বিজ্ঞাপন

দ্বিতীয় চালানে আরও ২০ লাখ ডোজ ভ্যাকসিন দেশে

February 23, 2021 | 2:11 am

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: নভেল করোনাভাইরাস (কোভিড-১৯) সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে সরকারের কেনা তিন কোটি ভ্যাকসিনের মধ্যে আরও ২০ লাখ ডোজের দ্বিতীয় চালান দেশে এসে পৌঁছেছে।

বিজ্ঞাপন

সোমবার (২২ ফেব্রুয়ারি) রাত ১২ টা ২৩ মিনিটে ভারতের মুম্বাই থেকে স্পাইসজেটের একটি বিমানে করে ভ্যাকসিন পৌঁছায় ঢাকার হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে।

সারাবাংলাকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন স্বাস্থ্য অধিদফতরের রোগ নিয়ন্ত্রণ শাখার ডেপুটি প্রোগ্রাম ম্যানেজার ডা. আবু নাঈম।

বিজ্ঞাপন

তিনি বলেন, ২০ লাখ এসেছে ভ্যাকসিন এসেছে। এগুলোর মেয়াদ আছে মধ্য জুন পর্যন্ত। এই ভ্যাকসিন এখান থেকে বেক্সিমকো ফার্মাসিউটিক্যালসের অয়্যারহাউজে যাবে। সেখান থেকে ওষুধ প্রশাসন অধিদফতরের ছাড়পত্র পাওয়ার পরে বিভিন্ন কেন্দ্রে পৌঁছে দেওয়া হবে।

বিমানবন্দর সূত্রে জানা গেছে, এবারের চালানে সর্বমোট ১৬৮ বক্স ভ্যাকসিন এসেছে। এগুলোতে দুই ব্যাচের ভ্যাকসিন আছে। এর মধ্যে, ১৪ লাখ ডোজের এক ব্যাচ ভ্যাকসিনের মেয়াদ ২৯ জুন পর্যন্ত এবং অপর ব্যাচটির মেয়াদ মে মাসের শেষ পর্যন্ত।

বিজ্ঞাপন

এর আগে, ২১ জানুয়ারি ভারত সরকারের উপহার হিসেবে পাঠানো ২০ লাখ ডোজ ভ্যাকসিন দেশে আসে। তার চার দিন পর ২৫ জানুয়ারি আসে সিরামের কাছ থেকে সরকারের কেনা ভ্যাকসিনের প্রথম চালান, যাতে ভ্যাকসিন ছিল ৫০ লাখ ডোজ। চুক্তি অনুযায়ী প্রতি মাসে ৫০ লাখ ডোজ করে ছয় মাসে তিন কোটি ডোজ ভ্যাকসিন বাংলাদেশের পাওয়ার কথা রয়েছে।

প্রসঙ্গত, ২৭ জানুয়ারি কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালে ২৬ জনকে পরীক্ষামূলকভাবে ভ্যাকসিন প্রয়োগ করা হয়। এদিন ভ্যাকসিন কার্যক্রমে নিবন্ধনের জন্য ওয়েব প্ল্যাটফর্ম ‘সুরক্ষা’ চালু করা হয়। ৭ ফেব্রুয়ারি শুরু হয় সারাদেশে ভ্যাকসিন প্রয়োগ কার্যক্রম। এরপর থেকে এখন পর্যন্ত ১৩ দিনে সারাদেশে ভ্যাকসিন নিয়েছেন ২৩ লাখ ৮ হাজার ১৫৭ জন। আর এখন পর্যন্ত ভ্যাকসিন গ্রহণের জন্য নিবন্ধন করেছেন ৩৫ লাখের বেশি মানুষ।

বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা/এসবি/একেএম

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন