বিজ্ঞাপন

ব্লগার ওয়াশিকুর হত্যা: পুলিশ কর্মকর্তার পুনরায় জেরা

December 1, 2020 | 4:17 pm

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: রাজধানী তেজগাঁও এলাকায় থেকে ব্লগার ওয়াশিকুর রহমান বাবু হত্যা মামলায় জব্দ তালিকার সাক্ষ্য পুলিশের এসআই হাবিবুর রহমানকে পুনরায় জেরা করা হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

মঙ্গলবার (১ ডিসেম্বর) দুপুরে ঢাকার তৃতীয় অতিরিক্ত মহানগর দায়রা জজ মো. রবিউল আলমের আদালতে তাকে আসামিপক্ষের আইনজীবীরা জেরা করে। তার জেরা শেষে আদালত আগামী ১৪ ডিসেম্বর পরবর্তী জেরার তারিখ ধার্য করেন।

মামলার আসামিরা হলেন- জিকরুল্লাহ ওরফে হাসান, আরিফুল ইসলাম ওরফে মুশফিক ওরফে এরফান এবং সাইফুল ইসলাম ওরফে মানসুর। মামলাটিতে মাওলানা জুনায়েদ আহম্মেদ ওরফে তাহের ও সাইফুল ইসলাম ওরফে আকরা পলাতক রয়েছেন।

বিজ্ঞাপন

এর আগে গত ৪ নভেম্বর একই আদালত পুনরায় চার্জগঠনের আদেশ দেন।

এরআগে গত ২৭ অক্টোবর মামলাটি রায় ঘোষণার জন্য ধার্য ছিল। ওইদিন রায় থেকে মামলাটি উত্তোলন করে পুনরায় চার্জ গঠনের আবেদন করে রাষ্ট্রপক্ষ। আদালত আবেদনটি মঞ্জুর করে রায় থেকে উত্তোলন করে মামলাটি পুনরায় বিচারকার্য শুরু আদেশ দেন।

বিজ্ঞাপন

রাজধানীর তেজগাঁওয়ের বেগুনবাড়ীর দিপীকা মোড়ে ২০১৫ সালের ৩০ মার্চ ওয়াশিকুর রহমানকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়। পালানোর সময় দুই হামলাকারীকে আটক করে তৃতীয় লিঙ্গের লোকজন ও এলাকাবাসী।

ওই ঘটনায় ওয়াশিকুর রহমানের ভগ্নিপতি মনির হোসেন মাসুদ বাদী হয়ে তেজগাঁও শিল্পাঞ্চল থানায় একটি মামলাটি দায়ের করেন। ২০১৫ সালের ১ সেপ্টেম্বর আদালতে চার্জশিট দাখিল করেন গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) পরিদর্শক মশিউর রহমান।

বিজ্ঞাপন

২০১৬ সালের ২০ জুলাই আসামিদের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করেন ঢাকার তৃতীয় অতিরিক্ত মহানগর দায়রা জজ। এরপর বিচার শুরু হয়।

উল্লেখ্য, ২০১৫ সালের ৩০ মার্চ সকালে রাজধানীর তেজগাঁওয়ের বেগুনবাড়িতে দিপীকার ঢাল এলাকায় বাসা থেকে বের হয়ে অফিসে যাওয়ার পথে খুন হন ব্লগার ওয়াশিকুর রহমান বাবু। এর পরপরই উপস্থিত জনতার সহায়তায় পুলিশ জিকরুল্লাহ ও আরিফুল ইসলাম নামে দুই মাদরাসাছাত্রকে আটক করে।

বিজ্ঞাপন

ফেসবুক ও ব্লগসহ সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ইসলাম ধর্ম নিয়ে লেখালেখি করায় বাবুকে হত্যা করা হয়েছে বলে জিকরুল্লাহ ও আরিফুল স্বীকার করেছেন। আটকের সময় তাদের কাছ থেকে হত্যায় ব্যবহৃত তিনটি চাপাতি উদ্ধার করা হয়।

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন