বিজ্ঞাপন

হাইকোর্টের সামনে ছুরিকাঘাতে নিহত ব্যক্তির পরিচয় শনাক্ত

January 24, 2021 | 2:06 pm

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট
ঢাকা: হাইকোর্টের সামনে ছুরিকাঘাতে নিহত ব্যক্তির পরিচয় সনাক্ত হয়েছে। রোববার (২৪ জানুয়ারি) সকালে নিহতের ভাই ওয়াহিদুল ইসলাম তার লাশ শনাক্ত করেন।

বিজ্ঞাপন

নিহত ওই ব্যক্তির নাম হামিদুল ইসলাম (৫৭)। তিনি সেগুনবাগিচা হাইস্কুলের পাশে বসতি ময়ুরী নামের একটি অ্যাপার্টমেন্টে থাকতেন। এসব তথ্য নিশ্চিত করে তার ভাই ওয়াহিদুল জানান, ওই এলাকাতেই ডিস লাইনের ব্যবসা করতেন হামিদুল। পাশাপাশি বাংলাদেশ জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল (বাংলাদেশ জাসদ) এর ঢাকা দক্ষিণের সমবায় সম্পাদক ও শাহবাগ থানার সাধারণ সম্পাদক ছিলেন।

শাহবাগ থানার ওসি মামুনুর রশিদ বলেন, ধারণা করা হচ্ছে ছিনতাইকারির ছুরিকাঘাতে নিহত হয়েছেন তিনি। এই ঘটনায় আটক দুইজনকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।

বিজ্ঞাপন

নিহতের ভাই ওয়াহিদুল জানান, তাদের বাড়ি ময়মনসিংহ জেলার ভালুকা উপজেলার গোয়ালকান্দি কলেজ রোডে। তাদের বাবার নাম মৃত রফিকুল ইসলাম। চার ভাইয়ের মধ্যে সবার বড় ছিলেন হামিদুল। মেয়ে নায়না ইসলাম (২৪) ও ছেলে নাহিদুল ইসলাম (২১) ও স্ত্রী নার্গিস আক্তারকে নিয়ে সেগুনবাচিগার বাসায় থাকতেন। নব্বই সালের পর থেকে তিনি সেগুনবাগিচা ও এর আশপাশের এলাকাতে ডিসলাইনের ব্যবসা করতেন হামিদুল।

মৃত হামিদুলের ম্যানেজার সাদেক মিয়া জানান, পুরান ঢাকার সিদ্দিকবাজারের একটি ভবনে তিনটা ফ্ল্যাট রয়েছে তার। সেখানকার ম্যানেজার সাদেক। গতকাল রাতে হামিদুল ফোন দিয়ে বলেন, তিনি হাইকোর্ট মাজার এর সামনে আছে। ফ্ল্যাট ভাড়ার টাকাগুলি তাকে দিয়ে যেতে।

বিজ্ঞাপন

তিনি জানান, ফ্ল্যাট ভাড়ার ১২ হাজার টাকা নিয়ে রাত আটটার দিকে হাইকোর্ট মাজারের সামনে যান। সেখানে জামালের চায়ের দোকানে দুইজন বসে চা পান করেন। পরে ১২ হাজার টাকা হামিদুলের হাতে দেন।

তিনি আরও জানান, রাত দেড়টার দিকে হামিদুলের ছেলে ফোন দিয়ে বলেন, তার বাবা বাসায় ফেরেনি। এরপর খোঁজখবর নিতে থাকেন সাদেকও। পরে তিনি ঢাকা মেডিকেলে এসে তার লাশের খোজ পান।

বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা/এসএসআর/এএম

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন