বিজ্ঞাপন

যুক্তরাষ্ট্রে জন্মহার ৪ দশকে সর্বনিম্ন: সিডিসি

May 6, 2021 | 7:10 pm

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

২০২০ সালে যুক্তরাষ্ট্রে জন্ম নিয়েছে ৩৬ লাখ শিশু যা ১৯৭৯ সালের পর থেকে সর্বনিম্ন। সম্প্রতি যুক্তরাষ্ট্রের সেন্টার্স ফর ডিজেজ কন্ট্রোল অ্যান্ড প্রিভেনসন (সিডিসি) এবং ন্যাশনাল সেন্টার ফর হেলথের এক পরিসংখ্যানে এ তথ্য উঠে এসেছে। খবর বিবিসি।

বিজ্ঞাপন

সিডিসি জানিয়েছে, ২০২০ সালে জন্ম নেওয়া মোট শিশুর সংখ্যা আগের বছরের তুলনায় চার শতাংশ কম।

এদিকে, বিশ্বজুড়েই জন্মহার কমে যাওয়ার প্রবণতা লক্ষ্য করা যাচ্ছে। বেশ কয়েকজন বিশেষজ্ঞ বলছেন, চলমান করোনা মহামারির কারণেই এ পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

জনতত্ত্ববিদরা দেশের উর্বরতার হার পরীক্ষা করে দেখেছেন যে, সাধারণত ১৫-৪৪ বছর বয়সীরা সন্তান ধারণে সক্ষম। ২০২০ সালে যুক্তরাষ্ট্রে সাধারণ জন্মহারের ক্ষেত্রে দেখা গেছে প্রতি এক হাজার নারীর মধ্যে প্রায় ৫৬ জন সন্তান ধারণে সক্ষম। এখন পর্যন্ত এই হার সর্বনিম্ন। ১৯৬০ সালের গোড়ার দিকের কথা হিসেব করলে এই সংখ্যা সে সময়ের প্রায় অর্ধেক।

যুক্তরাষ্ট্রের শ্বেতাঙ্গ, কৃষ্ণাঙ্গ এবং লাতিন নারীদের মধ্যে সন্তান জন্ম দেওয়ার হার চার শতাংশ কমেছে, এশিয়ান নারীদের ক্ষেত্রে এই হার কমেছে নয় শতাংশ, হাওয়াইয়ান এবং অন্যান্য প্রশান্ত মহাসাগরীয় দ্বীপপুঞ্জের নারীদের ক্ষেত্রে সাত শতাংশ এবং ন্যাটিভ আমেরিকান এবং আলাস্কার ন্যাটিভ নারীদের ক্ষেত্রে এই হার কমেছে সাত শতাংশ — জানাচ্ছে সিডিসি।

বিজ্ঞাপন

অন্যদিকে, পুরো যুক্তরাষ্ট্রের সন্তান ধারণক্ষম নারীদের ওপর বিশ্লেষণ করে ওই প্রতিবেদন তৈরি করা হয়েছে। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, দেশটির শিশু জন্মহার মায়েদের গড় বয়সের সঙ্গে সম্পৃক্ত। নারীরা পড়াশুনা, কর্মক্ষেত্রে বেশি সময় দিতে গিয়ে দেরিতে বিয়ে করছেন। ফলে বেশি বয়সে সন্তান নিতে গিয়ে তাদের নানা ধরনের সমস্যায় পড়তে হচ্ছে। কারণ বয়স বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে সন্তান ধারণ ক্ষমতাও কমতে থাকে।

সিডিসির গবেষণা বলছে, ২০১০ সালে যেখানে সাধারণ নারীদের ২৩ বছর বয়সে প্রথম সন্তান নিতে দেখা গেছে সেখানে এখন নারীরা প্রথম সন্তান নিচ্ছেন ২৭ বছর বয়সে। তবে কিশোরী বয়সে সন্তান নেওয়ার ঘটনা আগের চেয়ে আট শতাংশ কমেছে, যা বেশ ইতিবাচক।

বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা/একেএম

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন