বিজ্ঞাপন

মিডওয়াইফ পদে নিয়োগ নিয়ে হাইকোর্টের রুল

June 16, 2021 | 1:12 am

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের অধীনে নার্সিং ও মিডওয়াইফারি অধিদফতরের মিডওয়াইফ পদে শর্ত বহির্ভূত নিয়োগপ্রাপ্তদের নিয়োগ কেন অবৈধ ঘোষণা করা হবে না, তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেছেন হাইকোর্ট। একইসঙ্গে মিডওয়াইফের শূন্য পদে রিটকারীদের নিয়োগ কেন নিয়োগ দেওয়া হবে না, রুলে তাও জানতে চাওয়া হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

মঙ্গলবার (১৫ জুন) বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি মো. মোস্তাফিজুর রহমানের হাইকোর্ট বেঞ্চ এ রুল জারি করেন।

আগামী চার সপ্তাহের মধ্যে স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের সচিব, নার্সিং ও মিডওয়াইফারি অধিদফতরের মহাপরিচালক, সরকারি কর্ম কমিশন (পিএসসি) ও এনটিআরসির চেয়ারম্যানসহ সংশ্লিষ্টদের রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

আদালতে আবেদনের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী মোহাম্মদ ছিদ্দিক উল্লাহ মিয়া। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল অরবিন্দ কুমার রায়।

পরে মোহাম্মদ ছিদ্দিক উল্লাহ মিয়া জানান, ২০১৯ সালের ৯ ডিসেম্বর ১০ম গ্রেডের নার্সিং ও মিডওয়াইফারি অধিদফতরের ১৮৪৭টি মিডওয়াইফ পদে নিয়োগের জন্য নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি জারি করে সরকারি কর্ম কমিশন। এতে আবেদনের ন্যূনতম শিক্ষাগত যোগ্যতা ছিল কোনো স্বীকৃত বিশ্ববিদ্যালয় থেকে মিডওয়াইফারি বিষয়ে স্নাতক ডিগ্রি বা কোনো স্বীকৃত প্রতিষ্ঠান থেকে ডিপ্লোমা-ইন-মিডওয়াইফারি সার্টিফিকেট এবং বাংলাদেশ নার্সিং কাউন্সিলের নিবন্ধিত হতে হবে। কিন্তু অনেক চাকরিপ্রার্থী ন্যূনতম শিক্ষাগত যোগ্যতার শর্ত লঙ্ঘন করে মিডওয়াইফ পদে আবেদন করেন।

বিজ্ঞাপন

ছিদ্দিক উল্লাহ মিয়া বলেন, চলতি বছরের ২০ মে স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ মন্ত্রণালয় মিডওয়াইফ পদে ১৪০১ জনকে নিয়োগ দেন। কিন্তু রিট আবেদনকারীদের সব যোগ্যতা থাকা এবং ৪৪৬টি পদ শূন্য থাকলেও তাদের নিয়োগের জন্য বিবেচনা করা হয়নি। তাই ৭৭ জন চাকরিপ্রার্থী এ রিট দায়ের করেন।

সারাবাংলা/কেআইএফ/টিআর

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন