বিজ্ঞাপন

বাজারে ‘কম দামে’ মিলছে খেজুর!

April 10, 2021 | 6:28 pm

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: রমজানের আগে বাজারে খেজুরের দাম কমেছে। বিক্রেতাদের দাবি, এ বছর কম দামে খেজুর পাওয়া যাচ্ছে। তাদের ভাষ্য, গত বছরের চেয়ে কোনো কোনো খেজুরের দাম কেজিতে কমেছে অন্তত ১০০ টাকা। আবার কোনো খেজুরের কেজিপ্রতি দাম এর চেয়েও বেশি কমেছে। বর্তমানে বাজারে ২০০ টাকা থেকে শুরু করে এক হাজার টাকা কেজিতে বিভিন্ন ধরনের খেজুর মিলছে। তবে ক্রেতারা বলছেন, খেজুরের দাম আরও কম হওয়া উচিত ছিল।

বিজ্ঞাপন

শনিবার (১০ এপ্রিল) রাজধানীর কাওরানবাজার, ফার্মগেট ও সেগুনবাগিচায় ক্রেতা বিক্রেতাদের সঙ্গে কথা বলে এমন তথ্য জানা গেছে।

কাওরানবাজারের বিক্রমপুর ফল বিতানে, আজোয়া ৬০০ থেকে ৮০০ টাকা- আবার প্রকারভেদে ১০০০ হাজার টাকা, মরিয়ম খেজুর ৬০০ থেকে ৭০০ টাকা, মাবরুর খেজুর ৮০০ থেকে ১০০০ টাকা, মেরজুন খেজুর ১০০০ টাকা, মামরুন খেজুর ৪৫০ টাকা, কালমী ৫০০ টাকা, লুলু বরই ২২০ থেকে ২৬০ টাকা কেজিতে বিক্রি হতে দেখা গেছে৷

বিজ্ঞাপন

বাজারে ‘কম দামে’ মিলছে খেজুর!

এই দোকানের বিক্রয়কর্মী মোহাম্মদ সারাবাংলাকে বলেন, ‘এ বছর খেজুরের দাম কম। গত বছরের চেয়ে সব খেজুরের দামই এখন কম।’ এর ব্যাখ্যা জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘এ বছর খেজুর এসেছে। আমদানি ঠিক ছিল। গত বছর আমদানি করা যায়নি। তাই দাম বেশি ছিল।’

বিজ্ঞাপন

এই বিক্রেতা আরও বলেন, ‘মরিয়ম খেজুর গত বছর যেটা ৭০০ টাকা ছিল, এখন এটা ৬০০ টাকা। আজোয়া খেজুর ১ নম্বর গত বছর ১২০০ টাকা ছিল। এবার আজোয়ার নরমালটা ৭০০ টাকা ও সবচেয়ে ভালোটা ৮০০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। মাবরুর খেজুর গত বছর ছিল ১০০০ টাকা, এখন তা ৮০০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। দাবাস খেজুর ২৪০ টাকা ছিল, এ বছর ২২০ টাকা। গত বছর জাহিদী খেজুর ছিল ১২০ থেকে ১৪০ টাকা, এ বছর ১০০ টাকা কেজি। এ রকম মোটামুটি সব খেজুরের দামই কমেছে।’

কাওরান বাজারে খেজুর কিনতে আসা উম্মে সুইটি সারাবাংলাকে বলেন, ‘খেজুরের দাম কিছুটা কমই মনে হচ্ছে। দাম যেন আর না বাড়ে সেটাই প্রত্যাশা।’ কাশেম নামের আরেক ক্রেতা বলেন, ‘বড়ই খেজুর গত বছর ২০০ টাকা কেজিতেও কেনা গেছে। এখানে ২৬০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। দাম বাড়তি মনে হচ্ছে।’

বিজ্ঞাপন

বাজারে ‘কম দামে’ মিলছে খেজুর!

ফার্মগেটে কথা হয় খেজুর বিক্রেতা হাকিম আলীর সঙ্গে। সারাবাংলাকে তিনি বলেন, ‘আজোয়া খেজুর ৬০০ থেকে ৮০০ টাকা কেজিতে কেনা যাচ্ছে। গত বছর দাম আরও অনেক বেশি ছিল। এ বছর সব খেজুরের দামই কম।’ সেগুনবাগিচার এক বিক্রেতাও একইরকম কথা বলেন। তবে ক্রেতাদের অনেকেই বলছেন, খেজুরের দাম আরও কম হওয়া উচিত ছিল।

বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা/ইএইচটি/পিটিএম

বিজ্ঞাপন

Tags: , ,

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন