বিজ্ঞাপন

ভ্যাকসিন নিয়ে তাড়াহুড়ায় লাভের চেয়ে ক্ষতি বেশি: ডা. জাফরুল্লাহ

December 4, 2020 | 1:56 pm

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: নভেল করোনাভাইরাসের ভ্যাকসিন নিয়ে তাড়াহুড়া করলে লাভের চেয়ে ক্ষতি হবে বেশি— এমনটিই মন্তব্য করেছেন গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী।

বিজ্ঞাপন

শুক্রবার (৪ ডিসেম্বর) সকালে জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে আয়োজিত এক প্রতিবাদ সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ মন্তব্য করেন। ওষুধসহ নিত্যপণ্যের মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদে বাংলাদেশ লেবার পার্টি এ প্রতিবাদ সভা আয়োজন করে।

ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেন, ‘সরকার আজ ব্যবসায়ীদের সরকার। ভ্যাকসিন? ভ্যাকসিন নিয়ে কোনো তাড়াহুড়ার দরকার নাই। কার্যকারিতা প্রমাণিত না হওয়া পর্যন্ত এটা নিয়ে বেশি তাড়াহুড়া করতে যাবেন না। ব্রিটিশ একটি জার্নাল লিখেছে, ভ্যাকসিন নিয়ে তাড়াহুড়া করলে লাভের চেয়ে ক্ষতি হবে বেশি।‘

বিজ্ঞাপন

ভ্যাকসিন নিয়ে তাড়াহুড়া করলে ব্যবসায়ীরাই কেবল লাভবান হবে উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘অনেকেই আপনারা জানেন, যে চুক্তি করেছে সালমানের (সালমান এফ রহমান) মাধ্যমে, বেক্সিমকোর মাধ্যমে, সেটার থেকে দুই ডলার কমে ভ্যাকসিন পাওয়া যেত, যদি সরকারি কোম্পানি ইডিসি’র (এসেনশিয়াল ড্রাগস কোম্পানি) মাধ্যমে আনা হতো।’

ডা. জাফরুল্লাহ বলেন, ‘এটা সরকারের বাবার পয়সা না, জনগণের পয়সা। অপব্যয় করার অধিকার আপনার (প্রধানমন্ত্রী) নেই। আপনাকেও (প্রধানন্ত্রী) তারা (ব্যাবসায়ী-আমলা) বোকা বানাচ্ছে। ন্যায়-নীতির পক্ষে থাকেন। তাহাজ্জুদের নামাজ পড়ে তাদের (ব্যাবসায়ী-আমলা) জন্য দোয়া করেন, আল্লাহ যেন তাদের (ব্যাবসায়ী-আমলা) হেদায়েত  করে।’

বিজ্ঞাপন

রাজধানীতে হঠাৎ সভা-সমাবেশের ওপর বিনিধিনিষেধ আরপের কঠোর সমালোচনা করে তিনি বলেন, ‘পুলিশকে দিয়ে হঠাৎ নোটিশ! সভা-সমাবেশ করতে হলে অনুমতি নিতে হবে! আমি বলতে চাই, পুলিশ সরকারের খাদেম না, জনগণের খাদেম। পুলিশের শত অভাব-অভিযোগ আছে। আজ পুলিশের থাকার জায়গা নাই। তাদের বাইরে গিয়ে থাকতে হয়— বেতনের চেয়ে বেশি ভাড়া দিয়ে। এই অবস্থায় থাকলে ঘুষ খাবে না কী করবে?’

‘আজকে আমার পুলিশ ভাইদের প্রতি অনুরোধ, অন্যায় কথা আপনারা শুনবেন না। যাই কিছু করেন, হকারদের কাছ থেকে পয়সা নেবেন না,’— বলেন জাফরুল্লাহ চৌধুরী।

বিজ্ঞাপন

ভাস্ককর্য নিয়ে অযথা বিতর্ক না করে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা ও দ্রব্যমূল্য ইস্যুতে আলেম-উলামাদের আন্দোলন করার পরামর্শ দিয়ে তিনি বলেন, ‘দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধির সুফল কৃষক পায় না, মধ্যস্বত্বভোগীরা পায়। আজকে আলেমদের বলি— অযথা বিতর্ক না বাড়িয়ে আন্দোলনে আসেন। দ্রব্যমূল বেড়েছে, গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা হচ্ছে না— এগুলো নিয়ে আন্দোলন করেন। সরকারের কিছু পয়সা পেয়ে তাদের কথায় নাচবেন না। তাদের কথায় নাচলে আপনাদেরই ক্ষতি হবে।’

ওষুধের দাম কমানোর দাবি জানিয়ে ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেন, ‘আজকে ওষুধ থেকে শুরু করে চিকিৎসা সেবার  প্রত্যেকটা জিনিসের দাম বেড়েছে। ১৯৮২ সালে যে ওষুধ নীতি করা হয়েছিল, সরকার যদি সেই নীতি মানে, নিয়ম মানে, তাহলে ১৫ দিনের মধ্যে ওষুধের দাম অর্ধেক কমে যাবে।’

বিজ্ঞাপন

বাংলাদেশ লেবার পার্টির চেয়ারম্যান ডা. মোস্তাফিজুর রহমান ইরানের সভাপতিত্বে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা তৈমুর আলম খন্দকার, বিএনপির নির্বাহী সদস্য অপর্ণা রায়, রফিক সিকদারসহ অন্যরা।

সারাবাংলা/এজেড/টিআর

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন