বিজ্ঞাপন

আধুনিক সৈয়দপুর গড়ার লক্ষ্যে নৌকাকে বিজয়ী করুন: নানক

February 26, 2021 | 11:03 pm

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: আসন্ন পৌরসভা নির্বাচনে উন্নয়নে পিছিয়ে থাকা সৈয়দপুরকে আধুনিক সৈয়দপুরে রূপান্তরিত করার লক্ষ্যে নৌকার প্রার্থীকে জয়যুক্ত করার আহ্বান জানিয়েছেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য অ্যাডভোকেট জাহাঙ্গীর কবির নানক।

বিজ্ঞাপন

শুক্রবার (২৬ ফেব্রুয়ারি) সৈয়দপুর পৌরসভা নির্বাচনে আগামী ২৮ নৌকা মার্কার প্রার্থীর পক্ষে বিভিন্ন নির্বাচনি পথসভায় অংশ নিয়ে তিনি এ কথা বলেন। সৈয়দপুরের তামান্না মোড়ে নির্বাচনি পথসভায় তিনি একথা বলেন। তার আগে দুপুরে শহরের অফিসার্স ক্লাব প্রাঙ্গণে নৌকা মার্কার সমর্থনে উর্দুভাষী ক্যাম্পবাসীদের নিয়ে আয়োজিত পথসভায় প্রধান অতিথি হিসেবে অংশ নেন।

জাহাঙ্গীর কবির নানক সৈয়দপুরে নৌকার প্রার্থীর পক্ষে বিভিন্ন পথসভায় অংশ পৌরসভার উন্নয়নে নৌকায় ভোট দেয়ার আহ্বান জানান। সৈয়দপুরে পৌরসভা নির্বাচনে নৌকার প্রার্থী হলেন রাফিকা জাহান আকতার বেবী।

বিজ্ঞাপন

সৈয়দপুরবাসীকে নৌকার প্রার্থীকে বিজয়ী করার আহ্বান জানিয়ে নানক বলেন, ‘এ নির্বাচনের মধ্যে দিয়ে সরকারের পতন হবে না। সরকারের মেয়াদ আরও ৫ বছর বৃদ্ধি পাবে না। কিন্তু এই নির্বাচন সৈয়দপুর পৌরবাসীর জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।কারণ এই সৈয়দপুরে দীর্ঘদিন যাবৎ আওয়ামী লীগের কোনো মেয়র প্রার্থী জয়লাভ করেনি।’

সৈয়দপুরের উন্নয়নে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সরকারের বিভিন্ন উন্নয়ন পদক্ষেপ ও আগ্রহের বিভিন্ন কথা তুলে ধরেন তিনি। নানক বলেন, ‘এই সৈয়দপুরকে ঢেলে সাজাতে চান আমাদের নেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি এই সৈয়দপুরকে আধুনিক সৈয়দপুরে রূপান্তরিত করার জন্য বিমানবন্দরকে আন্তর্জাতিক মানের বিমানবন্দরে পরিণত করতে চান। আমাদের নেত্রী এই সৈয়দপুরকে এই অঞ্চলের সিঙ্গাপুর বানাতে চান। কারণ এই সৈয়দপুর হল আটটি জেলার প্রবেশদ্বার। এই আটটি জেলার মানুষেরা সৈয়দপুর হয়ে যাতায়াত করে।’

বিজ্ঞাপন

বিগত সময়ে সৈয়দপুর পৌরসভার বিভিন্ন দুর্ভোগ দুরাবস্থার কথা তুলে ধরেন এবং ২৮ তারিখের ভোটে নৌকার প্রার্থীকে জয়যুক্ত করার আহ্বান জানান।

সৈয়দপুরের উর্দুভাষীদের উদ্দেশ্যে নানক বলেন, ‘আমি ঢাকার মোহাম্মদপুরে এমপি ছিলাম, আমাকে শেখ হাসিনা নির্দেশ দিয়েছিলেন মোহাম্মদপুরের জেনেভা ক্যাম্পসহ উর্দুভাষী ক্যাম্পগুলোর জীবনমান উন্নয়ন করতে হবে। আমি শেখ হাসিনার নির্দেশ পেয়ে সমস্ত ক্যাম্পগুলোর জীবনমান উন্নয়ন করেছিলাম। তাই সৈয়দপুরে এ অবস্থা চলতে পারে না। শেখ হাসিনা এ অবস্থা থাকতে দিতে চায় না। শেখ হাসিনা হচ্ছেন মানবতার নেত্রী। মিয়ানমারের বাস্তুচ্যুত রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দিয়েছেন। নির্যাতিত রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দিয়ে মাথা গোঁজার ঠাঁই দিয়েছেন। ভাসানচরে ঘরবাড়ি তৈরি করে দিয়ে বসবাস করার ব্যবস্থা করেছেন।’

বিজ্ঞাপন

সৈয়দপুরবাসীকে আগামী ২৮ তারখি সঠিক সিদ্ধান্ত নেওয়ার আহ্বান জানিয়ে নানক বলেন, ‘আপনাদের ভোট একটি মূল্যবান সম্পদ। এই ভোট সঠিক জায়গায় দিতে হবে। কোনো প্রলোভনে কোন কারণে যদি ভুল করেন, তাহলে সৈয়দপুর যে তিমিরে পড়ে আছে, সেই তিমিরেই পড়ে রবে।’

নৌকার মেয়র প্রার্থী রাফিকা জাহান আকতার বেবী কথা তুলে ধরেন এবং বেবী আপা মেয়র হলে পরে যে দাবি নিয়ে আমাদের নেত্রী মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে যাবেন, তিনি সেই দাবি মেনে নিয়ে তা বাস্তবায়িত করবেন বলে আশা প্রকাশ করেন তিনি।

বিজ্ঞাপন

তাই শেখ হাসিনার মনোনীত নৌকার প্রার্থীকে ভোট দেওয়ার জন্য উপস্থিত জনতাকে হাত তুলে ওয়াদা করার আহ্বান। তিনি বলেন, ‘আগামী ২৮ তারিখ নির্বাচনে ভোট দিবেন। আপনারা হাত তুলে দেখিয়েছেন। আমি আজকে ঢাকা যাব। আমি কি আমার নেত্রী শেখ হাসিনাকে গিয়ে বলতে পারি, আপনার নৌকায় সৈয়দপুরবাসী ভোট দেবে।’

কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এসএম কামাল হোসেন বলেন, ‘বিএনপির সন্ত্রাসীরা যাতে আজ রাত থেকে পাড়ায় পাড়ায় ঢুকতে না পারে, তার জন্য সবাইকে সতর্ক থাকতে হবে। আমি দায়-দায়িত্ব নিয়ে বলছি, বিএনপির সন্ত্রাসীরা সৈয়দপুরে থাকতে পারবে না। সাধারণ ভোটাররা সৈয়দপুরে থাকবে। কিন্তু বিএনপির সন্ত্রাসীদের সঙ্গে কোনো আপস চলবে না। আজ থেকে সৈয়দপুর সন্ত্রাসমুক্ত সৈয়দপুর। সে যে দলেরই হোক, এটাই আমাদের শপথ নিতে হবে।’

সৈয়দপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মোখছেদুল মোমিনের সভাপতিত্বে নির্বাচনি সভায় উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ মহিলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মাহমুদা বেগম কৃক, রংপুর মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক তুষার মণ্ডল, নীলফামারী জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও পৌর মেয়র দেওয়ান কামাল আহমেদ, সাধারণ সম্পাদক ও জেলা আইনজীবী সভাপতি মমতাজুল হক, উপজেলা সাধারণ সম্পাদক মহসিনুল হক মহসিন, উপজেলা পরিষদের মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান সানজিদা বেগম লাকীসহ স্থানীয় নেতারা।

সারাবাংলা/এনআর/একে

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন