বিজ্ঞাপন

ছাড়া পেয়েছেন পরিচালক অনন্য মামুন

January 12, 2021 | 7:59 pm

এন্টারটেইনমেন্ট করেসপনডেন্ট

‘নবাব এলএলবি’ চলচ্চিত্রে পুলিশকে নিয়ে অশালীন সংলাপের অভিযোগে পর্নগ্রাফি আইনে পুলিশের দায়ের করা মামলায় সোমবার (১১ জানুয়ারি) জামিন পেয়েছিলেন পরিচালক অনন্য মামুন। ওই দিনই সন্ধ্যায় তিনি কেরানীগঞ্জের কেন্দ্রীয় কারাগার থেকে ছাড়া পেয়েছেন। মামুনের ঘনিষ্ঠ একটি সূত্র সারাবাংলাকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছে।

বিজ্ঞাপন

মঙ্গলবার (১২ জানুয়ারি) ওই সূত্রটি সারাবাংলাকে বলেন, ‘গতকাল (সোমবার) সন্ধ্যা ৭টার দিকে জেল গেটে মামুনের জামিন আদেশ পৌঁছায়। তখনই আনুষ্ঠানিকতা সেরে মামুন বাইরে আসেন। রাতে তিনি বাসায় ফেরেন।’

জানা গেছে, মামুন আগামী কয়েকদিন বাসায় থেকে বিশ্রাম নেবেন। এরপর থেকে নিয়মিত অফিস করবেন। মামুনের সঙ্গে অভিনেতা শাহীন মৃধাও কারাগার থেকে ছাড়া পেয়েছেন বলে জানিয়েছে সূত্রটি।

বিজ্ঞাপন

আরও পড়ুন-

পুলিশের মামলায় জামিন পেলেন অনন্য মামুন ও শাহীন মৃধা

বিজ্ঞাপন

নবাব এলএলবি’র পরিচালক অনন্য মামুন ও অভিনেতা শাহীন মৃধা কারাগারে

ছাড়া পেয়েছেন পরিচালক অনন্য মামুন

বিজ্ঞাপন

এর আগে সোমবার শুনানি শেষে ঢাকা মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট শাহিনুর রহমান পরিচালক  অনন্য মামুন ও অভিনেতা শাহীন মৃধার জামিনের মঞ্জুর করেন।

অনন্য মামুন ও শাহীন মৃধার পক্ষে জামিন শুনানি করেন সাইদুর রহমান মানিক। রাষ্ট্রপক্ষ থেকে জামিনের বিরোধিতা করা হয়। দুই পক্ষের শুনানি শেষে আদালত জামিনের আদেশ দেন।

বিজ্ঞাপন

সম্প্রতি মুক্তি পাওয়া ‘নবাব এলএলবি’ ছবিতে পুলিশকে ‘বিকৃতভাবে’ উপস্থাপনের অভিযোগে ২৪ ডিসেম্বর দিবাগত রাত আড়াইটার দিকে ছবির পরিচালক অনন্য মামুনকে মিরপুরের বাসা থেকে আটক করে ডিবি। পরে তাকে রমনা থানায় দায়ের করা পর্নগ্রাফি আইনে দায়ের করা মামলায় গ্রেফতার দেখানো হয়।

২৫ ডিসেম্বর দুপুরে তাদের আদালতে হাজির করেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ডিবি পুলিশের পরিদর্শক আবুল কালাম আজাদ। আদালতে তদন্ত কর্মকর্তা রমনা থানায় দায়ের করা মামলার দুই আসামিকে কারাগারে আটক রাখার আবেদন করেন। ঢাকা মহানগর হাকিম মইনুল ইসলাম তাদের কারাগারে আটক রাখার আবেদন মঞ্জুর করেন।

অনন্য মামুন পরিচালিত ‘নবাব এলএলবি’ চলচ্চিত্রটি কিছুদিন আগে মুক্তি পেয়েছে। ওই চলচ্চিত্রের একটি দৃশ্যে ধর্ষণের শিকার এক নারীকে থানায় মামলা দাখিল করার জন্য যেতে দেখা যায়। ওই দৃশ্যে পুলিশের একজন এসআই (অভিনয় করেছেন শাহীন মৃধা) ওই নারীকে ধর্ষণ বিষয়ে বিভিন্ন প্রশ্ন করেন।

চলচ্চিত্রটির ওই দৃশ্য নিয়ে আপত্তি জানায় পুলিশ। পরে রাজধানীর রমনা থানায় পর্নগ্রাফি আইনে অনন্য মামুন ও শাহীন মৃধার বিরুদ্ধে বাদী হয়ে মামলাটি দায়ের করেন ডিএমপি সাইবার ক্রাইম ইউনিটের পুলিশ পরিদর্শক মো. নসিরুল আমিন।

 ‘নবাব এলএলবি’ চলচ্চিত্রটি ‘আই থিয়েটার’ নামক একটি অ্যাপে মুক্তি পায়। ছবিটির প্রধান চরিত্রে অভিনয় করেছেন শাকিব খান, মাহিয়া মাহি, অর্চিতা স্পর্শিয়া ও শহীদুজ্জামান সেলিম। প্রযোজনা করেছে সেলিব্রেটি প্রোডাকশন।

সারাবাংলা/এজেডএস

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন