বিজ্ঞাপন

‘সমালোচকরা পরাজিত হয়েছে, দেশ এগিয়ে যাচ্ছে’

January 28, 2021 | 6:29 pm

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: বাংলাদেশে করোনা ভ্যাকসিন প্রয়োগ কার্যক্রম উদ্বোধনের মধ্য দিয়ে আবার প্রমাণিত হলো সমালোচকরা পরাজিত হয়েছে। সকল ষড়যন্ত্রকে উপেক্ষা করে করে দেশ উন্নয়নের মহাসড়কে এগিয়ে চলছে। শেখ হাসিনার বলিষ্ঠ নেতৃত্বে দেশ এগিয়ে যাবে। পরাজিত হবেন সমালোচকরা।

বিজ্ঞাপন

বৃহস্পতিবার (২৮ জানুয়ারি) রাষ্ট্রপতির ভাষণের ওপর আনিত ধন্যবাদ প্রস্তাবের আলোচনায় অংশ নিয়ে এসব কথা বলেন মন্ত্রী ও সরকারি-বিরোধীদলের এমপিরা। স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে সংসদ অধিবেশনে শুরু হয় সকাল ১০ টা ৩৫ মিনিটে।

ধন্যবাদ প্রস্তাবের ওপর আলোচনায় অংশ নিয়ে বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি বলেন, ‘পদ্মাসেতুর সময় কোনো কারণ ছাড়াই ষড়যন্ত্র করায় বিশ্বব্যাংকের ফান্ডটাও আমরা পাইনি। তারা ফান্ড প্রত্যাহার করে নিল। তারা তখন বলেছে, আমাদের এখানে দুর্নীতি ও অনিয়ম হয়েছে। এরপরই সাহসের সঙ্গে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সাহসের সঙ্গে বললেন, ঠিক আছে আমরাই আমাদের অর্থে পদ্মাসেতু করব। প্রধানমন্ত্রী ঘুরে দাঁড়ানোর শক্তিতেই এই পদ্মাসেতু। প্রধানমন্ত্রীর সহসিকতার কারণে আমাদের অর্থনৈতিক অবস্থান সুদৃঢ় হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী আমাদের সাহস বাড়িয়ে দিয়েছে। পদ্মাসেতু বাস্তায়ন হলে আমাদের জাতীয় অর্থনীতিতে ১ দশমিক ৫ শতাংশ রাজস্ব যোগ হবে।‘ মন্ত্রী বলেন, ‘যদিও করোনা মহামারির মধ্যে আমাদের অগ্রগতি কিছুটা থমকে গেছে। তারপরেও প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে দেশ এগিয়ে চলছে।’

জাতীয় পার্টির সংসদ সদস্য আবু হোসেন বাবলা বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী বাংলাদেশের আইকন। তিনি বিশ্বের মানচিত্রে বাংলাদেশকে রোল মডেল হিসাবে পরিচিত করেছেন। এত কিছু হওয়ার পরে দুষ্কৃতিকারী এবং দুর্নীতি পরায়ণ ব্যবসায়ীদের কারণে আজ দেশের উন্নয়ন থমকে যেতে পারে না। দেশের ১৭ কোটি মানুষ আপনার সঙ্গে আছে, কি আপনার ভয়? এই দেশকে যেভাবে আপনার পিতা দুর্নীতির বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স পদক্ষেপ নিয়েছিলেন, আপনার সঙ্গে আমরা আছি, আপনিও সেই নীতিতে চলবেন।’

বিজ্ঞাপন

তিনি বলেন, ‘শুধু আমাদের দেশে নয়, সমগ্র বিশ্বে ভাস্কর্যকে শিল্প হিসেবে বিবেচনা করা হয়। আমাদের দেশের ঐতিহ্য ও সংস্কৃতির অংশ এই ভাস্কর্য শিল্প। পৃথিবীর শ্রেষ্ঠ ধর্ম ইসলাম, আমার ধর্মের কোনো উগ্রতা, ধর্মান্ধ আর জঙ্গিবাদের স্থান নেই। অথচ দুঃখের বিষয়, দেশের কতিপয় ধর্মান্ধগোষ্ঠী পৃথিবীর শ্রেষ্ঠ ধর্ম ইসলামের নাম করে দেশের হাজার শিল্প সংস্কৃতির বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়ে বিশ্বের দরবারে আমাদের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন করার অপচেষ্টা করছে। তাই মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসী সকল মানুষের ঐক্যবদ্ধ হয়ে সামাজিক প্রতিরোধ গড়ে তুলতে হবে।’

তিনি বলেন, ‘আমাদের রাষ্ট্রনায়ক শেখ হাসিনার আন্তরিক সহযোগিতায় আমরা নির্বাচনি এলাকায় গত ৭ বছরে প্রায় দেড় হাজার কোটি টাকার উন্নয়ন কাজ হয়েছে। এখনো অনেক কাজ চলমান আছে। কদমতলী এলাকার সারাজীবনের কান্নাখ্যাত জলাবদ্ধতা আজ জাদুঘরে যাওয়ার পথে।’

সৈয়দ আবু হোসেন বাবলা বলেন, ‘গত সাত বছরে জাতীয় পার্টির সংসদ সদস্যরা বিরোধীদলের নেতা রওশন এরশাদ ও উপনেতা জিএম কাদের নেতৃত্বে সরকারের ভেতরে বাইরে সকল শুভ কাজের প্রশংসা যেমন করেছেন ঠিক তেমনি জনস্বার্থবিরোধী কোন কাজ চোখে পড়লে তার গঠনমূলক সমালোচনা ও প্রতিবাদ করেছেন।’

বিজ্ঞাপন

সরকারি দলের সংসদ সদস্য সাবেক আইজিপি নূর মোহাম্মদ বলেন, ‘করোনাভাইরাস মোকাবিলা বাংলাদেশ সফল হয়েছে। ইতোমধ্যে প্রধানমন্ত্রী বহুল প্রত্যাশিত করোনার টিকাদান কর্মসূচি উদ্বোধন করেছেন। সমালোচকরা আবারও পরাজিত হলো।’

সারাবাংলা/এএইচএইচ/পিটিএম

Tags: , ,

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন