বিজ্ঞাপন

গ্রিসে ভয়াবহ আগুনে ৭০ বাংলাদেশি ক্ষতিগ্রস্ত

December 31, 2020 | 7:57 pm

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: পশ্চিম গ্রিসের ওলগায় ভয়াবহ আগুনে কমবেশি ৭০ জন প্রবাসী বাংলাদেশি কৃষি শ্রমিকের অস্থায়ী আবাসস্থল সম্পূর্ণরূপে পুড়ে গেছে। প্রবাসী শ্রমিকরা সে সময় কৃষিক্ষেতে কর্মরত থাকায় সৌভাগ্যক্রমে প্রাণে বেঁচে যান। আগুনে তাদের টাকা পয়সা, পাসপোর্ট, পোশাক ও খাদ্যসহ সবকিছু পুড়ে যায়। বাংলাদেশ দূতাবাস ক্ষতিগ্রস্ত প্রবাসীদের পাসপোর্ট উদ্ধারসহ সার্বিক সহায়তা করছে।

বিজ্ঞাপন

গ্রিসে বাংলাদেশ দূতাবাস জানিয়েছে, দেশটিতে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত আসুদ আহমেদের নেতৃত্বে একটি টিম বুধবার (৩০ ডিসেম্বর) পশ্চিম গ্রিসের ওলগা অঞ্চলে অগ্নিকাণ্ডে ক্ষতিগ্রস্ত প্রবাসী বাংলাদেশিদের আবাসস্থল পরিদর্শন করেন।

ঘটনার পরে বাংলাদেশ দূতাবাস স্থানীয় প্রবাসী বাংলাদেশিদের সম্পৃক্ত করে ক্ষতিগ্রস্ত ব্যক্তিদের মধ্যে পোশাক, খাদ্য ও পানি বিতরণ করে। পরিদর্শনকালে প্রবাসী বাংলাদেশীরা এ সংকটকালে তাদেরকে বিনা ফিতে পুনরায় পাসর্পোট দেওয়াসহ অন্যান্য সব সহযোগিতা করার জন্য অনুরোধ জানান। দূতাবাসের আহ্বানে এথেন্সসহ গ্রিসের বিভিন্নস্থানে বসবাসরত প্রবাসী নেতারা এরইমধ্যে ক্ষতিগ্রস্ত প্রবাসীদের পাশে দাঁড়িয়েছেন এবং তাদের সাধ্যমত সাহায্য বিতরণ করছেন।

বিজ্ঞাপন

আগুনের ভয়াবহ তাণ্ডবে পোড়া গ্যাস সিলিন্ডার, খাদ্যদ্রব্য ও অন্যান্য ধ্বংসাবশেষ দেখে ক্ষতিগ্রস্তদের প্রতি দূতাবাসের পক্ষ থেকে সমবেদনা জানানো হয়। এ সময় বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত প্রবাসীদের জন্য অস্থায়ী নতুন বাসস্থানও ঘুরে দেখেন ও স্বল্পসময়ে গ্রিক কর্তৃপক্ষের সঙ্গে সভাকরে এ সমস্যার স্থায়ী সমাধান সম্ভব হবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন এবং তাদের দ্রুত পাসর্পোট প্রাপ্তিসহ আবাসস্থল ও খাবার সরবরাহের বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা করেন।

পরিদর্শনকালে রাষ্ট্রদূতের সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন দূতাবাসের কাউন্সেলর (রাজনৈতিক) মো. খালেদ এবং কাউন্সেলর ও দূতালয় প্রধান সুজন দেবনাথ।

বিজ্ঞাপন

দুর্ঘটনাস্থল পরিদর্শনশেষে বুধবার (৩১ ডিসেম্বর) বিকেলে রাষ্ট্রদূত আসুদ আহমেদ স্থানীয় পিনিয়স, ইলিয়া অঞ্চলের মেয়র মি.আন্ড্রেয়াস মারিনোস এর সঙ্গে দুর্ঘটনা ও এর থেকে স্থায়ীভাবে উত্তরণের উপায় নিয়ে বৈঠক করেন। রাষ্ট্রদূত প্রবাসী বাংলাদেশি কর্মীদের জন্য অস্থায়ী আবাসস্থলের পরিবর্তে পাকা ও স্বাস্থ্যসম্মত বাসস্থানের ব্যবস্থা করার জন্য মেয়রকে অনুরোধ জানান।

মেয়র এরইমধ্যে ক্ষতিগ্রস্তদের সহযোগিতা প্রদানের বিষয়ে রাষ্ট্রদূতকে অবহিত করেন। তারা ক্ষতিগ্রস্ত কর্মীসহ স্থানীয় কৃষিসেক্টরে নিয়োজিত কর্মীদের জন্য ওলগা ও এর নিকটবর্তী গ্রামসমূহে স্থায়ী আবাসস্থল তৈরির বিষয়ে পরীক্ষাপূর্বক দ্রুত বাস্তবায়নের প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের বিষয়ে আলোচনা করেন।

বিজ্ঞাপন

প্রবাসী বাংলাদেশিদের সকল প্রয়োজনে মেয়র আন্তরিকভাবে পাশে থাকবেন বলেও রাষ্ট্রদূতকে আশ্বস্ত করেন। রাষ্ট্রদূত মেয়রকে ক্ষতিগ্রস্ত বাংলাদেশিদের অতিসত্ত্বর নতুন পাসপোর্ট প্রাপ্তির জন্য পুলিশ রিপোর্টসহ অন্যান্য সহযোগিতা দেওয়ার অনুরোধ করেন। পুলিশ প্রশাসন ফায়ার ব্রিগেডের সার্টিফিকেট প্রাপ্তি সাপেক্ষে অতিদ্রুত ক্ষতিগ্রস্ত সকল বাংলাদেশিকে প্রয়োজনীয় সকল সহায়তা প্রদানের আশ্বাস দেন।

এ সময় দূতাবাস এবং গ্রিসে বসবাসরত প্রবাসী বাংলাদেশি নেতৃবৃন্দের সহায়তায় ক্ষতিগ্রস্ত ব্যক্তিদের মধ্যে পোশাক, চাল, ডাল, তেল, লেপ-কম্বল, চুলা, রান্নার সরঞ্জাম ও বিভিন্ন খাদ্যদ্রব্য বিতরণ করা হয়। দূতাবাস টিম ক্ষতিগ্রস্ত খামারের মালিকের সঙ্গেও কথা বলেন এবং প্রবাসীদের নিরাপত্তা নিশ্চিতকরণে তার ভূমিকার কথা জানতে চান।

বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা/জেআইএল/একে

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন