বিজ্ঞাপন

ইন্টারনেট ব্যবসাকে সন্ত্রাসী মুক্ত করার দাবি

October 11, 2020 | 4:52 pm

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: ইন্টারনেট ব্যবসাকে সন্ত্রাসী মুক্ত করার দাবি জানিয়েছে বাংলাদেশ মুঠোফোন গ্রাহক অ্যাসোসিয়েশন। রোববার (১১ অক্টোবর) গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে মুঠোফোন গ্রাহক অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি মহিউদ্দীন আহমেদ এ দাবি জানান।

বিজ্ঞাপন

বিবৃতিতে মহিউদ্দীন আহমেদ বলেন, ‘বাংলাদেশে এক সময় টেলিভিশন ক্যাবল ব্যবসা নিয়ে সন্ত্রাসী কার্যক্রম পরিচালিত হত। এমন কি এ ব্যবসায় আধিপত্য বজায় রাখতে অনেক হত্যাকাণ্ডও সংঘটিত হয়েছিল। ঠিক একই অবস্থা বর্তমান ইন্টারনেট ব্যবসাকে কেন্দ্র করে পরিচালিত হচ্ছে। সারাদেশে তারের জঞ্জাল সৃষ্টিও এর অন্যতম একটি কারণ। বর্তমানে বৈধ আইএসপি আছে ২ হাজার ১০০। আর অবৈধ ভাবে ব্যবসা পরিচালক করে ৩ হাজার ৫০০। টেলিভিশন ক্যাবল অপারেটর আছে ৪ হাজার। এর মধ্যে ১০ ভাগ বৈধভাবে ইন্টারনেট ব্যবসা করে। বাকি ৯০ ভাগই রাজনৈতিক ছত্রছায়ায় বা পেশি শক্তির বলে ব্যবসা করে থাকে। এসব ইন্টারনেট ব্যবসায়ীর হাতে প্রতিনিয়তই লাঞ্ছিত হচ্ছে নিরীহ গ্রাহকরা।’

মুঠোফোন গ্রাহক অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি বলেন, ‘গতকাল গণমাধ্যমে আমরা দেখলাম খিলগাঁওয়ে একটি কুরিয়ার ব্যবসায় ইন্টারনেট ব্যবসায়ী কিভাবে হামলা করে নগদ টাকা হাতিয়ে নেওয়াসহ গ্রাহককে লাঞ্ছিত করেছে, শুধুমাত্র দুর্বল নেটওয়ার্ক ঠিক করতে বলায়। আমরা এ ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাই।’

বিজ্ঞাপন

একইভাবে ইন্টারনেট ব্যবসায়ী সমিতি গ্রাহকদের বিল দিতে কষ্ট হয় বলে অশ্লীল কার্টুন প্রকাশ করে গ্রাহকদের সঙ্গে উপহাস করেছে জানিয়ে এতে আরও বলা হয়, আমরা সন্ত্রাসী, অপরাধী, সমাজে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টিকারী ইন্টারনেট ব্যবসায়ীকে দ্রুত আইনের আওতায় এনে বিচারের মুখোমুখি করার দাবি জানাচ্ছি। অবৈধ ব্যবসায়ীদের সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ ও একইসাথে লাইসেন্স প্রাপ্ত যারা অপকর্মে লিপ্ত তাদের লাইসেন্স বাতিল সহ প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য বিটিআরসি ও সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি।’

সারাবাংলা/ইএইচটি/এমও

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন