বিজ্ঞাপন

‘সমকামিতার প্রস্তাবের’ জবাবে জিম্মি করে টাকা আদায়

November 29, 2020 | 5:21 pm

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট

চট্টগ্রাম ব্যুরো: চট্টগ্রাম নগরীতে এক যুবককে বাসায় ডেকে জিম্মি করে টাকা আদায়ের অভিযোগে এক কিশোরসহ দুজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। পুলিশ জানিয়েছে, ঘটনার শিকার যুবক ও গ্রেফতার তরুণ একই মাদরাসার সাবেক ছাত্র। সমকামিতার প্রস্তাব দিয়ে বারবার বিরক্ত করায় এবং ইসলাম ধর্মীয় দৃষ্টিকোণ থেকে হারাম বিবেচনায় ওই যুবককে জিম্মি করে প্রতিশোধ নেয় গ্রেফতার তরুণ।

বিজ্ঞাপন

শনিবার (২৮ নভেম্বর) রাতে নগরীর কোতোয়ালী থানার স্টেশন রোডের ইলেকট্রিক গলি থেকে তাদের গ্রেফতার করা হয়েছে বলে পুলিশ জানিয়েছে।

গ্রেফতার হওয়া তরুণের নাম রাশেদুল ইসলাম (১৯) এবং আরেকজন ১৬ বছর বয়সী কিশোর। দু’জনই রিয়াজউদ্দিন বাজারে রাশেদুলের বড় ভাইয়ের ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ‘মা বাবার দোয়া শুটকী স্টোরে’ চাকরি করেন বলে জানিয়েছেন কোতোয়ালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ মহসীন।

বিজ্ঞাপন

অভিযোগকারী সায়েম খানের (২২) বাড়ি চট্টগ্রামের হাটহাজারী উপজেলার ধলই ইউনিয়নে।

ওসি মহসীন সারাবাংলাকে জানান, সায়েম শনিবার থানায় এসে অভিযোগ করেন তার পূর্ব পরিচিতি রাশেদুল তাকে বাসায় নিয়ে উলঙ্গ করে ভিডিও ধারণ করে এবং চুল কেটে দেয়। এগুলো ছড়িয়ে দেয়ার কথা বলে বিকাশের মাধ্যমে ১০ হাজার টাকা আদায় করে। অভিযোগ পাবার পর রাতেই অভিযান চালিয়ে দু’জনকে গ্রেফতার করা হয়।

বিজ্ঞাপন

গ্রেফতার দু’জনকে জিজ্ঞাসাবাদে পাওয়া তথ্যের ভিত্তিতে ওসি মহসীন আরও জানান, সায়েশ ও রাশেদুল চট্টগ্রাম কুলগাঁও এলাকার আহসানুল উলুম জামিয়া গাউসিয়া কামিল মাদরাসা থেকে ২০১৫ সালে দাখিল পরীক্ষা দেওয়ার সময় পরিচয় হয়। রাশেদুলের দাবি, সায়েম তাকে বারবার সমকামিতার প্রস্তাব দিয়ে বিরক্ত করত। মোবাইলে বিভিন্ন ধরনের অশ্লীল ম্যাসেজ ও ভিডিও পাঠাতো। এতে ক্ষুব্ধ হয়ে রাশেদুল তাকে শিক্ষা দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেয়।

শুক্রবার রাশেদুল সায়েমকে তার বাসায় ডেকে নেয়। বাসায় যাবার পর রাশেদুল ও কিশোর মিলে সায়েমকে জিম্মি করে উলঙ্গ করে ভিডিও ধারণ করে। পরে সেই ভিডিও ছড়িয়ে দেওয়ার হুমকি দিয়ে বিকাশের মাধ্যমে ১০ হাজার টাকা আদায় করে। তাকে ছেড়ে দেওয়ার সময় পকেট থেকে আরও ১৬০০ টাকা নিয়ে নেয় বলে সায়েমের অভিযোগের ভিত্তিতে জানান ওসি মহসীন।

বিজ্ঞাপন

‘রাশেদুলকে জিজ্ঞেস করেছিলাম, সে এই অপরাধ কেন করেছে ? তখন সে জবাব দিয়েছে- ইসলামের দৃষ্টিতে সমকামিতার বিষয়টি হারাম হলেও সায়েম তাকে বারবার এ প্রস্তাব দিয়ে আসছিল, তাকে শায়েস্তা করার জন্য এই কাজ করেছে। রাশেদুল যা-ই বলুক, সে গুরুতর অপরাধ করেছে। কারণ সায়েম যদি কোনো অপরাধ করে থাকে, রাশেদুল সেটা পুলিশকে জানাতে পারতো। সায়েমকে ডেকে নিয়ে জিম্মি করা এবং ভিডিও ছড়িয়ে দেওয়ার কথা বলে টাকা আদায় করে রাশেদুল গুরুতর অপরাধ করেছে’-বলেন ওসি মহসীন।

এ অভিযোগের বিষয়ে বক্তব্য জানতে সায়েম খানের মোবাইলে কল দেওয়া হলেও সেটি বন্ধ পাওয়া গেছে।

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন