বিজ্ঞাপন

সাগরিকায় শেকল ভাঙতে চায় উইন্ডিজ

January 24, 2021 | 9:27 pm

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট

চট্টগ্রাম থেকে: ঢাকায় খেলা প্রথম দুই ওয়ানডের কোনটিতেই ব্যাট হাতে ঝলক দেখাতে পারেনি ওয়েস্ট ইন্ডিজ দলের কোন ব্যাটসম্যান। টপ অর্ডার থেকে শুরু করে লোয়ার অর্ডার; কোথাও কেউ দাপুটে হয়ে উঠতে পারেননি, পারেননি টাইগারদের বোলিং লাইন লেংথ ছিন্ন ভিন্ন করে দিতে। ব্যাট হাতে এমন নিস্প্রভ পারফরম্যন্সে দুটি ম্যাচই হয়েছে লোয়ার স্কোরিং। প্রথমটি ১২২ পরেরটি ১৪৮। কেউ যেন তাদের হাতে শেকল পড়িয়ে দিয়েছে। ফলে ৫০ ওভারের ক্রিকেটেও দলীয় ২শ রানের কোঠা পর্যন্ত স্পর্শ করতে পারেনি।

বিজ্ঞাপন

দুই ম্যাচেই জয়ের মামুলি লক্ষ্য সাকিব-তামিমরা হেসে খেলে সংগ্রহ করেছে। ফলে এক ম্যাচ বাকি থকতেই সিরিজ হারের বেদনায় নীল হতে হয়েছে সফরকারী দলটিকে। তবে চট্টগ্রামে এসে ব্যাট হাতে রান শেকল ভাঙতে চায় অতিথিরা। তাদের বিশ্বাস সাগরিকার জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে সিরিজের তৃতীয় ও শেষ ওয়ানডেতে তারা মিরপুর শের-ই-বাংলার চেয়ে বড় সংগ্রহের দেখা পাবেন।

কেন পাবেন? কারণ এখানকার উইকেট ঢাকার চেয়ে তুলনামুলক ঢেঢ় ব্যাটিংবান্ধব। শেষ ওয়ানডে সামনে রেখে রোববার (২৪ জানুয়ারি) সাগরিকায় অনুশীলনের সময়ই তারা তা পড়ে নিয়েছেন। এবং তাদের প্রত্যাশা যদি ব্যাটসম্যানরা নিজেদের উপরে বিশ্বাস রেখে খেলেন তাহলে অবধারিতভাবেই এই ম্যাচের সংগ্রহ ঢাকার দুই ম্যাচকে ছাড়িয়ে যাবে।

বিজ্ঞাপন

এদিন ভার্চুয়াল সংবাদ সম্মেলনে একথা জানান উইন্ডিজদের সহকারি কোচ রডি ইস্টউইক।

তিনি বলেন, ব্যাটিংটা অবশ্যই আমাদের ভাবনার কারণ। আমরা এখনো ৫০ ওভার ব্যাটিং করতে পারিনি। ওয়ানডেতে আপনি যদি ৫০ ওভার ব্যাটিং করতে না পারেন তাহলে চাপে পড়ে যাবেন। প্রথম ম্যাচে আমরা ৩২ ওভার ব্যাটিং করেছি, দ্বিতীয় ম্যাচে ৪৫ ওভার। এতে করে অবশ্যই আমরা যে সংগ্রহ চাইছি তা পাচ্ছি না। নতুন কিছু প্লেয়ারের জন্য পিচ চ্যালেঞ্জিং হয়ে যাচ্ছে। আমরা বড় কোন জুটিও পাইনি। এখানে লুকানোর কিছু নেই যে আমরা ভাল ব্যাটিং করিনি। এবং বাংলাদেশকে চ্যালেঞ্জ জানানোর মত কোন রাও বোর্ডে যোগ করতে পারিনি।'

বিজ্ঞাপন

‘বিকেলে আমরা অনুশীলন করেছি। এখানকার পিচ ঢাকার চেয়ে ভাল মনে হয়েছে। এখানে আমরা বড় সংগ্রহের আশা করছি এবং ভালো ব্যাটিং কন্ডিশন পাবো বলে আমাদের মনে হচ্ছে। এখন বাদ বাকি সবই ব্যাটসম্যানদের উপর নির্ভর করছে। কেননা তারা ওয়েস্ট ইন্ডিজের প্রতিনিধিত্ব করছে। আপনি যখন আপনার দেশের জন্য খেলবেন তখন আপনার গর্ববোধ করা উচিত। এটা যে কারোর জন্যই স্বপ্নের ব্যাপার যে সে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলতে চেয়েছিল, দেশের হয়ে খেলতে চেয়েছিল এবং সে খেলছে। আপনাকে সে সুযোগ দেয়া হয়েছে। আপনার উচিত সে সুযোগ লুফে নিয়ে় ওয়েস্ট ইন্ডিজের জন্য প্রাণপণ লড়ে যাওয়া।’ যোগ করেন উইন্ডিজ সহকারি কোচ।

সোমবার (২৫ জানুয়ারি) ম্যাচটি শুরু হবে বাংলাদেশ সময় সকাল সাড়ে ১১টায়।

বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা/এমআরএফ/এসএইচএস

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন