বিজ্ঞাপন

প্রেসিডেন্ট’স কাপের শিরোপা মাহমুদউল্লাহদের

October 25, 2020 | 8:02 pm

স্পোর্টস ডেস্ক

বিসিবি প্রেসিডেন্ট'স কাপে মাহমুদউল্লাহ একাদশ ফাইনালে উঠেছে ভাগ্যের জোড়ে। অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ সেটা অকপটে স্বীকারও করেছেন কদিন আগে। ভাগ্যের জোড়ে ফাইনালে উঠা এই দলটার হাতেই উঠল টুর্নামেন্টের শিরোপা।

বিজ্ঞাপন

রোববার (২৫ অক্টোবর) মিরাপুর শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে ফাইনালের লড়াইয়ে নাজমুল একাদশকে সাত উইকেটে হারিয়ে শিরোপা জিতে নিয়েছে মাহমুদউল্লাহর দল।

শিরোপা জিততে মাহমুদউল্লাহদের প্রয়োজন ছিল ১৭৪ রান। লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে শুরুতেই মিডল অর্ডার থেকে ওপেনিংয়ে উঠে আসা মুমিনুল হকের (৪) উইকেট হারায় মাহমুদউল্লাহর দল। সেট হয়ে বড় ইনিংস খেলতে ব্যর্থ তিনে নামা তরুণ মাহমুদুল হাসান জয়ও (১৮)। ব্যাটিংটা পুরো টুর্নামেন্টজুড়েই ভুগিয়েছে মাহমুদউল্লাহর দলকে। ফলে শুরুতে দুই উইকেট পতনের পর অনেকেই হয়তো মনে করছিলেন, আজও হয়তো পারবে না মাহমুদউল্লাহরা। তাছাড়া শান্তদের বিপক্ষে গ্রুপ পর্বের দুই ম্যাচেও যে হেরেছিল দলটি।

বিজ্ঞাপন

প্রেসিডেন্ট’স কাপের শিরোপা মাহমুদউল্লাহদের

এই শঙ্কা কী দারুণভাবেই না মিথ্যা প্রমাণ করলেন লিটন দাস, ইমরুল কায়েস ও মাহমুদউল্লাহরা। শুরুটা লিটনের হাত ধরে। টপ অর্ডারের অন্য ব্যাটসম্যানদের মতো তিনি নিজেও পুরো টুর্নামেন্টজুড়ে ব্যর্থ ছিলেন। ডানহাতি ওপেনার আজ রানে ফিরলেন একেবারে মোক্ষম সময়ে। ফাইনালে দল দ্রুত দুই উইকেট হারিয়ে যখন চাপে পড়ে গেল তখন চাপমুক্তির ব্যাটিং দেখিয়েছেন লিটন।

বিজ্ঞাপন

দুর্দান্ত তাসকিন আহমেদ, আল-আমিন হোসেনদের বিপক্ষে সাবলীল ক্রিকেট খেলে ফিফটি তুলে নিয়েছেন ৪৭ বলে। মাহমুদউল্লাহ একাদশের চাপ কমেছে তাতেই। ৬৮ বলে ১০ চারে ৬৯ রান করে লিটন যখন ফিরছিলেন মাহমুদউল্লাহ একাদশের জয়ের রাস্তাটা ততক্ষণে পাকা।

'পাকা রাস্তায়' দারুণভাবে এগিয়ে শিরোপা নিশ্চিত করেছেন দুই অভিজ্ঞ ইমরুল কায়েস ও অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ নিজে। চারে ব্যাটিং করতে নেমে শুরু থেকেই আক্রমাণাত্মক ক্রিকেট খেলেছেন ইমরুল। আর পাঁচে নেমে মাহমুদউল্লাহ ছিলেন বিস্ফোরক।

বিজ্ঞাপন

মাহমুদউল্লাহর দলের শিরোপা নিশ্চিত হওয়ার সময় ৫৫ বলে ৫৩ রান করে অপরাজিত ছিলেন ইমরুল। বাঁহাতি অভিজ্ঞ ক্রিকেটারের ইনিংসে চারের মার ১টি, ছক্কা ৬টি। মাহমুদউল্লাহ ১১ বলে ৩ চার ১ ছয়ে ২৩ রানে অপরাজিত ছিলেন। ২৯.৪ ওভারে তিন উইকেট হারিয়ে জয়ের জন্য ১৭৭ রান তুলে ফেলে মাহমুদউল্লাহ একাদশ।

প্রেসিডেন্ট’স কাপের শিরোপা মাহমুদউল্লাহদের

বিজ্ঞাপন

এর আগে নাজমুল একাদশ ১৭৩ রানের সংগ্রহ পেয়েছে ইরফান শুক্কুরের ব্যাটে। আজও ব্যর্থ হয়েছে দলটির টপ অর্ডার। ৩৫ রানে দুই ওপেনারকে হারানোর পর মুশফিকুর রহিম ও অধিনায়ক শান্ত রানের চিন্তা বাদ দিয়ে উইকেটে পড়ে থাকতে চেয়েছেন। তবে সফল হয়নি তাদের পরিকল্পনা। সেট হয়েও বড় ইনিংস খেলতে পারেননি।

৩৭ বলে ১২ রান করে ফিরেছেন মুশফিক। নাজমুল শান্ত ৩২ রান করতে খেলেছেন ৫৭ বল। পাঁচে নেমে কোনো রান না করেই ফিরেন আফিফ হোসেন ধ্রুব। বিপদে পড়া দলটির পক্ষে তখন দাঁড়িয়ে যান ইরফান শুক্কুর। একপ্রান্ত আগলে রেখে সাতে নেমে ৭৭ বলে ৭৬ রান করেন বাঁহাতি ক্রিকেটার। তার ইনিংস চার ৮টি, ছক্কা ২টি।

৪৭.১ ওভারে ১৭৩ রানে গুটিয়ে যায় নাজমুল একাদশ। মাহমুদউল্লাহদের হয়ে দুর্দান্ত বোলিং করেছেন তরুণ পেসার সুমন খান। ১০ ওভারে ৩৮ রান খরচায় ৫ উইকেট নিয়েছেন। রুবেল হোসেন ২৭ রানে নিয়েছেন ২ উইকেট।

সারাবাংলা/এসএইচএস

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন