বিজ্ঞাপন

আত্মতুষ্টিতে ভুগছেন না নাসুম

March 29, 2021 | 3:01 pm

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট

অভিষেক ম্যাচে তার বোলিং নৈপুল্য নিয়ে দেশ জুড়ে হৈ চৈ। নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজের প্রথম টি-টোয়েন্টিতে যে দক্ষতায় তিনি বলে ঘূর্ণি নাচ চালিয়েছেন, তাতে অনেকেই তাকে বাংলাদেশ দলের ভবিষ্যতের কান্ডারি বলেও অভিহিত করেছেন। কিন্তু মজার ব্যাপার হলো, হ্যামিল্টনে সেদিনের বোলিং নিয়ে খুব একটা তুষ্ট তিনি নন এবং বাড়তি উচ্ছ্বাস ও নেই। বরং তার বার বারই মনে হচ্ছে- আরেকটু ভালো বোলিং ওই ম্যাচে করা যেত। বলছিলাম নাসুম আহমেদের কথা।

বিজ্ঞাপন

বলার অপেক্ষাই রাখে না, নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে সেদিন রীতিমতো চমকেই দিয়েছিলেন বাঁহাতি এই তরুণ টাইগার স্পিনার। নিজের প্রথম আন্তর্জাতিক ম্যাচের প্রথম ওভারেই ফিন অ্যালিয়েনকে শূন্য তাতে ফিরিয়ে টাইগার শিবিরে এনে দিয়েছিলেন দারুণ কিছুর পূর্বাভাস। চমকের শেষ এখানেই নয়। তার স্পিন বিষে নীল হয়ে ক্রিজ ছাড়া হয়েছিলেন বিধ্বংসী মার্টিন গাপটিলও (৩৫)। কাজেই বাহবা তিনি পেতেই পারেন। কিন্তু তিনি মনে করছেন, বোলিং আক্রমণটা আরও ধারাল হতে পারত। বিশেষ করে রানের হিসেবে আরেকটু হিসেবি হলে ভালো হত।

সোমবার (২৯ মার্চ) নিউজিল্যান্ড থেকে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) পাঠান ভিডিও বার্তায় তিনি একথা জানান।

বিজ্ঞাপন

নাসুম বলেন, ‘অভিষেক ম্যাচে আসলে বোলিংটা যেরকম শুরু করার কথা ওরকম হয়নি। তারপরও আলহামদুলিল্লাহ। ভালোই লাগছে। আরেকটু ভালো হতে পারত, আমার কাছে মনে হয়। আমি যদি আরও ১০টা রান কম দিতাম হয়তো আরেকটু ভালো হত। সফল আমি মনে করছি না। ৪ ওভারে ৩০ রান দিয়েছি। এখানে ৪ ওভারে যদি ২২ বা ২৫ রান হতো তাহলে মনে করতাম সফল। আসলে আমি খুশি না।’

ডেভন কনওয়ে ও উইল ইয়াং টর্নেডো ব্যাটে সেদিন বাংলাদেশের বিপক্ষে রানে পাহাড় গড়েছে নিউজিল্যান্ড। টাইগার বোলারদের বোলিং লাইনআপ চুরমার করে দিয়ে ৫২ বলে অপরাজিত ৯২ রানের ইনিংস খেলেছেন কনওয়ে। আর ইয়াং ৩০ বল থেকে সংগ্রহ করেছেন ৫৩ রান। তাতে ২০ ওভারে মাত্র ৩ উইকেটের খরচায় স্কোর বোর্ডে ২১০ রান যোগ করে টিম সাউদির দল।

বিজ্ঞাপন

বাংলাদেশের হয়ে সেদিন বল করেছিলেন পাঁচ বোলার। এর মধ্যে সবচেয়ে সফল ছিলেন ওই অভিষিক্ত নাসুমই। ৪ ওভারে মাত্র ৩০ রানের বিনিমিয়ে তুলে নিয়েছেন ২ কিউই টপ অর্ডারকে। ওভার প্রতি তার রান গড় ৭.৫০।

বাংলাদেশ ও নিউজিল্যান্ডের মধ্যকার চলমান সিরিজটি বাংলাদেশের দর্শকদের জন্য সরাসরি সম্প্রচার করছে জিটিভি এবং দেশের বহুল পরিচিত অনলাইন প্ল্যাটফর্ম র‍্যাবিটহোল। ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি সিরিজের সবগুলো ম্যাচ র‍্যাবিটহোলের ওয়েবসাইটের সঙ্গে সঙ্গে দেখা যাচ্ছে ইউটিউবেও। র‍্যাবিটহোলের ওয়েবসাইট www.rabbitholebd.com এবং ইউটিউব চ্যানেলেও প্রত্যেকটি ম্যাচ দেখা যাচ্ছে বিনামূল্যেই।

বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা/এমআরএফ/এসএস

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন