বিজ্ঞাপন

রাতে উড়িষ্যাতেই ‘মৃত্যু হচ্ছে’ ঘূর্ণিঝড় ইয়াসের

May 26, 2021 | 8:22 pm

সারাবাংলা ডেস্ক

ভারতের উড়িষ্যার উপকূলে সকালেই আছড়ে পড়েছে অতি প্রবল ঘূর্ণিঝড় ইয়াস। এর পর থেকেই শক্তি হারাতে শুরু করেছে ঘূর্ণিঝড়টি। ধারণা করা হচ্ছিল, এটি অতি প্রবল থেকে শক্তি হারিয়ে প্রবল না হলেও ঘূর্ণিঝড় রাতে ঝাড়খাণ্ড পর্যন্ত তাণ্ডব চালাবে। তবে ভারতের আবহাওয়া অফিসের সবশেষ তথ্য বলছে, বুধবার (২৬ মে) ভারতীয় সময় রাত সাড়ে ১১টা (বাংলাদেশ সময় বুধবার দিবাগত রাত ১২টা) নাগাদ ঘূর্ণিঝড় থেকে এটি গভীর নিম্নচাপে পরিণত হবে। এর মাধ্যমেই জীবনাবসান ঘটবে ইয়াসের। বঙ্গোপসাগরে অতি গভীর নিম্নচাপ থেকে ঘূর্ণিঝড় হিসেবে জন্ম নেওয়ার ৬৩ ঘণ্টার মাথায় এর মৃত্যু ঘটছে।

বিজ্ঞাপন

বুধবার সন্ধ্যায় আনন্দবাজার অনলাইনের খবরে ভারতীয় আবহাওয়ার অফিসের তথ্যের বরাত দিয়ে এ খবর দেওয়া হয়েছে।

খবরে বলা হয়, সোমবার (২৪ মে) ভারতীয় সময় সকাল সাড়ে ৮টায় (বাংলাদেশ সময় সকাল ৯টা) আন্দামান-নিকোবর দ্বীপপুঞ্জের কাছাকাছি এলাকায় অতি গভীর নিম্নচাপ থেকে ঘূর্ণিঝড় হিসেবে জন্ম নেয় ইয়াস। ক্রমেই শক্তি সঞ্চয় করে ভারতের উড়িষ্যা ও পশ্চিমবঙ্গ এবং বাংলাদেশের খুলনা উপকূলের দিকে এগুতে থাকে ঘূর্ণিঝড়টি। বাড়তে থাকে গতি। শেষ পর্যন্ত গতিপথ কিছুটা পরিবর্তন করে বুধবার বাংলাদেশ সময় সকাল সাড়ে ৯টার দিকে উড়িষ্যা উপকূলে আঘাত হানে ইয়াস।

বিজ্ঞাপন

বুধবার সকালে উড়িষ্যা উপকূলে আছড়ে পড়ার সময় ১৫৫ কিলোমিটার পর্যন্ত গতি উঠেছিল ইয়াসের। এরপর দিনভর চলে তাণ্ডব। দিঘা উপকূল ছাড়া সরাসরি ঘূর্ণিঝড়ের খুব একটা প্রভাব দেখা যায়নি পশ্চিমবঙ্গে। তবে এর প্রভাবে প্রবল বৃষ্টিপাত হয়েছে পশ্চিমবঙ্গের বেশকিছু জেলায়। ধারণা করা হচ্ছিল, উড়িষ্যাতেই এটি অতি প্রবল ঘূর্ণিঝড় থেকে প্রবল ঘূর্ণিঝড়ে পরিণত হবে। এরপর রাতে সাধারণ ঘূর্ণিঝড় আকারে পৌঁছে যাবে ঝাড়খাণ্ডে।

আরও পড়ুন-

বিজ্ঞাপন

রাতে উড়িষ্যাতেই ‘মৃত্যু হচ্ছে’ ঘূর্ণিঝড় ইয়াসের

তবে ভারতের আবহাওয়া অফিসের তথ্য বলছে, ইয়াস শক্তি হারাচ্ছে অনেক বেশি দ্রুত। ফলে জন্মের ৬৩ ঘণ্টার মাথায় বুধবার দিবাগত রাত ১২টার দিকে ইয়াস ঘূর্ণিঝড় থেকে ফের অতি গভীর নিম্নচাপে পরিণত হতে যাচ্ছে। ঝাড়খাণ্ডে তাই ঘূর্ণিঝড় ইয়াস আঘাত হানতে পারবে না। নিম্নচাপের প্রভাবে সেখানেও হবে প্রচুর বৃষ্টিপাত। উড়িষ্যাতেই মৃত্যু হবে ইয়াসের।

বিজ্ঞাপন

গতিপথ কিছুটা পরিবর্তন হয়ে যাওয়ায় বাংলাদেশে ইয়াস আঘাত হানতে পারেনি। তবে এর প্রভাবে খুলনা, সাতক্ষীরাসহ ওই উপকূলীয় অঞ্চলে মঙ্গলবার থেকেই হচ্ছে বৃষ্টিপাত।

বাংলাদেশের আবহাওয়া অধিদফতরের ইয়াস সম্পর্কিত সবশেষ ১৯ নম্বর বিশেষ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, ঘূর্ণিঝড়টি উড়িষ্যা উপকূলে আঘাত হানার পর বিকেলেও উত্তর বঙ্গোপসাগর ও বাংলাদেশের উপকূলীয় এলাকায় বায়ুচাপ পার্থক্যের আধিক্য বিরাজ করছে। এর প্রভাবেই চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, মোংলা ও পায়রা সমুদ্রবন্দরকে তিন নম্বর স্থানীয় সতর্ক সংকেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, বায়ুচাপের পার্থক্যের প্রভাবে খুলনা, সাতক্ষীরা, বাগেরহাট, ঝালকাঠি, পিরোজপুর, বরগুনা, পটুয়াখালী, বরিশাল, ভোলা, নোয়াখালী, লক্ষ্মীপুর, ফেনী, চাঁদপুর ও চট্টগ্রাম জেলা এবং এসব জেলার অদূরবর্তী দ্বীপ ও চরাঞ্চলে ভারী থেকে অতি ভারী বর্ষণ হতে পারে। ঘণ্টায় ৬০ থেকে ৮০ কিলোমিটার বেগে দমকা অথবা ঝড়ো হাওয়াও বয়ে যেতে পারে।

এদিকে, ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাবের সঙ্গে সঙ্গে চলছে পূর্ণিমার ভরা কাটল বা তেজ কাটল। এর ফলে এসব জেলার নিম্নাঞ্চল স্বাভাবিক জোয়ারের চেয়ে তিন থেকে ছয় ফুট বেশি উচ্চতার জোয়ারে প্লাবিত হতে পারে।

ঘূর্ণিঝড় ইয়াস নিয়ে আরও পড়ুন-

উড়িষ্যার খুব কাছে ঘূর্ণিঝড় ইয়াস
দিঘাতে তীব্র জলোচ্ছ্বাসের আশঙ্কা
সোমবার সন্ধ্যার মধ্যে বৃষ্টির আভাস
ইয়াস: বরিশাল নগরীর নিম্নাঞ্চল প্লাবিত
পশ্চিমবঙ্গের ২ জেলায় ৬৬টি বাঁধে ভাঙন
ইয়াসের প্রভাবে উপকূলীয় ১৪ জেলা প্লাবিত
বেড়িবাঁধ ভাঙার আতঙ্কে খুলনা উপকূলবাসী
ইয়াসেআতঙ্কে কলকাতার ৯টি উড়লসড়ক বন্ধ
চট্টগ্রামে ৫০০ আশ্রয়কেন্দ্র প্রস্তুত: জেলা প্রশাসন
ধেয়ে আসছে ঘূর্ণিঝড় ‘ইয়াস’, সমুদ্রবন্দরে সতর্কতা
ঘূর্ণিঝড় ‘ইয়াস’ এর গতি হতে পারে ১৯০ কিলোমিটার!
রাতেই অতি প্রবল রূপ নিচ্ছে ইয়াস, পশ্চিমবঙ্গে টর্নেডো
বরগুনায় ঝড়ো হাওয়ার সঙ্গে বৃষ্টি, প্রস্তুত ৬৪০ আশ্রয়কেন্দ্র
‘ইয়াস’ মোকাবিলায় ৩ গুণ বেশি আশ্রয়কেন্দ্র প্রস্তুত: প্রতিমন্ত্রী
মঠবাড়িয়ার ক্ষতিগ্রস্ত বেড়িবাঁধ, দুর্গত এলাকায় ত্রাণ পৌঁছায়নি
শ্যামনগরের দুর্গাবাটি-গাবুরা দিয়ে পানি প্রবেশ করছে লোকালয়ে
সাতক্ষীরায় পরবর্তী জোয়ার নিয়ে সংশয়, পানি বেড়েছে নদ-নদীতে
তাণ্ডব চালিয়ে শক্তি হারিয়েছে ইয়াস, পশ্চিমবঙ্গে ভেঙেছে ৩ লাখ বাড়ি
উত্তাল সাগরে মৃত্যুর মুখে পড়া ১২ নাবিককে উদ্ধার করলো বিমানবাহিনী

সারাবাংলা/টিআর

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন