বিজ্ঞাপন

ডকইয়ার্ড সরানোর খসড়া প্রস্তুতি চলছে: নৌপ্রতিমন্ত্রী

November 10, 2020 | 2:58 pm

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: বুড়িগঙ্গা নদীর তীরবর্তী সদরঘাটের বিপরীত পাশে থাকা ডকইয়ার্ডগুলো স্থানান্তরের খসড়া চূড়ান্ত হচ্ছে বলে জানিয়েছেন নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী। একইসঙ্গে বন্ধ নৌপথগুলোতে আধুনিক জলযান নামানো হবে বলেও জানিয়েছেন তিনি। এ ক্ষেত্রে সদরঘাটের ওয়াটারওয়েতে আধুনিক জলযান পরিচালনার জন্য বেসরকারি উদ্যোক্তাদের বিনিয়োগের আহ্বান জানিয়েছেন প্রতিমন্ত্রী।

বিজ্ঞাপন

মঙ্গলবার (১০ নভেম্বর) সদরঘাটে জাহাজযোগে ওয়াটারবাস সার্ভিস পরিচালনা ও যাত্রীসেবা কার্যক্রমে অংশ নিয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এসব কথা বলেন তিনি।

নৌপ্রতিমন্ত্রী বলেন, অচিরেই দেখতে পাবেন— ওয়াটারওয়ে আরও আকর্ষণীয় হবে, নান্দনিক হবে। শুধু তাই নয়, এখন তো মানুষ শুধু জীবিকার জন্য পানিপথ ব্যবহার করছে। ভবিষ্যতে বিনোদনের জন্যও নদীপথ কীভাবে কাজে লাগানো যায়, সেভাবে আমরা পদক্ষেপ গ্রহণ করছি।

বিজ্ঞাপন

সদরঘাটে লঞ্চ দুর্ঘটনা রোধে পদক্ষেপ নেওয়া হচ্ছে জানিয়ে প্রতিমন্ত্রী বলেন, ডকইয়ার্ড সরিয়ে নিতে একটি খসড়া চূড়ান্ত করতে যাচ্ছি। কিছুদিনের মধ্যেই এর অগ্রগতি জানানো হবে।

মন্ত্রী জানান, সদরঘাটে যারা ডিঙিনৌকা চালায়, তাদের সঙ্গে কথা হয়েছে। এখানে অত্যাধুনিক ওয়াটার বাস পরিচালনা করার বিষয়ে সিদ্ধান্ত হচ্ছে। সদরঘাটের যে সুবিধাগুলো, সেগুলো আরও বেশি আধুনিকায়ন করা হবে। আমরা কারও জীবিকায় হাত দিতে চাই না, তবে জীবনকে নিরাপদ করতে চাই।

বিজ্ঞাপন

প্রতিমন্ত্রী বলেন, ওয়াটারওয়েগুলো চালু আছে। হয়তো আমাদের ওয়াটার বাসগুলো চালু নাই। তবে আমাদের বিআইডব্লিউটিএ চিন্তা করছে, আমরা আরও আধুনিক জলযান এখানে নিয়ে এসে মানুষের কাছে আরও আকর্ষণীয় করা যায় কি না।

সারাবাংলা/এসএ/টিআর

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন