Sarabangla 4th-anniversary Sarabangla 4th-anniversary
বিজ্ঞাপন

‘বিদেশি ওটিটি’তেও কুরুচিপূর্ণ কনটেন্ট অ্যালাউ করা হবে না’

January 21, 2021 | 3:08 pm

এমদাদুল হক তুহিন, সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: বিনোদনমূলক কনটেন্টের জন্য দেশীয় বায়োস্কোপ, বিঞ্জ বা বিদেশি নেটফ্লিক্স, হইচই, জি-ফাইভের মতো ওভার-দ্য-টপ (ওটিটি) প্ল্যাটফর্মের জনপ্রিয়তা বাড়ছে সবখানেই। এসব প্ল্যাটফর্মের বিরুদ্ধে ‘কুরুচিপূর্ণ’ কনটেন্ট প্রচারের অভিযোগ রয়েছে। বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশনের (বিটিআরসি) চেয়ারম্যান শ্যাম সুন্দর সিকদার জানাচ্ছেন, নেটফ্লিক্সের মতো বিদেশি ওটিটি প্ল্যাটফর্মে প্রচারিত ‘কুরুচিপূর্ণ’ কনটেন্টও বন্ধ করতে উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে। সমাজ ও দেশের তরুণ প্রজন্মকে রক্ষা করতেই এমন কনটেন্ট ‘অ্যালাউ’ করা হবে না বলে জানিয়েছেন তিনি।

বিজ্ঞাপন

বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশনের (বিটিআরসি) চেয়ারম্যান শ্যাম সুন্দর সিকদারের সঙ্গে সারাবাংলা ডটনেটের একটি প্রতিনিধি দল সৌজন্য সাক্ষাৎ করতে গিয়ে ওটিটি প্ল্যাটফর্ম সম্পর্কে জানতে চাইলে তিনি কথা বলেন।

আরও পড়ুন-

বিজ্ঞাপন

‘বিদেশি ওটিটি’তেও কুরুচিপূর্ণ কনটেন্ট অ্যালাউ করা হবে না’

সৌজন্য সাক্ষাতে সারাবাংলা ডটনেটের পক্ষে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব সফটওয়্যার অ্যান্ড ইনফরমেশন সার্ভিসেসের (বেসিস) মোবাইল গেইম অ্যান্ড অ্যাপ ও ভ্যাস সার্ভিস সংক্রান্ত স্ট্যান্ডিং কমিটির চেয়ারম্যান ও সারাবাংলার ব্যবস্থাপনা সম্পাদক রফিক উল্লাহ রোমেল, সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট এমদাদুল হক তুহিন ও সাব্বির আহমেদ এবং সিনিয়র ফটো করেসপন্ডেন্ট হাবিবুর রহমান।

বিজ্ঞাপন

সম্প্রতি বিটিআরসির চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পেয়েছেন শ্যাম সুন্দর সিকদার। এর আগে তিনি সরকারের তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি (আইসিটি) বিভাগের সচিব এবং ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের সচিব হিসাবে দায়িত্ব পালন করেছেন। সারাবাংলা ডটনেটের সঙ্গে আলাপকালে দেশের তথ্যপ্রযুক্তি খাতের বিভিন্ন বিষয় নিয়ে কথা বলেন তিনি। বিটিআরসিকে নিয়ে তার ভবিষ্যৎ লক্ষ্য ও কর্মপরিকল্পনাও তুলে ধরেন। খোলামেলা আলোচনায় তিনি বলেছেন, অপারেটর ও গ্রাহক— উভয়ের স্বার্থ রক্ষা করেই বিদ্যমান সমস্যা সমাধান করে এগিয়ে চলতে চান।

‘বিদেশি ওটিটি’তেও কুরুচিপূর্ণ কনটেন্ট অ্যালাউ করা হবে না’

বিজ্ঞাপন

নেটফ্লিক্স, জি-ফাইভসহ বিদেশি বিভিন্ন ওটিটি প্ল্যাটফর্ম সরকারকে কর না দিয়ে বড় অঙ্কের রাজস্ব নিয়ে যাচ্ছে। এসব প্ল্যাটফর্মকে আইনের আওতায় আনতে বিটিআরসির পক্ষ থেকে কোনো উদ্যোগ নেবেন কি না— সারাবাংলার পক্ষ থেকে জানতে চাওয়া হয় বিটিআরসি চেয়ারম্যানের কাছে।

জবাবে তিনি বলেন, তারা রেভিনিউ নিয়ে যাচ্ছে এবং বাংলাদেশ সরকার রেভিনিউ থেকে বঞ্চিত হচ্ছে— এটি অত্যন্ত সত্য কথা। এটি নিয়ে আমি এনবিআর চেয়ারম্যানের সঙ্গে কথা বলেছি। তারা এরই মধ্যে এটি নিয়ে কাজ শুরু করেছেন। এসব প্ল্যাটফর্ম যেন রাজস্ব ফাঁকি না দিতে পারে, তার জন্য তারা কাজ শুরু করে দিয়েছে। তবে এই কাজটি কতদিনে শেষ হতে পারে, এনবিআর সেই সুনির্দিষ্ট তারিখ আমাদের জানাতে পারেনি।

বিজ্ঞাপন

বিটিআরসি চেয়ারম্যান বলেন, আমি বলেছি, আমাদের এখান থেকে কোনো সাপোর্ট লাগলে আমি দেবো। তারা তো অনিয়ন্ত্রিতভাবে পরিচালিত হচ্ছে। আমি নিজেও চাই, তারা একটি নিয়ন্ত্রণের মধ্যে আসুক। বাংলাদেশ সরকারের যে নিয়ম-নীতি আছে, সেগুলো অনুসরণ করতে হবে। এখান থেকে যদি আয় নিতে হয়, সেটি কর দিয়েই নিতে হবে। কর আদায়ের বিষয়টি কিন্তু বিটিআরসির নয়, সেটি কিন্তু এনবিআর করবে।

‘বিদেশি ওটিটি’তেও কুরুচিপূর্ণ কনটেন্ট অ্যালাউ করা হবে না’

ওটিটি প্ল্যাটফর্মগুলোর বিরুদ্ধে ‘কুরুচিপূর্ণ’ বা ‘অশ্লীল’ কনটেন্ট প্রচারের অভিযোগ রয়েছে। এ ধরনের অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে বিটিআরসি কোনো ব্যবস্থা নেবে কি না— এমন প্রশ্নের জবাবে শ্যাম সুন্দর সিকদার বলেন, আমরা বাংলাদেশে এগুলো অ্যালাউ করব না। আর এলাউ না করার জন্য যে কাজগুলো করা দরকার, অলরেডি আমাদের এখানে সেই কাজগুলো শুরু হয়েছে। আমরা সেই কনটেন্টগুলো বন্ধ করার চেষ্টা করব। আর সমাজকে তো আমাদের বাঁচাতে হবে, আমার প্রজন্মকে বাঁচাতে হবে। সেটি অবশ্যই আমরা করব।

এর আগে, গত ২৪ জুন পাঠানো চিঠিতে গ্রামীণফোনের (জিপি) নেটওয়ার্ক ও প্ল্যাটফর্ম বায়োস্কোপ এবং রবির নেটওয়ার্ক ও প্ল্যাটফর্ম বিঞ্জ ব্যবহার করে ওয়েব সিরিজের নামে সেন্সরবিহীন ‘কুরুচিপূর্ণ’ কনটেন্ট প্রচারের বিষয়ে ব্যাখ্যা চেয়েছিল তথ্য মন্ত্রণালয়। অপারেটর দু’টি এ বিষয়ে ব্যাখ্যাও দেয় মন্ত্রণালয়কে।

পরে ওটিটিতে কনটেন্ট ও বিজ্ঞাপন প্রচারসহ সামগ্রিক বিষয়কে যুগোপযোগী নিয়ম-নীতি ও করের আওতায় আনার লক্ষ্যে নীতিমালা প্রণয়নে গত ২২ ডিসেম্বর পাঁচ সদস্যের একটি কমিটি গঠন করে তথ্য মন্ত্রণালয়। এই মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিবকে (সম্প্রচার) আহ্বায়ক করে গঠিত কমিটির বাকি চার সদস্যের মধ্যে রয়েছেন জাতীয় রাজস্ব বোর্ড, বিটিআরসি ও বাংলাদেশ ব্যাংকের একজন করে প্রতিনিধি এবং একজন আইন বিশেষজ্ঞ।

আরও পড়ুন-

৩ মাসের মধ্যে ওটিটি নীতিমালার খসড়া তৈরির নির্দেশ

‘ওটিটি প্ল্যাটফর্ম নিয়ে বাস্তবভিত্তিক নীতি গ্রহণ করবে সরকার’

তথ্য মন্ত্রণালয়ের ব্যাখ্যা চাওয়া একটু বেশি হয়ে গেছে: ইরেশ যাকের

‘ওটিটি প্ল্যাটফর্ম কিভাবে পরিচালিত হবে তা দেখতে কমিটি করা হয়েছে’

‘ওয়েব সিরিজ নীতিমালা নির্মাতা-অভিনেতাদের কাছ থেকে আসতে হবে’

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম এবং ওটিটি প্লাটফর্ম করের আওতায় আনা হবে’

সারাবাংলা/ইএইচটি/টিআর

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন