বিজ্ঞাপন

আইপিও’তে কড়াকড়ি, পুঁজিবাজারে ৬ মাসে বিনিয়োগকারী কমেছে ৪০ হাজার

July 8, 2021 | 1:45 pm

গোলাম সামদানী, স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: আইপিও আবেদন কড়াকড়ি করায় সর্বশষে ছয় মাসে পুঁজিবাজারে  বিনিয়োগকারী কমেছে ৪০ হাজারেরও বেশি। গত ৩১ শে ডিসেম্বর পুঁজিবাজারে মোট বেনিফিশিয়ারি ওনার্স (বিও) অ্যাকাউন্ট ছিলো ২৫ লাখ ৫২ হাজার ১৬৮টি। মাত্র ছয় মাসের ব্যবধানে বর্তমানে পুঁজিবাজারে বিনিয়োগকারী কমে দাঁড়িয়েছে ২৫ লাখ ১২ হাজার ১ টি। অর্থাৎ চলতি বছরের প্রথম ছয় মাসে পুঁজিবাজারে বিনিয়োগকারী কমেছে ৪০ হাজার ১৬৭ জন। সেন্ট্রাল ডিপজিটরি বাংলদেশ (সিডিবিএল) সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

বিজ্ঞাপন

সিডিবিএল সূত্র জানায়, গত ৩১ শে ডিসেম্বর পুঁজিবাজারে মোট বিও হিসাব ছিল ২৫ লাখ ৫২ হাজার ১৬৮ জন। এর মধ্যে পুরুষ বিনিয়োগকারী ১৮ লাখ ৬৭ হাজার ৯৬৯ জন, নারী বিনিযোগকারী ৬ লাখ ৬০ হাজার ৩৬৪ জন এবং বিভিন্ন কোম্পানির বিও হিসাব ছিল ১৩ হাজার ৮৩৫টি। এ ছাড়াও গত ৩১ ডিসেম্বর মোট বিনিয়োগকারীদের মধ্যে দেশি বিনিয়োগকারী ছিল ২৩ লাখ ৮২ হাজার ৮৬ জন এবং এনআরবি বিনিয়োগকারীর সংখ্যা ১ লাখ ৫৫  হাজার ৮৫৯ জন।

অন্যদিকে সর্বশেষ ৬ জুলাই-২০২১ দেশে মোট বিনিয়োগকারীর সংখ্যা ২৫ লাখ ১২ হাজার ১ জন। মোট বিনিয়োগকারীর মধ্যে পুরুষ বিনিয়োগকারী ১৮ লাখ ৫০ হাজার ৮৯৪ জন, নারী বিনিয়োগকারী ৬ লাখ ৪৬ হাজার ৩৯০ জন। এ ছাড়াও বিভিন্ন কোম্পানির বিও হিসাব ১৪ হাজার ৭১৭ জন। আবার দেশি বিনিয়োগকারী ২৩ লাখ ৬২ হাজার ১৪ জন এবং এনআরবি বিনিয়োগকারী ১ লাখ ৩৫ হাজার ২৭০ জন। ফলে চলতি বছরের প্রথম ৬ মাসে বিনিয়োগাকারী কমেছে ৪০ হাজার ১৬৭ জন।

বিজ্ঞাপন

এ ব্যাপারে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের অধ্যাপক ও পুঁজিবাজার বিশ্লেষক অধ্যাপক আবু আহমেদ সারাবাংলাকে বলেন, ‘পুঁজিবাজারে বিনিয়োগকারীদের একটা অংশ এতদিন কেবল প্রাইমারি শেয়ারে (আইপিও) আবেদন করার জন্য বিও হিসাব খুলত। এসব বিও হিসাব থেকে বাজারে কোনো নতুন কোম্পানি তালিকাভুক্ত হলে আইপিও‘র জন্য আবেদন করা হতো। আইপিও‘র আবেদন করে লটারির মাদ্যমে শেয়ার পেলে কয়েকদিনের মধ্যেই তা বিক্রি করা হতো। মূলত এ সব বিও হিসাবে বছরের বাকি সময়ে কোনো টাকা বা শেয়ার রাখা হতো না।’

তিনি বলেন, ‘বিএসইসি‘র নতুন নিয়ম অনুসারে আইপিও‘র জন্য কোনো বিও হিসাব থেকে আবেদন করতে হলে আবেদনের সময়, ওই বিও হিসাবে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত কোন কোম্পানিতে ন্যূনতম ২০ হাজার টাকা বিনিয়োগ থাকতে হবে। এ সব শর্ত পূরণ করা কঠিন হওয়ায় শুধু আইপিও‘র আবেদন করার জন্য খোলা বিও হিসাবগুলো বন্ধ হয়ে গেছে।’

বিজ্ঞাপন

উল্লেখ্য, গত ৩১ ডিসেম্বর বিএসইসির কমিশন সভায় আইপিওতে আসা কোম্পানির শেয়ারের আনুপাতিকহারে বরাদ্দ দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়ে নির্দেশনা জারি করা হয়।

ওই নির্দেশনায় বলা হয়, আইপিওতে আবেদন করা সবাই আনুপাতিকহারে শেয়ার পাবে। তবে আবেদনের জন্য সাধারণ বিনিয়োগকারীদেরকে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত কোম্পানিতে ন্যূনতম ২০ হাজার টাকা বিনিয়োগ থাকতে হবে। এ ছাড়া আইপিওতে সাধারণ বিনিয়োগকারীদেরকে কমপক্ষে ১০ হাজার টাকার বা উহার গুণিতক আবেদন করতে হবে। বিএসইসির এ সিদ্ধান্ত সম্প্রতি কার্যকর হওয়ায় পুঁজিবাজারের অনেক বিও হিসাব থেকে আইপিও‘র আবেদন করার সুযোগ না থাকায় হিসাবগুলো বন্ধ হয়ে গেছে।

বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা/জিএস/একে

বিজ্ঞাপন

Tags:

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন