বিজ্ঞাপন

গলা কেটে মৃত ভেবে স্ত্রীকে ফেলে যায় জুয়েল

December 5, 2020 | 7:47 pm

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট

চট্টগ্রাম ব্যুরো: চট্টগ্রাম নগরীর বাকলিয়ায় স্ত্রীকে গলাকেটে হত্যার চেষ্টার অভিযোগে একজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

পুলিশ জানিয়েছে, ঝগড়ার এক পর্যায়ে স্ত্রী লিপা বেগমের (১৯) গলায় ধারালো ছুরি দিয়ে আঘাত করেন স্বামী জুয়েল মিয়া (২৪)। এতে স্ত্রী মাটিতে লুটিয়ে পড়েন। স্ত্রী মারা গেছে ভেবে জুয়েল দ্রুত চলে যান।

শুক্রবার (৪ ডিসেম্বর) এ ঘটনার ২৪ ঘন্টার মধ্যে নগরীর বাকলিয়া থানা পুলিশ জুয়েল মিয়াকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়।

বিজ্ঞাপন

জুয়েল মিয়ার বাড়ি কিশোরগঞ্জের অষ্টগ্রামে। চট্টগ্রাম নগরীর বাকলিয়া থানার বগারবিল শান্তিনগর এলাকায় বসবাস করেন। লিপা বাকলিয়া সৈয়দ শাহ রোডের লাল মিয়ার বড় মেয়ে।

বাকলিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ নেজাম উদ্দিন সারাবাংলাকে জানান, আটমাস আগে জুয়েল মিয়ার সাথে বিয়ে হয় লিপা বেগমের। এরপর থেকেই যৌতুকের জন্য লিপাকে ধারাবাহিকভাবে নির্যাতন করে আসছিলেন জুয়েল। এ নিয়ে একাধিকবার দুই পরিবারের মধ্যে সালিশ বৈঠক হয়।

বিজ্ঞাপন

সবশেষ ৫০ হাজার টাকার জন্য নির্যাতন শুরু করলে গত ২৪ নভেম্বর লিপা বেগম বাবার বাসায় চলে যান। ৪ ডিসেম্বর সকাল সাড়ে ১০টার দিকে জুয়েল মিয়া লিপার বাবা লাল মিয়ার বাসায় এসে লিপা বেগমকে পুনরায় ৫০ হাজার টাকার কথা বলেন।

লিপা টাকা দিতে পারবে না বলার সঙ্গে সঙ্গে জুয়েল তার পকেট থেকে ধারালো ছুরি বের করে লিপা বেগমকে জানে মেরে ফেলবে বলে চিৎকার করে গলায় পোঁচ মারেন। এতে লিপা বেগমের গলা কেটে গুরুতর আহত হন। তিনি মাটিতে লুটিয়ে পড়লে মারা গেছে মনে করে জুয়েল মিয়া ঘটনাস্থল থেকে চলে যায়।

বিজ্ঞাপন

লিপার চিৎকার শোনে প্রতিবেশিরা ৯৯৯ এ ফোন করে। বাকলিয়া থানা পুলিশ দ্রুত ঘটনাস্থল থেকে লিপাকে উদ্ধার করে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে দেন। বর্তমানে তিনি ২০ নম্বর ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন আছেন।

ওসি নেজাম উদ্দিন আরও জানান, লিপার শারীরিক অবস্থা কিছুটা উন্নতির দিকে। তিনি বলেন, এ ঘটনায় লিপার বাবা লাল মিয়া বাদী হয়ে বাকলিয়া থানায় মামলা করেছেন।

বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা/আরডি/এমআই

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন