বিজ্ঞাপন

যুক্তরাজ্যে ফেরা হচ্ছে না শামীমার

February 26, 2021 | 7:48 pm

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

যুক্তরাজ্য পালিয়ে সিরিয়ায় গিয়ে আন্তর্জাতিক জঙ্গি নেটওয়ার্ক ইসলামিক স্টেটে (আইএস) যোগ দেওয়া শামীমা বেগমকে আর যুক্তরাজ্যে ফিরতে না দেওয়ার সিদ্ধান্ত জানিয়েছে সুপ্রিম কোর্ট। শুক্রবার (২৬ ফেব্রুয়ারি) ওই রায় ঘোষণা করা হয়। খবর বিবিসি।

বিজ্ঞাপন

সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতিদের সর্বসম্মতিক্রমে দেওয়া ওই রায়ে বলা হয়, শামীমাকে যুক্তরাজ্যে ফেরার অনুমতি না দেওয়া তার অধিকারের লঙ্ঘন নয়।

২০১৫ সালের ফেব্রুয়ারিতে মাত্র ১৫ বছর বয়সে আইএসে যোগ দিতে পূর্ব লন্ডনের আরও দুই স্কুলছাত্রীর সঙ্গে সিরিয়া পালিয়ে যান বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত ব্রিটিশ নাগরিক শামীমা। পরে যুক্তরাজ্যের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় তার ব্রিটিশ নাগরিকত্ব বাতিল করে। যার বিরুদ্ধে সর্বশেষ আইনি পদক্ষেপ হিসেবে আপিল আদালতে দেশে ফেরার আবেদন করেছিলেন শামীমা।

বিজ্ঞাপন

২১ বছরের শামীমা এখন উত্তর সিরিয়ায় সশস্ত্র রক্ষীদের নিয়ন্ত্রণাধীন একটি শরণার্থী শিবিরে আছেন। সিরিয়ায় আইএস উৎখাত অভিযানে আশ্রয় হারিয়ে শামীমার ওই শরণার্থী শিবিরে ঠাঁই হয়। ২০১৯ সালে সেখানে প্রথম তার খোঁজ মেলে। শরণার্থী শিবিরেই তার এক সন্তানের অকালমৃত্যু হয়।

তখন থেকেই শামীমা দেশে ফেরার আবেদন জানিয়ে আসছেন। কিন্তু জাতীয় নিরাপত্তার কথা বলে ওই সময়ের যুক্তরাজ্যের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সাজিদ জাভিদ শামীমার দেশে ফেরায় নির্বাহী বিভাগের মাধ্যমে নিষেধাজ্ঞা জারি করে। শামীমার যুক্তরাজ্যে ফেরার পথ চিরতরে বন্ধ করতে তার ব্রিটিশ নাগরিকত্বও কেড়ে নেওয়া হয়।

বিজ্ঞাপন

এরপর শামীমা তার আইনজীবীর মাধ্যমে ব্রিটিশ সরকারের এ সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে আপিল আদালতে যান।

শামীমার আইনজীবীদের যুক্তি ছিল, ব্রিটিশ সরকার 'অবৈধভাবে' তাকে রাষ্ট্রবিহীন নাগরিকে পরিণত করেছে এবং তার জীবনকে ঝুঁকির মুখে ঠেলে দিয়েছে। তাছাড়া, যুক্তরাজ্যে ফিরতে না পারলে শামীমার পক্ষে আইনি লড়াইও ঠিকমত চালানো সম্ভব নয়। কারণ, সিরিয়ার শরণার্থী শিবির থেকে শামীমা তার আইনজীবীদের সঙ্গে কথা বলতে কিংবা ভিডিও কলের মাধ্যমে শুনানিতে অংশ নিতে পারছেন না।

বিজ্ঞাপন

২০২০ সালের জুলাইয়ে আপিল আদালত তাদের রায়ে জানায়, শামীমাকে সুষ্ঠু শুনানি থেকে বঞ্চিত করা হয়েছে, সিরিয়ার ক্যাম্পে থাকা অবস্থায় তার পক্ষে আইনি লড়াই চালানো সম্ভব নয়। এ কারণেই তাকে যুক্তরাজ্যে ফেরার অনুমতি দেওয়া দরকার।

যুক্তরাজ্য সরকার পরে সুপ্রিম কোর্টকে আপিল আদালতের ওই রায় পুনর্বিবেচনা করতে বলে। শুক্রবার তার রায় এলো। সুপ্রিম কোর্টের প্রেসিডেন্ট লর্ড রিড বলেন, সরকারের শামীমা বেগমকে যুক্তরাজ্যে ফিরতে বাধা দেওয়ার পূর্ণ অধিকার আছে।

বিজ্ঞাপন

তিনি বলেন, সুপ্রিম কোর্ট সর্বসম্মতিক্রমে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সব আপিল গ্রহণ করছে এবং শামীমা বেগমের ক্রস-আপিল বাতিল করছে। শামীমার বিষয়ে আপিল আদালত ভুল রায় দিয়েছে এবং স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মামলার বিষয়ে সঠিক পদক্ষেপ গ্রহণ করতে ব্যর্থ হয়েছে বলেও মত দেন লর্ড রিড।

সারাবাংলা/একেএম

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন