বিজ্ঞাপন

শিক্ষকতায় যোগদানের পর অনুমতি ছাড়া ‘ডিগ্রি’ নয়

October 27, 2020 | 9:28 pm

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক পদে যোগ দেওয়ার পর অনুমতি ছাড়া ডিগ্রি অর্জন করতে পারবে না কেউ। চাকরিতে যোগদানের পর কেউ যদি উচ্চতর ডিগ্রি অর্জন করতে চায় তাহলে অবশ্যই তাকে কর্তৃপক্ষের অনুমতি নিতে হবে।

বিজ্ঞাপন

মঙ্গলবার (২৭ অক্টোবর) প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের উপসচিব নাজমা শেখের সই করা এক বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে এই নির্দেশনা জারি করা হয়েছে।

সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকরা সাধারণত চাকরিতে যোগদানকালে যেসব সার্টিফিকেট জমা দেন বা পরবর্তী সময়ে যেসব ডিগ্রি অর্জন করেন তার সবই সার্ভিসবুকে অন্তর্ভুক্ত করা হয়। তবে এমন অনেক শিক্ষক রয়েছেন যারা পড়াশোনার পাশাপাশি চাকরি করছেন। আবার অনেকে চাকরি করে নিজের পড়াশোনা শেষ করছেন। এখন থেকে এমন সবাইকে কর্তৃপক্ষের অনুমতি নিতে হবে।

বিজ্ঞাপন

গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় চাচ্ছে, এমন ডিগ্রিধারী শিক্ষকদের শিক্ষাগত যোগ্যতার সনদসমূহ যাচাই করে দেখতে। যাচাইয়ের পরই কেবল এসব সার্টিফিকেট সার্ভিসবুকে অন্তর্ভুক্ত করার প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য নির্দেশ দিয়েছে মন্ত্রণালয়। সেইসঙ্গে নতুন করে উচ্চতর শিক্ষাগত যোগ্যতা অর্জনের ক্ষেত্রে কর্তৃপক্ষের অনুমোদন গ্রহণ করতেও বলা হয়েছে।

প্রাথমিকের সহকারী শিক্ষকদের নিয়োগে নারীদের উচ্চ মাধ্যমিক ও পুরুষদের জন্য স্নাতক ডিগ্রি যোগ্যতা নির্ধারণ রয়েছে। ফলে প্রাথমিকের বেশিরভাগ নারী শিক্ষকই চাকরিতে যোগদান করে উচ্চতর পড়াশোনা শেষ করেছেন। অনেকে আবার নৈশ কোর্সে ভর্তি হয়েও ডিগ্রি নিয়েছেন। এসব ডিগ্রি এতদিন সার্ভিস বুকে সংযুক্ত করার প্রয়োজন পড়তো না। তবে নতুন নির্দেশনার পর এটি এখন বাধ্যতামূলকভাবেই সংযুক্ত করতে হবে।

বিজ্ঞাপন

তাছাড়া আগে সার্টিফিকেট সার্ভিসবুকে সংযুক্ত না হওয়ায় অনেক নারী শিক্ষক সরকারি কাগজে-কলমে উচ্চমাধ্যমিক পাস ছিলেন। এ কারণে সম্প্রতি সহকারী শিক্ষকদের জাতীয় বেতন স্কেলের ১৩তম গ্রেডে উন্নীত করা হলেও এই শিক্ষকরা সেই সুবিধা থেকে বঞ্চিত হয়ে আসছিলেন।

মন্ত্রণালয় বলছে, এখন এই সমস্যাটির দ্রুত সমাধান হবে। আর সার্টিফিকেট যাচাই করে সার্ভিসবুকে অন্তর্ভুক্ত করা হলে পদোন্নতির ক্ষেত্রে অনেক ঝামেলা এড়িয়ে যাওয়া সম্ভব হবে। তাছাড়া কে কোথায় থেকে ডিগ্রি আনছে, সেসব ডিগ্রি নিখাদ কি না সেটিও যাচাই করে দেখা যাবে।

বিজ্ঞাপন

উল্লেখ্য, এই নির্দেশনার আগে সহকারী শিক্ষকদের নতুন নিয়োগ বিধি-২০১৯ অনুযায়ী, নারী-পুরুষ নির্বিশেষে সবার শিক্ষাগত যোগ্যতা নির্ধারণ সমান করা হয়েছে। এখন থেকে শিক্ষক হতে হলে কমপক্ষে দ্বিতীয় শ্রেণির স্নাতক ডিগ্রি লাগবে।

সারাবাংলা/টিএস/পিটিএম

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন