বিজ্ঞাপন

ভাষা হারালেন যশ, খুশিতে নুসরাত

May 4, 2021 | 2:17 pm

এন্টারটেইনমেন্ট ডেস্ক

অনুষ্ঠিত হয়ে গেল ভারতের পশ্চিমবঙ্গের বিধানসভা নির্বাচন। আর এই নির্বাচনে তৃতীয়বারের মতো জয় পেয়েছে তৃণমূল কংগ্রেস। রাজ্যটিতে ২৯৪টি আসনের মধ্যে ২০৯টি জয় পেয়েছে দলটি। তবে এবারের নির্বাচনে সবার নজর ছিল টলিউডের তারকাদের দিকে। যারা ভোটের আগে কেউ যোগ দিয়েছিলেন তৃণমূলে, কেউ বিজেপিতে। যার ফলে লড়াইটা ছিল তারকা বনাম তারকা। ভোট শেষে দেখা গেল, জয়ের তালিকায় তৃনমূল তারকা প্রার্থীর সংখ্যাই বেশি। বিজেপির মাত্র দু’জন তারকা প্রার্থী জয় পেয়েছেন এবারের নির্বাচনে। বরঞ্চ পরাজয়ের তিক্ত স্বাদ পেয়েছেন বিজেপি একাধিক সেলিব্রিটি ক্যান্ডিডেট। ব্যতিক্রম শুধু টলিউড তারকা হিরণ আর ছোট পর্দার অভিনেত্রী অগ্নিমিত্রা পাল।

বিজ্ঞাপন

এবারের ভোট-যুদ্ধে বিজেপির বড় বাজি ছিলেন টলিউডের সাম্প্রতিক বহুল আলোচিত তারকা যশ দাশগুপ্ত। আর চ্যালেঞ্জটাও নিয়েছিলেন যশ। যদিও বেশ কঠিন ছিল, তবুও কোমর বেঁধে ময়দানে নেমেছিলেন যশ। কিন্তু ভোটের ফল প্রকাশের পর দেখা গেল, তিনি দ্বিতীয়। চণ্ডীতলার বিদায়ী বিধায়ক তৃণমূলপ্রার্থী স্বাতী খন্দকারের কাছে হেরে গিয়েছেন যশ। ব্যর্থ হলেন ম্যাজিক দেখাতে।

ভাষা হারালেন যশ, খুশিতে নুসরাত

বিজ্ঞাপন

ভোটের ফল প্রকাশের পর অভিনেতা যশ দাশগুপ্তের ঘনিষ্ঠমহল সূত্রে ভারতীয় গণমাধ্যমগুলো জানিয়েছে, পরাজয়ের পর থেকেই নাকি একেবারে চুপচাপ হয়ে আছেন যশ। তিনি নাকি পুরোপুরি মুষড়ে পড়েছেন। হার হজম করে নেওয়াটা বেশ কঠিন হয়ে দাঁড়াচ্ছে তার কাছে। সংবাদমাধ্যমে নিজের হার নিয়ে বিবৃতি দেওয়া তো দূরের কথা, এমন কি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমেও পোস্ট লেখেননি যশ। এই নীরবতার কারণ কী? যশের ঘনিষ্ঠ সূত্র বলছে নিজেকে সামলে নেওয়ার চেষ্টা করছেন যশ, তবে খুব শীঘ্রই বার্তা দেবেন অনুরাগীদের।

অন্যদিকে টলিউড অভিনেতা যশ দাশগুপ্তের বিজেপিতে যোগদান ঘিরে কম জল্পনা ছিল না। চলতি বছরের শুরু থেকেই টলিউড অভিনেত্রী তথা তৃণমূলের সাংসদ নুসরাত জাহানের সঙ্গে যশের প্রেম সম্পর্কের চর্চার চরমে। এমনকি নুসরাত-নিখিলের বিয়ে ভাঙার কারণ হিসাবেও উঠে এসেছে যশের নাম। তাই যশের বিজেপিতে যোগদান অনেককেই ধন্দে ফেলেছিল। তবে যশের বিজেপিতে যোগদানের পরেও একসঙ্গে কফি খেতে কিংবা ডিনার করতে দেখা গিয়েছে তাদের। তারা বুঝিয়ে দিয়েছেন বন্ধুত্ব বজায় রয়েছে ষোলয়ানা।

বিজ্ঞাপন

এদিকে, রোববার (২ মে) ভোটের রেজাল্ট স্পষ্ট হতেই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে নুসরাত একটি পোস্ট দিয়ে তাতে লেখেন, ‘জেতা হচ্ছে! খেলা হচ্ছে!’। এরপর অখিলেশ যাদবের পোস্ট শেয়ার করে নুসরাত লেখেন- ‘দিদি জিও দিদি’।

বিজ্ঞাপন

উল্লেখ্য, গত দু-মাসে দলের হয়ে নিরলসভাবে প্রচার চালিয়েছেন নুসরাত। দলের জয়ে তিনি যে দারুণ খুশি তা স্পষ্ট। তবে বন্ধুর হারে কী কোথাও খারাপ লাগাটাও সঙ্গে আছে নুসরাতের? যদিও এখনো সেটা জানা যায়নি।

সারাবাংলা/এএসজি

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন