বিজ্ঞাপন

টি-ভ্যাস নিয়ে ভবিষ্যতে আর সুযোগ নয়: বিটিআরসি চেয়ারম্যান

January 19, 2021 | 3:03 pm

এমদাদুল হক তুহিন, সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: টেলিকম ভ্যালু অ্যাডেড সার্ভিস (টি-ভ্যাস) নিয়ে ভবিষ্যতে অপারেটরদেরকে আর সুযোগ দেওয়া হবে না বলে সাফ জানিয়ে দিয়েছেন বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশনের (বিটিআরসি) চেয়ারম্যান শ্যাম সুন্দর সিকদার। একইসঙ্গে তিনি জানিয়েছেন, গ্রাহক স্বার্থবিরোধী সব সেবা বন্ধ করে দেওয়া হবে।

বিজ্ঞাপন

এর আগে, গ্রাহকের অজান্তে টাকা কেটে নেওয়ার অভিযোগে রবি ও বাংলালিংককে টেলিকম ভ্যালু অ্যাডেড সার্ভিস (টি-ভ্যাস) বন্ধ রাখার নির্দেশ দেয় সংস্থাটি। পরে বিটিআরসি চেয়ারম্যানের সঙ্গে সাক্ষাৎ করে অপারেটর দু’টি। সাক্ষাতের পর অপারেটর দু’টির ভ্যাস সার্ভিস বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত থেকে সরেও আসে বিটিআরসি।

আরও পড়ুন- ‘শ্রীলঙ্কা বাদে এ অঞ্চলে বাংলাদেশেই ইন্টারনেট সবচেয়ে সস্তা’

বিজ্ঞাপন

বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশনের (বিটিআরসি) চেয়ারম্যান শ্যাম সুন্দর সিকদারের সঙ্গে সারাবাংলা ডটনেটের একটি প্রতিনিধি দল সৌজন্য সাক্ষাৎ করতে গিয়ে এ বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি এ বিষয়ে বিটিআরসি’র স্পষ্ট অবস্থান তুলে ধরেন। বলেন, ভবিষ্যতে আর কোনো অপারেটর ভ্যাস সেবা নিয়ে আইন বহির্ভূত কিছু করার সুযোগ পাবে না।

সৌজন্য সাক্ষাতে সারাবাংলা ডটনেটের পক্ষে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব সফটওয়্যার অ্যান্ড ইনফরমেশন সার্ভিসেসের (বেসিস) মোবাইল গেইম অ্যান্ড অ্যাপ ও ভ্যাস সার্ভিস সংক্রান্ত স্ট্যান্ডিং কমিটির চেয়ারম্যান ও সারাবাংলার ব্যবস্থাপনা সম্পাদক রফিক উল্লাহ রোমেল, সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট এমদাদুল হক তুহিন ও সাব্বির আহমেদ এবং সিনিয়র ফটো করেসপন্ডেন্ট হাবিবুর রহমান।

বিজ্ঞাপন

টি-ভ্যাস নিয়ে ভবিষ্যতে আর সুযোগ নয়: বিটিআরসি চেয়ারম্যান

সম্প্রতি বিটিআরসির চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পেয়েছেন শ্যাম সুন্দর সিকদার। এর আগে তিনি সরকারের তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি (আইসিটি) বিভাগের সচিব এবং ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের সচিব হিসাবে দায়িত্ব পালন করেছেন। সারাবাংলা ডটনেটের সঙ্গে আলাপকালে দেশের তথ্যপ্রযুক্তি খাতের বিভিন্ন বিষয় নিয়ে কথা বলেন তিনি। বিটিআরসিকে নিয়ে তার ভবিষ্যৎ লক্ষ্য ও কর্মপরিকল্পনাও তুলে ধরেন। খোলামেলা আলোচনায় তিনি বলেছেন, অপারেটর ও গ্রাহক— উভয়ের স্বার্থ রক্ষা করেই বিদ্যমান সমস্যা সমাধান করে এগিয়ে চলতে চান।

বিজ্ঞাপন

দুই মোবাইল অপারেটরের ভ্যাস সার্ভিস বন্ধ করে আবার সেই সিদ্ধান্ত প্রত্যাহারের বিষয়ে জানতে চাইলে বিটিআরসি চেয়ারম্যান বলেন, ‘ভ্যাস সার্ভিস নিয়ে আমাদের কাছে কিছু অভিযোগ এসেছে। আমরা সেগুলো আমলে নিয়েছি। মোবাইল অপারেটরদের শোকজ করা হয়েছে। সাময়িকভাবে বন্ধ রাখা হয়েছে। আবার তাদের কাছ থেকে লিখিত নিয়ে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে। এই মর্মে ছাড়া হয়েছে যে এই রকম ভুল যদি আবার হয়, তাহলে আমরা খুব সিরিয়াস অ্যাকশনে যাব। আর আমি যোগ দেওয়ার পরে যেহেতু এটি প্রথম উদ্যোগ ছিল, তাই বলেছি— এবারই আপনাদের সুযোগ দেওয়া হলো। কিন্তু ভবিষ্যতে আর কোনো সুযোগ নয়।’

আরও পড়ুন- ‘গুণগত মানসম্মত সেবা দিতে অপারেটরদের সক্ষমতা বাড়াতে হবে’

বিজ্ঞাপন

ট্র্যাডিশনাল ভ্যাস সার্ভিস বন্ধ বা সংস্কারে কোনো উদ্যোগ নেবেন কি না— এমন প্রশ্নের উত্তরে শ্যাম সুন্দর সিকদার বলেন, ‘এগুলো আমরা আপডেট করতে চাই। আমি ব্যক্তিগতভাবে আপডেট করতে চাই। প্রতিবেশী দেশগুলো ভ্যাস সার্ভিসের ক্ষেত্রে ভালো কিছু করে, আমরা সেগুলো নেব না কেন? এক্ষেত্রে অমাদের তাদের অনুকরণ করা উচিত। জনস্বার্থেই এখানে তা প্রচলন করা দরকার।’

গত বছরের ১০ নভেম্বর রবি ও বাংলালিংককে টি-ভ্যাস সেবা বন্ধ রাখতে চিঠি দিয়েছিল বিটিআরসি। ওই চিঠিতেই অনুমতি ছাড়াই গ্রাহকের সেবা চালু করে টাকা কেটে নেওয়ার ব্যাখ্যা চাওয়া হয়। পরে ২০ ডিসেম্বর আরেক চিঠিতে বিটিআরসি অপারেটর দু’টিকে জানায়, টি-ভ্যাস নিয়ে তাদের বিরুদ্ধে তদন্ত চলছে। তদন্ত চলাকালে এ ধরনের সেবা আর দেওয়া যাবে না।

পরে ২২ ডিসেম্বর এই সেবা বন্ধের সিদ্ধান্ত প্রত্যাহারের কথা জানিয়ে বিটিআরসি চেয়ারম্যান জানিয়েছিলেন, রবি ও বাংলালিংক গ্রাহকের অজান্তে টাকা কেটে নেওয়ার এই অপরাধ আর করবে না— এমন লিখিত প্রতিশ্রুতি দেবে জানানোয় ভ্যাস সার্ভিস বন্ধের সিদ্ধান্ত থেকে বিটিআরসি সরে এসেছে।

সারাবাংলা/ইএইচটি/টিআর

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন