বিজ্ঞাপন

‘করোনা শনাক্তে অ্যান্টিজেন টেস্টে রেজাল্ট পাওয়া যাবে ৩০ মিনিটে’

December 5, 2020 | 9:08 pm

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: দেশে সম্প্রতিকালে নভেল করোনাভাইরাস (কোভিড-১৯) সংক্রমণ বেড়েছে উল্লেখ করে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী জাহিদ মালেক বলেছেন, এখন রোগী শনাক্ত করা খুব প্রয়োজন। রোগী শনাক্ত করে তাদেরকে চিকিৎসার আওতায় আনতে পারবো।

বিজ্ঞাপন

শনিবার (৫ ডিসেম্বর) দেশের ১০ জেলার করোনার নমুনা পরীক্ষা র‌্যাপিড অ্যান্টিজেন টেস্টের পরীক্ষা কার্যক্রম উদ্বোধনকালে এসব কথা বলেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, ‘মুজিববর্ষে দেশের দশটি জেলায় অ্যান্টিজেন টেস্ট শুরুর মাধ্যমে স্বাস্থ্যখাতের আরেকটি মাইলফলক সৃষ্টি হয়েছে। এই টেস্টের মাধ্যমে মাত্র ১৫-৩০ মিনিটেই রেজাল্ট পাওয়া যাবে, যা যেকোনো জরুরি অপারেশনসহ অন্যান্য অনেক গুরুত্বপূর্ণ সময়ে কাজে লাগবে। এই টেস্টের জন্য কোনো বাড়তি টাকা খরচ করতে হবে না। মাত্র ১০০ টাকাতেই এই টেস্ট করা যাবে।‘

বিজ্ঞাপন

দেশে ১১৮টি পিসিআর ল্যাবে আগে থেকেই কোভিড টেস্ট হয়ে আসছিল উল্লেখ করে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, ‘এখন নতুন করে ১০টি জেলায় অ্যান্টিজেন টেস্ট শুরু হলো। এই টেস্টটি বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা অনুমোদিত। প্রথম অবস্থায় কেবল সেসব স্থানেই এই এন্টিজেন টেস্ট শুরু করা হচ্ছে যেখানে পিসিআর ল্যাব নেই। তবে খুব দ্রুতই এই টেস্টের স্থান ও সংখ্যা বৃদ্ধি করা হবে।‘

সভায় অনলাইন জুমের মাধ্যমে যশোর সরকারি হাসপাতালের অ্যান্টিজেন পরীক্ষার উদ্বোধন করেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী।

বিজ্ঞাপন

উল্লেখ্য, পয়েন্ট অব এন্ট্রি অর্থাৎ সব বিমানবন্দর, স্থলবন্দর, সমুদ্রবন্দরগুলোতে এই অ্যান্টিজেন কীট প্রযোজ্য হবে না। তবে, দেশের সব সরকারি হাসপাতালে, যেসব স্থানে পিসিআর ল্যাব নেই বা সংক্রমণ বেশি হচ্ছে এসব স্থানে এই কিট ব্যবহার করা হবে।

স্বাস্থ্যসেবা বিভাগের সচিব আবদুল মান্নানের সভাপতিত্বে সভায় আরও বক্তব্য দেন- স্বাস্থ্য অধিদফতরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. আবুল বাশার মোহাম্মদ খুরশিদ আলম, অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) নাসিমা আকতারসহ অন্যান্য সংশ্লিষ্ট জেলার হাসপাতাল প্রধান, সিভিল সার্জনরা। সভায় মূল প্রবন্ধ পাঠ করেন স্বাস্থ্য অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (পরিকল্পনা) অধ্যাপক ডা. মীরজাদি সেব্রিনা ফ্লোরা।

বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা/এসবি/এমআই

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন