বিজ্ঞাপন

হিট শকে বোরো আবাদে ৩২৮ কোটি টাকার ক্ষতি

April 12, 2021 | 11:05 pm

এমদাদুল হক তুহিন, সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: সারাদেশের ওপর দিয়ে বয়ে যাওয়া ঝড়ো হাওয়া, গরম বাতাস ও শিলা বৃষ্টিতে বিভিন্ন ফসলের ৩৩৪ কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। এর মধ্যে কেবল হিট শকে (ঝড়ো হওয়া, গরম বাতাস ও শিলা বৃষ্টি) দেশের ৩৬ জেলায় বোরো আবাদে ক্ষতি হয়েছে ৩২৮ কোটি টাকার। প্রাকৃতিক এসব দুর্যোগে সম্পূর্ণ ক্ষতিগ্রস্ত ১০ হাজার ৩০১ হেক্টর জমির ফসলের মধ্য বোরো ধানের আবাদই ছিল ১০ হাজার  ২৯৮ হেক্টর জমিতে। আর সব মিলিয়ে বোরো ধান আক্রান্ত হয়েছে মোট ৬৮ হাজার ১২৩ হেক্টর জমিতে।

বিজ্ঞাপন

কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতর সূত্র জানিয়েছে, গত ৪ এপ্রিল সন্ধ্যায় দেশের বিভিন্ন অঞ্চলের ওপর দিয়ে গরম বাতাস বয়ে গেছে। এই বাতাসের কারণেই সবচেয়ে বেশি ক্ষতি হয়েছে ধানের। অনেক অঞ্চলের ধান গাছ ফ্লাওয়ারিং স্টেজ বা মিল্কিং স্টেজে (ধানে চাল গঠনের পর্যায়ে) থাকায় গরম বাতাসে এগুলো নষ্ট হয়ে গেছে। এসব ধান গাছ থেকে আর চাল পাওয়া যাবে না।

কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতরের তথ্য বলছে, ৩৬ জেলার ওপর দিয়ে বয়ে যাওয়া এই হিট শকে ২১ হাজার ২৯২ হেক্টর জমির ধান নষ্ট হয়েছে। আক্রান্ত হয়েছে ৬৮ হাজার ১২৩ হেক্টর জমি। এর মধ্যে সম্পূর্ণ ক্ষতিগ্রস্ত জমির পরিমাণ ১০ হাজার ২৯৮ হেক্টর, আংশিক ক্ষতিগ্রস্ত ফসলি জমির পরিমাণ ৫৭ হাজার ৮২৬ হেক্টর। এতে ধানের ক্ষতি হয়েছে প্রায় ১ লাখ টন। ৩ লাখ ৩৬ হাজার কৃষকের ৩২৮ কোটি টাকার বোরো ধান ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

হিট শকের কারণে ধান ছাড়াও ভুট্টা, বিভিন্ন সবজি, চীনাবাদাম, সূর্যমুখী ও কলার ফলনও নষ্ট হয়েছে। সব মিলিয়ে টাকার অঙ্কে মোট ক্ষতির পরিমাণ দাঁড়িয়েছে ৩৩৪ কোটি টাকার বেশি। এতে করে মোট ৯৯ হাজার ৯৬৮ টন ফসল উৎপাদন কম হবে, যার মধ্যে বোরো ধানেরই উৎপাদন কম হবে ৯৫ হাজার ৯৩৪ টন।

কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতরের তথ্য বলছে, আক্রান্ত জেলাগুলোতে ক্ষতিগ্রস্ত কৃষকের পরিমাণ তিন লাখ ১০ হাজার। এর মধ্যে বোরো চাষি রয়েছেন ৩ লাখ ৩৬ হাজার জন। এর বাইরে ৩ হাজার ৪২৫ জন রয়েছেন ভুট্টাচাষী, ৩৭০ জন সবজি চাষি, ১৮০ জন চীনাবাদাম চাষি, ১৫০ জন সূর্যমুখী চাষি এবং ২ হাজার ২৫৫ জন রয়েছেন কলার বাগানের মালিক। কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতরের কর্মকর্তারা বলছেন, বোরো আবাদের পর সবচেয়ে বেশি ক্ষতি হয়েছে ভুট্টার আবাদ। প্রায় ৪ কোটি টাকার ভুট্টা নষ্ট হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

দেশের যে ৩৬  জেলায় ফসলের ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে সেসব জেলার মধ্যে রয়েছে— নারায়ণগঞ্জ, গাজীপুর, কিশোরগঞ্জ, নরসিংদী, নওগাঁ, সুনামগঞ্জ, হবিগঞ্জ, গাইবান্ধা, ঝিনাইদহ, কুড়িগ্রাম, ময়মনসিংহ, জামালপুর, নেত্রকোণা, ব্রাক্ষ্মণবাড়িয়া, চাঁদপুর, কুমিল্লা, নোয়াখালী, শেরপুর, সিরাজগঞ্জ, খুলনা, নড়াইল, বাগেরহাট, গোপালগঞ্জ, বরিশাল, পিরোজপুর, ভোলা, ঝালকাঠি, রাজশাহী, কুষ্টিয়া, চুয়াডাঙ্গা, মেহেরপুর, মাগুরা, যশোর ও নাটোর।

জানতে চাইলে কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতরের মহাপরিচালক মো. আসাদুল্লাহ সারাবাংলাকে বলেন, বোরো ধানের ক্ষেত্রে যাদের ক্ষতি হয়েছে, সেখানে আউশ করার ব্যবস্থা থাকলে কৃষকদের আউশ ধানের ক্ষেত্রে প্রণোদনা দেওয়ার প্রস্তাব করা হয়েছে। এছাড়া আগামী বোরো আবাদেও বোরোতে তাদের প্রণোদনা দেওয়ার ব্যাপারে কথা বলা হয়েছে। এ বছরই নগদ কোনো প্রণোদনা দেওয়া যায় কি না, সে ব্যাপারেও চিন্তাভাবনা চলছে। মন্ত্রণালয়ের কাছে এ বিষয়ে প্রস্তাব পাঠানো হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা/ইএইচটি/টিআর

বিজ্ঞাপন

Tags:

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন