বিজ্ঞাপন

মাসুদকে চাকরিতে পুনর্বহালের দাবিতে স্মারকলিপি

November 5, 2020 | 5:26 pm

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: জিপিইইউ-এর জেনারেল সেক্রেটারি মিয়া মাসুদকে স্বপদে পুনর্বহালের দাবিতে গ্রামীণফোন এমপ্লয়িজ ইউনিয়নের ভারপ্রাপ্ত সভাপতির নেতৃত্বে সাত সদস্যের একটি দল বিটিআরসি চেয়ারম্যানের কাছে স্মারকলিপি দিয়েছেন।

বিজ্ঞাপন

বৃহস্পতিবার (৫ নভেম্বর) সকাল ১১টার সময় গ্রামীণফোনের প্রায় ২০০ সাধারণ কর্মী বিটিআরসির অফিসের সামনে সমবেত হয়। এরপর সেখানে সাড়ে ১১টা পর্যন্ত মানববন্ধন ও অবস্থান কর্মসূচি পালন করেন। মানববন্ধন চলাকালীন সময়ে জিপিইইউ এর ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ফজলুল হক সাত জন নেতাকে সঙ্গে নিয়ে বিটিআরসির চেয়ারম্যানের সঙ্গে সাক্ষাৎ করে স্মারকলিপি দেন।

মানববন্ধন ও অবস্থান কর্মসূচিতে এসে মিয়া মাসুদকে স্বপদে পুনর্বহালের দাবিতে বিভিন্ন সেক্টরের শ্রমিক সংগঠনের নেতারা সংহতি প্রকাশ করেন। সেখানে উপস্থিত ছিলেন ফার্মাসিউটিক্যালস অ্যাসোসিয়েশনের কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি শফিক রহমানসহ পাঁচ সদস্য বিশিষ্ট একটি টিম, উত্তরা ব্যাংক শ্রমিক কর্মচারী ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক মোতাবেল, মুঠোফোন গ্রাহক অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি মহিউদ্দিন আলমগীর ও ইউনিগ্লোবাল বাংলাদেশের লিয়াজো কমিটির জেনারেল সেক্রেটারি গোলাম মোস্তফা কামাল।

বিজ্ঞাপন

গ্রামীণফোন এমপ্লয়িজ ইউনিয়নের সভাপতি ফজলুল হক বিটিআরসির চেয়ারম্যানের কাছে স্মারকলিপি জমা দিয়ে রিসিভ কপি মানববন্ধনে সবার সামনে পড়ে শোনান এবং সাংবাদিক ভাইদের উপস্থিতিতে তাদের সহযোগিতা কামনা করেন।

একইসাথে আগামী শনিবারের ৭ নভেম্বর সকাল ১০টার সময় জিপিহাউসের সামনে আবারও মানব বন্ধনের ডাক দিয়ে ধারাবাহিকভাবে আন্দোলন চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দেন।

বিজ্ঞাপন

উল্লেখ্য, গত মাসের ২৭ তারিখ গ্রামীণফোন কর্তৃপক্ষ গ্রামীণ ফোন এমপ্লয়িজ ইউনিয়নের ৮ বছর দ্বায়িত্ব পালন করা প্রতিষ্ঠাতা সাধারণ সম্পাদক মিয়া মাসুদকে শ্রম আইনের কালো ২৬ ধারা প্রয়োগ করে চাকুরিচ্যুত করে। এর পর থেকে গ্রামীণফোনের সাধারণ কর্মীরা মিয়া মাসুদকে স্বপদে পুনর্বহালের দাবিতে ধারাবাহিকভাবে আন্দোলন কর্মসূচি চালিয়ে আসছে। তারা ইতোমধ্যে গ্রামীণফোনের হেড অফিসের সামনে একাধিক দিন মানব বন্ধন ও অবস্থান কর্মসূচি পালন করেছে, তারা শ্রম ভবনের সামনে মানব বন্ধন ও অবস্থান কর্মসূচি পালন করারা পাশাপাশি শ্রম অধিদফতরকে স্মারকলিপি দিয়েছে। গত ৩১ অক্টোবর জাতীয় প্রেস ক্লাবে সংবাদ সম্মেলন ও মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করে দেশ বাসির সামনে কেন তাকে চাকুরীচ্যুত করেছে সেইটা তুলে ধরে পাশাপাশি সরকারের সমদৃষ্টি কামনা করে। এরইমধ্যে ইউনিগ্লোবাল ও বিভিন্ন দেশের শ্রমিক সংগঠন ও ফেডারেশন থেকেও সংহতি প্রকাশ করেছে এই অনৈতিক, অমানবিক চাকুরীচ্যুতির প্রতিবাদে এবং স্বপদে মিয়া মাসুদকে পূনর্বহালের দাবি জানিয়েছে।

সারাবাংলা/ইউজে/এমআই

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন