বিজ্ঞাপন

৪ রানে ৬ উইকেট পতন, হায়দ্রাবাদের অবিশ্বাস্য হার

October 25, 2020 | 2:59 am

স্পোর্টস ডেস্ক

প্রথম পাওয়ার প্লের পর মনে হচ্ছিল সানরাইজার্স হায়দ্রাবদের জয়টা সময়ের ব্যাপার মাত্র। ১২৭ রান তাড়া করতে নেমে ৬ ওভারে বিনা উইকেটে যে ৫২ রান তুলে ফেলল দলটি। আশ্চর্য, তারপরও শেষ পর্যন্ত হারা দলের নাম হায়দ্রাবাদ। হায়দ্রাবাদের মিডল অর্ডার ও লোয়ার অর্ডার ধসিয়ে দিয়ে অবিশ্বাস্যভাবে ম্যাচটা ১২ রানে জিতে নিয়েছে কিংস ইলেভেন পাঞ্জাব।

বিজ্ঞাপন

১২৭ রান তাড়া করতে নেমে শুরুতে ঝড় তুলেছিলেন ডেভিড ওয়ার্নার। ভালো সঙ্গ দিচ্ছিলেন জনি বেয়ারস্টোও। দলীয় ৫৬ রানের মাথায় রবি বিষ্ণু ২০ বলে ৩৫ রান করা ওয়ার্নারকে ফিরিয়ে প্রথম ধাক্কাটা দেন।

কিছুক্ষণ পর জনি বেয়ারস্টোকে (১৯) সরাসরি বোল্ড করেন অশ্বিন। তাতেই যেন ম্যাচের মোর ঘুড়ে গেল! মানিশ পান্ডিয়া, বিজয় শঙ্কর রানের সঙ্গে সংগ্রাম করে দলকে একশ পর্যন্ত নিলেন বটে কিন্তু তারপরই ধুরমুর করে ভেঙে পড়েছে হায়দ্রাবাদের ব্যাটিং লাইনআপ।

বিজ্ঞাপন

ঠিক ১০০ রানের মাথায় চতুর্থ উইকেট হারানো দলটি অলআউট হয়েছে ১১৪ রানে। শেষ ছয় উইকেটের পতন হয়েছে মাত্র ৪ রানের ব্যবধানে। হায়দ্রাবাদের এমন পতনে বড় অবদান ক্রিস জর্ডান ও আর্শ্বদীপ সিংয়ের। ৪ ওভারে মাত্র ১৭ রান খরচায় ৩ উইকেট নিয়েছেন জর্ডান। আর্শ্বদীপ নিয়েছেন ২৩ রানে তিন উইকেট। ১৯.৫ ওভারে ১১৪ রানে গুটিয়ে গেছে হায়দ্রাবাদ।

এর আগে রান তুলতে সংগ্রাম করতে হয়েছে পাঞ্জাবকেও। মায়াঙ্ক আগারওয়ালের বদলে ওপেনিংয়ে নেমে ১৪ বলে ১৭ করে আউট হয়েছেন মানদ্বীপ সিং। তিনে নেমে ২০ বলে ২০ করেছেন ক্রিস গেইল। ফমে থাকা লোকেশ রাহুল ২৭ করেছেন ঠিক ২৭ বলে। পাঞ্জাবের সর্বোচ্চ স্কোরার নিকোলাস পুরানা। চারে নেমে ২৮ বলে ৩২ করেছেন ক্যারিবিয়ান তারকা।

বিজ্ঞাপন

শেষ পর্যন্ত নির্ধারিত ২০ ওভারে ৭ উইকেট হারিয়ে ১২৬ রান তোলে পাঞ্জাব। হায়দ্রাবাদের হয়ে দুটি করে উইকেট নিয়েছেন সন্দ্বীপ শর্মা, জেসন হোল্ডার ও রশিদ খান।

এদিকে, দিনের অপর ম্যাচে দিল্লি ক্যাপিটালের বিপক্ষে ৫৯ রানের বড় জয় পেয়েছে কলকাতা নাইট রাইডার্স। প্রথমে ব্যাটিং করে ১৯৪ রানের বড় সংগ্রহ গড়েছিল কলকাতা। ওপেনিংয়ে নেমে ৫৩ বলে ১৩ চার ১ ছয়ে ৮১ রান করেন নিতেশ রানা। পাঁচে নেমে ৬৪ রানের একটা ঝড়ো ইনিংস খেলেন সুনিল নারিন। ক্যারিবিয়ান তারকার ইনিংসে চার ৬টি, ছক্কা ৪টি। তৃতীয় সর্বোচ্চ ১৭ রান এসেছে অধিনায়ক ইয়ান মর্গানের ব্যাট থেকে।

বিজ্ঞাপন

পরে জবাব দিতে নেমে শুরুটা ভালো হয়নি দিল্লির। দুই অভিজ্ঞ শিখর ধাওয়ান ও আজিঙ্কা রাহানের ওপেনিং জুটি ভেঙেছে ইনিংসের প্রথম বলেই। শূন্য রানে রাহানের বিদায়ের পর দলীয় ১৩ রানের ফিরে যান ধাওয়ানও। এরপর এক শ্রেয়াস আয়ার ছাড়া কেউই সেভাবে রান তুলতে পারেননি।

দিল্লি অধিনায়ক ৩৮ বল খেলে ৫ চারে ৪৭ রান করেছেন। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ২৭ করেছেন ঋষভ পন্ট। শেষ পর্যন্ত ২০ ওভারে ৯ উইকেট হারিয়ে ১৩৫ রান তোলে দিল্লি।

বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা/এসএইচএস

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন