বিজ্ঞাপন

আইনজীবীর জিম্মায় দেবাশীষ বিশ্বাসের জামিন

October 28, 2020 | 3:50 pm

স্টাফ করেসপনডেন্ট

ঢাকা: প্রতারণা অভিযোগে দায়ের করা একটি মামলায় চলচ্চিত্র নির্মাতা দেবাশীষ বিশ্বাসকে কারাগারে পাঠানোর সাড়ে তিন ঘণ্টা পরই বাদী আইনজীবীর জিম্মায় আপোসের শর্তে  ১০ হাজার টাকায় মুচলেকায় জামিন মঞ্জুর করেছেন আদালত।

বিজ্ঞাপন

বুধবার (২৮ অক্টোবর) শুনানি শেষে ঢাকার অতিরিক্ত মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ আসাদুজ্জামান নূর এ জামিনের আদেশ দেন।

এদিন সকাল সাড়ে ১১ টার সময় দেবাশীষ আইনজীবী জাহাঙ্গীর হোসেনের মাধ্যমে আত্মসমর্পণ জামিনের আবেদন করেন। প্রথমে তার জামিন না মঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন। সাড়ে তিন ঘন্টা পরে আপস মীমাংসা শর্তে বাদীপক্ষের আইনজীবী খন্দকার মহিবুল হাসান আপেলের জিম্মায় পরবর্তী ধার্য তারিখ পর্যন্ত এ জামিনের আদেশ দেন।

বিজ্ঞাপন

এদিকে দেবাশীষ বিশ্বাসের আইনজীবী জাহাঙ্গীর হোসাইন জানান, আদালত শুনানির শুরুতেই মৌখিকভাবে জামিন নামঞ্জুরের আদেশ করলেও পরবর্তীতে পুনর্বিবেচনায় আপস-মীমাংসার শর্তে বাদীর আইনজীবীর জিম্মায় জামিনের আদেশ দেন।

জানা যায়, ২০১৯ সালের ৩০ জুলাই বাণিজ্যিক শর্তে পিএনটিভি ইউটিউব চ্যানেলের মালিক লিটন সরকার ইমন নামে এক ব্যক্তি দেবাশীষ বিশ্বাসের মা গায়েত্রী বিশ্বাস প্রযোজিত চারটি বাংলা চলচ্চিত্র মায়ের মর্যাদা, শুভ বিবাহ, অপেক্ষা এবং অজান্তে ইউটিউব চ্যানেলে প্রচার করতে ৬০ বছরের জন্য ১ লাখ ৪০ হাজার টাকায় কিনে নেন।

বিজ্ঞাপন

তিনি ছবিগুলো ইউটিউব চ্যানেলে আপলোড করলে ইউটিউব চ্যানেল কর্তৃপক্ষ চ্যানেল বন্ধ করে দেন।

এরপরে তিনি খোঁজ নিয়ে জানতে পারেন, ২০১৭ সালে এ চারটি চলচ্চিত্র ইউটিউব চ্যানেলে আপলোড করার আগেই দেবাশীষ বিশ্বাস অন্য কারো কাছে ব্যক্তির কাছে বিক্রি করেন। যার ফলে ইউটিউব চ্যানেল কর্তৃপক্ষ ছবিগুলো আপলোড করার পর লিটন সরকার ইমনের চ্যানেল বন্ধ করে দেয়।

বিজ্ঞাপন

ওই ঘটনায় ২০১৯ সালের ৮ সেপ্টেম্বর ঢাকার মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে লিটন সরকার ইমন বাদী হয়ে দেবাশীষ বিশ্বাসের নামে প্রতারণার মামলা করেন।

ওই ঘটনায় মিরপুর রূপনগর থানাকে তদন্তের নির্দেশ দেয়। তদন্ত কর্মকর্তা ও রূপনগর থানার পরিদর্শক (অপারেশন) মো. মোকাম্মেল হোসেন তদন্ত করে চার্জশিট দাখিল করেন।

বিজ্ঞাপন

এরপর আদালত প্রতিবেদন আমলে নিয়ে ২০১৯ সালের ৫ ডিসেম্বর আসামিদের আদালতে হাজির হতে সমন জারি করেন। আসামিরা হাজির না হওয়ায় চলতি বছর ২১ অক্টোবর বাদীর আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে আসামিদের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ারা জারি করেন।

সারাবাংলা/এআই/এজেডএস

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন