বিজ্ঞাপন

অবশেষে দেখা গেল রশিদের সেই ‘ভয়ঙ্কর রূপ’

October 9, 2020 | 1:05 pm

স্পোর্টস ডেস্ক

জয়ে ফিরেছে সানরাইজার্স হায়দ্রাবাদ। কদিন আগে মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের বিপক্ষে বাজেভাবে হারা দলটি কাল কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবকে ৬৯ রানে হারিয়েছে। যাতে ষষ্ঠ ম্যাচে তৃতীয় জয় পাওয়া ডেভিড ওয়ার্নারের দল পয়েন্ট টেবিলের তিন নম্বরে উঠে বসেছে। কাল হায়দ্রাবাদের জয়ে বড় অবদান রশিদ খানের।

বিজ্ঞাপন

আফগান তরুণ কদিন আগে বলছিলেন, 'ক্রিকেট খেলার মতো মানসিকত ছিল না আমার'। বাবাকে হারিয়েছেন ২০১৯ সালের শুরুতে। তারপর মা-ই ছিলেন রশিদের পৃথিবী। সেই মা না ফেরার দেশে পাড়ি দিয়েছেন মাসখানেক আগে। রশিদ যে কঠিন সময় পার করছেন সেটা বুঝাই যাচ্ছে। মাঠের ক্রিকেটেও বুঝি তার প্রভাব পড়ল!

বল হাতে আগের মতো খুনে মেজাজে দেখা যাচ্ছিল না আফগান তরুণকে। একাই ম্যাচ জেতানোর ক্ষমতা কই যেন হারিয়ে বসেছিলেন। ভয় পাওয়ার বদলে আফগান তরুণকে আরামছেই খেলছিলেন ব্যাটসম্যানরা। তবে কাল দেখা মিলল আগের সেই রশিদের।

বিজ্ঞাপন

২০১ রানের জবাব দিতে নেমে কিংস ইলেভেন পাঞ্জাব অবশ্য শুরুতেই বিপদে পড়েছিল। কিন্তু চারে নেমে নিকোলাস পুরান হায়দ্রাবাদের বোলারদের পেটাচ্ছিলেন নিদারুণভাবে। বিশেষ করে স্পিনারদের। ইনিংসের নবম ওভারে পাঞ্জাবের আব্দুস সামাদের এক ওভার থেকেই ২৮ রান তুলে নেন পুরান। ক্যারিবিয়ান হার্ডহিটার যেভাবে খেলছিলেন তাতে মনে হচ্ছিল ২০১ টপকানোও সম্ভব।

হায়দ্রাবাদের অধিনায়ক ডেভিড ওয়ার্নার রশিদ খানকে নিজের থলে থেকে বের করলেন তখনই। আর ম্যাচের গতিপথ পাল্টে গেল তাতেই। খুনে নিকোলাস পুরানে ফেরালেন, তারপর আরও দুই উইকেট নিলেন আফগান তরুণ। পাশাপাশি ক্ষিপ্র ফিল্ডিংয়ে গ্লেন ম্যাক্সওয়েলকে রান আউট করেছেন। সেখানেই ম্যাচ হেরে বসেছে পাঞ্জাব।

বিজ্ঞাপন

শেষ অবধি রশিদের বোলিং ফিগার; ৪ ওভার বোলিং করে এক মেডেনে ১২ রান খরচায় ৩ উইকেট। পাঞ্জাবের ইনিংস থেমেছে ১৩৫ রানেই। পুরান একাই করেছেন মাত্র ৩৭ বলে ৭৭ রান। ক্যারিবিয়ান তারকার ইনিংসে চার ৫টি, ছক্কা ৭টি।

এর আগে হায়দ্রাবাদের বড় সংগ্রহের ভিতটা গড়ে দিয়েছিলেন দুই ওপেনার ডেভিড ওয়ার্নার ও জনি বেয়ারস্টো। দুজনের ওপেনিং জুটি ছিল ১৬০ রানের। তিন বলের ব্যবধানে দুজন আউট হওয়ার আগে ওয়ার্নার করেছেন ৪০ বলে ৫২ রান। আর বেয়ারস্টো ৫৫ বলে ৭ চার ৬ ছক্কায় ৯৭ রান করে ফিরেছেন সেঞ্চুরি মিসের হতাশা নিয়ে। পাঁচে নেমে ১০ বলে ২০ রান করেছেন কেন উইলিয়ামসন। নির্ধারিত ২০ ওভারে ৬ উইকেট হারিয়ে ২০১ রান তোলে হায়দ্রাবাদ।

বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা/এসএইচএস

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন