বিজ্ঞাপন

নকল সনদে চাকরির অভিযোগে প্রভাষক বরখাস্ত

January 25, 2021 | 3:39 pm

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট

ঠাকুরগাঁও: জেলার সদর উপজেলার রুহিয়া ডিগ্রি কলেজের এইচএসসি (বিএম) ব্যবসায় শিক্ষা বিভাগে নিবন্ধনের নকল সার্টিফিকেট দিয়ে চাকরি করার অভিযোগে এক প্রভাষককে বরখাস্ত করেছে কলেজ কর্তৃপক্ষ।

বিজ্ঞাপন

অভিযুক্ত শিক্ষক আতিকুর রহমানের বিরুদ্ধে থানায় মামলা করতে গেলে গত বছর ২৯ সেপ্টেম্বর কলেজ কর্তৃপক্ষকে চিঠি দেয় বেসরকারি শিক্ষক নিবন্ধন ও প্রত্যয়ন কর্তৃপক্ষের (এনটিআরসিএ) সহকারী পরিচালক তাজুল ইসলাম। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কলেজের এক শিক্ষক বলেন, গত কয়েক বছরে তার পিছনে সরকারের ১৭ লাখ টাকা গচ্চা গেছে।

জানা যায়, ২০০৯ সালে অনুষ্ঠিত ৫ম শিক্ষক নিবন্ধন পরীক্ষায় নিজেকে উত্তীর্ণ দেখিয়ে ২০১২ সালের নভেম্বর মাসে সদর উপজেলার রুহিয়া ডিগ্রি কলেজের ব্যবসায় শিক্ষা (বিএম) বিভাগের ইংরেজি প্রভাষক পদে নিয়োগ পান আতিকুর রহমান। পরে তার শিক্ষক নিবন্ধন পরীক্ষার সনদ জাল বলে প্রমাণিত হয়। যার প্রেক্ষিতে এনটিআরসিএ’র সহকারী পরিচালক তাজুল ইসলামের ২০১৮ সালের ২৬ নভেম্বর স্বাক্ষর করা চিঠি কলেজ কর্তৃপক্ষকে দেওয়া হয়।

বিজ্ঞাপন

অভিযুক্ত শিক্ষকের সনদ যাচাই করে ওই চিঠিতে বলা হয়, আতিকুর রহমানের সনদটি সঠিক নয়। তিনি যে রোল নম্বরটি ব্যবহার করেছেন তা অন্য ব্যক্তির। ওই ব্যক্তির নাম মো. মিজানুর রহমান, তার  পিতার নাম মৃত আবুল হাসিম মাস্টার।

এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে কলেজ কর্তৃপক্ষ সাত দিনের মধ্যে ব্যাখ্যা চেয়ে আতিকুর রহমানকে নোটিশ দিলেও তার কোনো সন্তোষজনক জবাব না পাওয়ায় তাকে সাময়িক বরখাস্ত করে কলেজ কমিটি।

বিজ্ঞাপন

এ বিষয়ে অভিযুক্ত শিক্ষক আতিকুর রহমানের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি কথা বলতে রাজি হননি। তবে রুহিয়া ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষ মামুনুর রশিদ জানান, এনটিআরসিএ’র চিঠি পেয়েছি। ব্যক্তির দায় অধ্যক্ষ বা প্রতিষ্ঠান নিবে না।

এ ব্যাপারে রুহিয়া থানার ওসি চিত্তরঞ্জন রায় বলেন, থানায় এ ধরনের কোনো অভিযোগ করা হয়নি, তবে বিষয়টি শুনেছি। অভিযোগ পেলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা/এনএস

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন