বিজ্ঞাপন

নর্দায় কাভার্ড ভ্যানের চাপায় লেগুনার হেলপারের মৃত্যু

November 26, 2020 | 12:28 pm

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: রাজধানীর গুলশান নর্দা এলাকায় কাভার্ড ভ্যানের চাপায় হৃদয় হোসেন (২০) নামে এক তরুণের মৃত্যু হয়েছে। লেগুনায় হেলপার হিসেবে কাজ করতেন তিনি। হৃদয়কে চাপা দেওয়া কাভার্ড ভ্যানটি জব্দ ও এর চালককে আটক করেছে পুলিশ।

বিজ্ঞাপন

বৃহস্পতিবার (২৬ নভেম্বর) ভোর পৌনে ৬টার দিকে এ দুর্ঘটনা ঘটে। গুরুতর আহত অবস্থায় হৃদয়কে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সকাল সাড়ে ১০টার দিকে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

মৃত হৃদয় নারায়ণগঞ্জ বন্দর উপজেলার একরামপুর গ্রামের জামাল হোসেনের ছেলে। দুই ভাই ও চার বোনের মধ্যে হৃদয় পঞ্চম সন্তান। পরিবার নিয়ে মুগদা আড়ৎ বেকারি গলিতে থাকতেন তিনি।

বিজ্ঞাপন

হৃদয়ের বড় ভাই বিল্লাল হোসেন সারাবাংলাকে জানান, হৃদয় লেগুনায় হেলপার হিসেবে কাজ করতেন। ভোরে লেগুনা নিয়ে বসুন্ধরা এলাকায় গিয়েছিলেন পত্রিকা আনতে।

বিল্লাল বলেন, ফেরার পথে নর্দা বাস স্ট্যান্ড এলাকায় লেগুনাটি নষ্ট হয়ে যায়। হৃদয় লেগুনা থেকে নেমে পাশেই দাঁড়িয়েছিল। ওই সময় পেছন দিক থেকে আসা একটি কাভার্ড ভ্যান তাকে চাপা দেয়। এতে সে গুরুতর আহত হয়।

বিজ্ঞাপন

পরে হৃদয়কে লেগুনা চালক ইমরান প্রথমে কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে যান। সেখান থেকে মুগদা হাসপাতাল ও সবশেষে তাকে ঢামেক হাসপাতালে পাঠানো হয়। এখানে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

গুলশান থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মো. মহিবুল্লাহ বলেন, নর্দা বাসস্ট্যান্ডের পাশে কাভার্ড ভ্যানের চাপায় হৃদয় নামে লেগুনার একজন হেলপার নিহত হয়েছেন। এ ঘটনার পরপরই কাভার্ড ভ্যানটি জব্দ ও এর চালককে আটক করা হয়েছে। ময়নাতদন্তের জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজের মর্গে রাখা হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা/এসএসআর/টিআর

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন