বিজ্ঞাপন

মিরপুরে হঠাৎ অনুশীলনে মাশরাফি

December 1, 2020 | 6:39 pm

স্পেশাল করেপন্ডেন্ট

মাশরাফি বিন মুর্তজা সব শেষ বল হাতে নিয়েছিলেন গত মার্চে। জিম্বাবুয়ের বাংলাদেশ সফরে লাল সবুজের হয়ে খেলেছিলেন অধিনায়ক হিসেবে শেষ ওয়ানডে। করোনার অতিমারিতে প্রায় সাত মাস সব ধরণের ক্রিকেট বন্ধ থাকায় জাতীয় দলের সতীর্থদের অনুরুপ তারও কোন ধরণের প্রতিদ্বন্দ্বিতামুলক ক্রিকেটে নামা হয়নি। এর মাঝে নিজে করোনায় ভুগেছেন, ভুগেছে পরিবারের সদস্যরাও। ফলে করোনাকালে বিসিবি আয়োজিত অনুশীলন এমনকি অক্টোবরে প্রেসিডেন্ট’স কাপেও তাকে দেখা যায়নি। অবশেষে নীরবতা ভেঙে হুট করেই বল হাতে অনুশীলনে নেমে বাংলাদেশ ক্রিকেটের সর্বকালের সেরা পেসার ও সফল এই অধিনায়ক।

বিজ্ঞাপন

মঙ্গলবার (০১ ডিসেম্বে) হোম অব ক্রিকেট মিরপুরে এসে আগে হালকা ফিটনেস সেশনে সময় পার করেন মাশরাফি। এরপরই বল হাতে একাডেমি মাঠে নেমে পড়েন।

দীর্ঘ এক মাস ২৪ দিন করোনার সঙ্গে লড়াইয়ের পর শারিরীকভাবে দুর্বল হয়ে পড়েছিলেন মাশরাফি। ফলে জুলাই থেকে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড-বিসিবি’র ব্যবস্থাপনায় শুরু হওয়া একক অনুশীলনেও তিনি ছিলেন অনুপস্তিত। ম্যাচ ফিটনেস ছিল না বিধায় প্রেসিডেন্ট’স কাপে তাকে না খেলানোর যৌক্তিকতা দেখেনি জাতীয় দলের নির্বাচক মন্ডলীর প্রধান মিনহাজুল আবেদীন নান্নু। তবে তিনি বলেছিলেন বঙ্গবন্ধু টি টোয়েন্টিতে মাশরাফি অবশ্যই খেলবেন।

বিজ্ঞাপন

কিন্তু বিধি বাম। ২৪ নভেম্বর ৫ দলের টুর্নামেন্ট শুরুর মাস খানেক আগে খবর এল হ্যামস্ট্রিংয়ের চোটে পড়েছেন ম্যাশ। সেকারণে তাকে টুর্নামেন্টের প্লেয়ার্স ড্রাফটেও রাখা হল না। ১১ নভেম্বর ড্রাফট নিয়ে দেওয়া এক বিবৃতিতে প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদীন বলেছিলেন, চোট সেরে উঠলে যে কোন দল তাকে চাইলে খেলাতে পারবে। এবং একের বেশি কোন দল যদি তাকে চায় সেক্ষেত্রে লটারি করে দেওয়া হবে। আর যদি একটা দলই চায় তাহলে তিনি সরাসরি সেই দলে খেলতে পারবেন।’

অনেক জল্পনা কল্পনার পর অবশেষে ফিটনেস নিয়ে কাজ শুরু করেছেন ম্যাশ, বোলিং ও শুরু করেছেন । দেখাই যাক না কোন দল তাকে টেনে নেয়।

বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা/এমআরএফ/এসএইচএস

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন