বিজ্ঞাপন

বৃষ্টির পানি অপসারণের দায়িত্ব কখনোই ওয়াসার ছিল না: তাকসিম এ খান

January 4, 2021 | 5:56 pm

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: ১৯৮৮ সালে জারি হওয়া একটি প্রজ্ঞাপনকে ভুল আখ্যা দিয়ে ঢাকা ওয়াসার ব্যবস্থাপনা পরিচালক প্রকৌশলী তাকসিম এ খান বলেছেন, ‘একটি ভুল প্রজ্ঞাপনের মাধ্যমে রাজধানী বৃষ্টির পানি অপসারণেল দায়িত্ব ঢাকা ওয়াসাকে দেওয়া হয়েছে। কিন্তু বৃষ্টির পানি অপসারণের দায়িত্ব কখনোই ঢাকা ওয়াসার ছিল না। দেশের অন্যান্য শহরেও এই দায়িত্ব ওয়াসার কাছে নেই। সংশ্লিষ্ট সিটি করপোরেশনই দায়িত্বটি পালন করছে। এর ব্যক্তিক্রম শুধু ঢাকায়।’

বিজ্ঞাপন

সোমবার (৪ জানুয়ারি) দুপুরে ওয়াসা ভবনে বৃষ্টির পানি নিষ্কাশনের দায়িত্ব ঢাকা ওয়াসা থেকে সিটি করপোরেশনের কাছে হস্তান্তর বিষয়ে গণমাধ্যম কর্মীদের সঙ্গে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।

তাকসিম এ খান জানান, ১৯৮৮ সালের ৬ ডিসেম্বর স্থানীয় সরকার বিভাগের সিনিয়র সহকারী সচিব কাজী আব্দুল মতিনের সই করা এক প্রজ্ঞাপনে বলা হয়েছে, জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদফতর থেকে ঢাকা মহানগরীর বৃষ্টির পানি নিষ্কাশনের দায়িত্ব ঢাকা মিউনিসিপাল করপোরেশনের ওপর ন্যস্ত করার বদলে ঢাকা ওয়াসার ওপর ন্যস্ত করনের সরকারি সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

তাকসিম এ খান বলেন, ‘ওই প্রজ্ঞাপন অনুযায়ী সে বছর থেকে রাজধানীর বৃষ্টির পানির নিরসনের দায়িত্ব ছিল ঢাকা ওয়াসার কিন্তু এই দীর্ঘ ৩২ বছর ওয়াসা সেই দায়িত্ব পালন করেনি বলে অভিযোগ ঢাকার দুই সিটি করপোরেশন ও নগর বিশ্লেষকদের। যে কারণে সামান্য বৃষ্টিতে নগরীতে জলাবদ্ধতা দেখা দেয়। তবে সে ব্যর্থতার দায় ঢাকা ওয়াসা নিতে চাচ্ছে না।’

সংবাদ সম্মেলনে তাকসীম এ খান আরও বলেন, ‘১৯৮৮ সালে একটি প্রজ্ঞাপনের মাধ্যমে জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদফতর থেকে এই দায়িত্ব নিয়ে ঢাকা ওয়াসাকে দেওয়া হয়ে। ওই প্রজ্ঞাপনেই বলা আছে, দায়িত্বটি সিটি করপোরেশনের কাছে দেওয়ার সিদ্ধান্ত ছিল। কিন্তু একটি ভুল প্রজ্ঞাপনের মাধ্যমে এই দায়িত্ব ঢাকা ওয়াসাকে দেওয়া হয়।’

বিজ্ঞাপন

১৯৮৮ থেকে দীর্ঘ ৩২ বছর সময়ে ঢাকার জলাবদ্ধতার দায়িত্ব ছিল ঢাকা ওয়াসার। কিন্তু বর্ষায় সামান্য বৃষ্টিতে পুরো নগরী বৃষ্টিতে ডুবে থাকে। ওয়াসা তার দায়িত্ব পালনে ব্যর্থ হয়ে এখন সে দায়িত্ব সিটি করপোরেশনকে দিতে চায় কি না- গণমাধ্যম কর্মীদের এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘এটা ওয়াসার দায়িত্ব নয়। আমাদের সব টেকনিক্যাল সাপোর্ট আমরা সিটি করপোরেশনকে দিয়ে দেব। আইন অনুযায়ী এই দায়িত্ব সিটি করপোরেশনের। বিষয়টি অনুধাবন করার পর ২০১২ সালে আমরা স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়কে জানাই। তখন মন্ত্রণালয় একটি কমিটি গঠন করে দেয় কিন্তু সেই কমিটির রেজাল্ট আলোর মুখ দেখেনি। পরে ২০১৪ সালে আরও একটি কমিটি গঠন করা হয়। ২০১৬ সালে মেয়র আনিসুল হক আমাদের সঙ্গে একমত হয়ে এই দায়িত্ব তিনি নিতে চেয়েছিলেন।’

সংবাদ সম্মেলনে তাকসিম এ খান দাবি করেন, ঢাকা ওয়াসা দক্ষিণ এশিয়ার মধ্যে সেরা একটি পানি সরবরাহ ও পয়োঃনিষ্কাশন সংস্থা। এই কাজে সংস্থাটি বিশ্বের জন্য রোল মডেল। বিশ্বের বিভিন্ন দেশের পানি সরবরাহ সংস্থা গবেষণার জন্য ঢাকা ওয়াসায় আসছে বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

বিজ্ঞাপন

ওয়াসার মালিকানাধীন খালের পর এবার বৃষ্টির পানিও নিষ্কাশনের দায়িত্ব ঢাকা সিটি করপোরেশনের কাছে হস্তান্তর করতে চায় সংস্থাটি। খাল হস্তান্তরের পর সংস্থাটির কাজ অর্ধেকের চেয়ে কমে গেছে। এ অবস্থায় ঢাকা ওয়াসা সিটি করপোরেশনের আন্ডারে যেতে চায় কি না এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘এটা মন্ত্রণালয়ও বলতে পারবে না।’

সারাবাংলা/এসএইচ/এমআই

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন