্ব পালন করছেন তিনি। তবে রোববার হঠাৎ করেই হাসপাতালের বাইরে বের হয়ে মোটর শোভাযাত্রায় যোগ দেন ট্রাম্প। আক্রান্ত অবস্থায় হাসপাতাল থেকে বের হয়ে এমন মোটর শোভাযাত্রার কড়া সমালোচনা করছেন বিশেষজ্ঞরা। অনেকেই ডোনাল্ড ট্রাম্পের এমন কর্মকাণ্ডকে ‘পাগলামি’ বলে আখ্যায়িত করেছেন। খবর বিবিসি, আল জাজিরা।

বিজ্ঞাপন

শুক্রবার হাসপাতালে ভর্তি হওয়ার পর দিন থেকেই হাসপাতাল চত্বরে ট্রাম্পের শুভাকাঙ্ক্ষীরা  জড়ো হয়েছিলেন। এর একদিন পর রোববার টুইটারে এক ভিডিওবার্তায় ট্রাম্প জানান, তিনি এসব ‘দেশপ্রেমিক’ শুভাকাঙ্ক্ষীদের একটি ‘সারপ্রাইজ’ দিতে চান। এর কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই মুখে মাস্ক পরে বুলেটপ্রুফ গাড়িতে চেপে বের হয়ে যান তিনি। তিনি যে গাড়িতে চড়েছেন সেই গাড়ির সামনের সিটে দেখা গেছে মাস্ক পরে আরও দুইজন বসে আছেন।

তার এমন কর্মকাণ্ডের কঠোর সমালোচনা করছেন বিশেষজ্ঞরা। তারা বলছেন, করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হলে যেসব সরকারি বিধিনিষেধ মানার বাধ্যবাধকতা রয়েছে তা নিজেই ভঙ্গ করলেন প্রেসিডেন্ট। এমন কাণ্ড ঘটিয়ে তিনি যে বার্তা দিলেন তার ফল শুভ হবে না।

বিজ্ঞাপন

জর্জ ওয়াশিংটন ইউনিভার্সিটির ডিজেস্টার মেডিসিন বিভাগের প্রধান জেমস ফিলিপস বলেন, “প্রেসিডেন্টের ওই অপ্রয়োজনীয় শোভাযাত্রায় তার গাড়িতে থাকা প্রত্যেক সদস্যকে এখন বাধ্যতামূলক কোয়ারেনটাইনে যেতে হচ্ছে। এরা অসুস্থ হতে পারে। তারা মারাও যেতে পারে। রাজনৈতিক নাটক মঞ্চায়নে ট্রাম্প তাদের যে আদেশ দিয়েছন এতে তিনি তাদের জীবন ঝুঁকিতে ফেলেছেন। এটা পাগলামি”।

নিউইয়র্ক হেলথ প্লাস হসপিটাল- এর চিকিৎসক সিরা মদদ বলেন, “নৈতিক, চিকিৎসা নীতি, মহামারি ও স্বাস্থ্য বিধির সবকিছু উপেক্ষা করে ট্রাম্প এক মারাত্মক মোহের চর্চা করেছেন,মানুষকে দেখাতে চেয়েছেন তিনিই এখন নেতৃত্বে। স্বাভাবিকতার এক মিথ্যা বার্তা দিয়েছেন তিনি। তিনি চেয়েছেন উচ্চ সংক্রমণ ক্ষমতাসম্পন্ন একটি ভাইরাসকে স্বাভাবিক হিসেবে দেখাতে”।

বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা/আইই

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন