বিজ্ঞাপন

সংবাদ সম্মেলনে আসেননি রেজা কিবরিয়া, যুক্ত হননি ড. কামালও

January 30, 2021 | 5:19 pm

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: ড. কামাল হোসেনের নেতৃত্বাধীন গণফোরামের অভ্যন্তরীণ কোন্দাল শেষ হচ্ছে না কিছুতেই। একাধিক উদ্যোগ নিয়েও এই তা নিরসন করতে পারেননি ড. কামাল। বরং এই কোন্দল যে আরও জটিলতার দিকে এগোচ্ছে, তার প্রমাণ মিলল আরেকবার।

বিজ্ঞাপন

শনিবার (৩০ জানুয়ারি) এক সংবাদ সম্মেলনে গণফোরামের নির্বাহী কমিটি ঘোষণার কথা ছিল। সাধারণ সম্পাদক ড. রেজা কিবরিয়ার অংশ ও সাবেক সাধারণ সম্পাদক মোস্তফা মোহসীন মন্টুর নেতৃত্বাধীন অংশের উপস্থিতিতে হওয়ার কথা ছিল সংবাদ সম্মেলন।

তবে শেষ পর্যন্ত সংবাদ সম্মেলনে আসেননি ড. রেজা কিবরিয়া কিংবা তার অনুসারী কেউই। আবার এই সংবাদ সম্মেলনেই ভার্চুয়াল পদ্ধতিতে যুক্ত হয়ে বক্তব্য রাখার কথা ছিল ড. কামালের। তবে তিনিও কোনো বক্তব্য রাখেননি।

বিজ্ঞাপন

পূর্বঘোষিত এই সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন কেবল মোস্তফা মোহসীন ও তার অনুসারীরা। সেখানে গণফোরামের পক্ষ থেকে শীতবস্ত্র বিতারণের ঘোষনা দেন তিনি। তিনি অবশ্য দাবি করেন, দলের মধ্যে মতানৈক্য নেই!

মোস্তফা মোহসীন মন্টু বলেন, ড. কামাল হোসেনের নেতৃত্বে গণফোরামের মধ্যে কোনো মতানৈক্য নেই। সব ত্যাগী নেতাকর্মীদের সঙ্গে নিয়ে তৃণমূল থেকে দলকে সংগঠিত করতে হবে।

বিজ্ঞাপন

দেশব্যাপী চলমান রাজনৈতিক ও প্রশাসনিক সংকট মোকাবিলা এবং কার্যকর গণতন্ত্র ও গণঅধিকার প্রতিষ্ঠায় ঐক্যবদ্ধ হওয়ার জন্য সবার প্রতি আহ্বান জানান মোস্তফা মোহসীন মন্টু। তিনি বলেন, নবজাগরণের মধ্য দিয়ে গণফোরামের পতাকাতলে সবাইকে নিয়ে সংগঠিত হয়ে মাঠ পর্যায়ে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করতে হবে। স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে গণফোরাম দেশব্যাপী বিশেষ কর্মসূচি গ্রহণ করবে বলেও জানান তিনি।

সংবাদ সম্মেলনে অধ্যাপক ড. আবু সাইয়িদ দেশে চলমান লুটপাট ও পরিবারতান্ত্রিক শাসনের বিরুদ্ধে জনগণকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে কর্তৃত্ববাদী দুঃশাসনের অবসান ঘটানোর আহ্বান জানান। তিনি বলেন, এখন ধান ও পেঁয়াজের মৌসুম। কিন্তু সরকার পেঁয়াজ আমদানির আদেশ দিয়েছে। এগুলো কৃষি ও কৃষকের বিরুদ্ধে একটি কৌশলী চক্রান্ত।

বিজ্ঞাপন

অ্যাডভোকেট সুব্রত চৌধুরী বলেন, এই অগণতান্ত্রিক ও অনিশ্চয়তায় ঘেরা রাষ্ট্রের জন্য কি রক্তক্ষয়ী যুদ্ধের মধ্য দিয়ে স্বাধীনতা অর্জন করেছিলাম? আজ স্বাধীনতার সব মূলনীতি ভূলুণ্ঠিত। জনগণ মৌলিক অধিকার থেকে বঞ্চিত। জানমালের কোনো নিশ্চয়তা নেই, মানুষ সুবিচার থেকে বঞ্চিত। তিনি এ দুঃশাসনের বিরুদ্ধে ছাত্র-যুবাসহ দেশের সর্বস্তরের জনগণকে ঐক্যবদ্ধ করে দুর্বার আন্দোলনের আহ্বান জানান।

সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন অ্যাডভোকেট জগলুল হায়দার আফ্রিক, মহিউদ্দিন আব্দুল কাদের, আইয়ুব খান ফারুক, খান সিদ্দিকুর রহমান, লতিফুল বারী হামিম, মুহা. রওশন ইয়াজদানী, জান্নাতুল মাওয়া, যুবনেতা মুহম্মাদ উল্লাহ মধু, ছাত্রনেতা সানজিদ রহমান শুভসহ গণফোরামের কেন্দ্রীয় নেতারা।

বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা/এএইচএইচ/টিআর

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন