বিজ্ঞাপন

সিরাজগঞ্জে মহাসড়কে দীর্ঘ যানজট, ভোগান্তি চরমে

January 20, 2021 | 10:09 am

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট

সিরাজগঞ্জ: ঘন কুয়াশা, সড়ক উন্নয়নের কাজ ও বঙ্গবন্ধু সেতু টোল প্লাজার একটি ওজন স্টেশন বন্ধ থাকায় সিরাজগঞ্জের মহাসড়কে যানজট ভোগান্তি চরমে পৌঁছেছে। এটা আজকাল রুটিনে পরিণত হয়েছে। গত দুদিন হলো বগুড়া-ঢাকা মহাসড়কের বঙ্গবন্ধু সেতু হতে চান্দাইকোনা পর্যন্ত তীব্র যানজট ও মাঝে মাঝে থেমে থেমে গাড়ি চলায় চরম ভোগান্তিতে পড়েছেন যাত্রীরা। সেই সঙ্গে ত্যক্তবিরক্ত চালক-হেলপারসহ পরিবহন সংশ্লিষ্টরাও।

বিজ্ঞাপন

সরেজমিনে বুধবার (২০ জানুয়ারি) সকাল আটটার দিকে মহাসড়ক ঘুরে দেখা যায়, বঙ্গবন্ধু সেতুর বিপরীতমুখী যানবাহনগুলো থেমে থেমে চললেও ঢাকাগামী যানবাহন স্থবির দাঁড়িয়ে রয়েছে। এতে নির্দিষ্ট সময়ের অনেক পরেও পৌঁছানো যাচ্ছে না গন্তব্যে।

সিরাজগঞ্জ থেকে রাজশাহীগামী আনন্দ পরিবহনের চালক সেলিম আহমেদ বলেন, মঙ্গলবার সিরাজগঞ্জ থেকে রাজশাহীগামী একটি বাসও যেতে পারেনি। সিরাজগঞ্জ থেকে যাত্রী নিয়ে বের হয়ে আসলেও নলকা মোড়ে এসে ঢাকা-রাজশাহী মহাসড়কে উঠতে পারেনি। পরে তীব্র যানযট দেখে সবগুলো গাড়িই আবার ফিরে আসে।

বিজ্ঞাপন

এ বিষয়ে হাটিকুমরুল হাইওয়ে থানার উপ-পরিদর্শক মো. রফিক বলেন, ঘন কুয়াশা ও মহাসড়ক চার লেনে উন্নীতকরণ কাজের কারণে গাড়ি স্বাভাবিক গতিতে যেতে পারছেন না। মাঝে মাঝে রাস্তার কাজের মাটিবাহী ট্রাক রাস্তায় উঠতে থামিয়ে দেওয়া হচ্ছে রাস্তার চলন্ত গাড়ি। এছাড়াও রায়গঞ্জ উপজেলার ঘুড়কা বেলতলা এলাকায় একটি ব্রিজে যেকোনো একপাশ দিয়ে গাড়ি চলতে হচ্ছে। একপাশ বন্ধ করে আরেকপাশের গাড়ি ছাড়তে হচ্ছে যার কারণে কিছুটা যানযটের তৈরি হচ্ছে এবং থেমে থেমে গাড়ি চলছে। তবে আমরা মহাসড়ক যানজটমুক্ত রাখতে সর্বোচ্চ চেষ্টা করে যাচ্ছি।

বঙ্গবন্ধু সেতু পশ্চিম থানার উপ-পরিদর্শক মো. মুক্তার হোসেন জানান, ছয়টি টিম সারারাত ধরেই যানজট নিরসনের জন্য নিরলসভাবে কাজ করছে।

বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা/এএম

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন