বিজ্ঞাপন

অলিম্পিক ভিলেজে দক্ষিণ আফ্রিকার দুই ফুটবলার করোনা আক্রান্ত

July 19, 2021 | 12:14 pm

স্পোর্টস ডেস্ক

টোকিও অলিম্পিকে একের পর এক বাধা সামনে আসছে। করোনাভাইরাস ইস্যুতে বারবার বিতর্কিত টোকিং অলিম্পিক। গেমস শুরু হতে যখন আর মাত্র চার দিন বাকি তখন জানা গেল, অলিম্পিক ভিলেজে দক্ষিণ আফ্রিকার তিন অ্যাথলেট করোনায় আক্রান্ত। এর মধ্যে রয়েছেন দু’জন ফুটবলার। গত ১৭ জুলাই জানা গিয়েছিলে ভিলেজের ভেতরে একজন করোনায় আক্রান্ত।

বিজ্ঞাপন

দক্ষিণ আফ্রিকা দলের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে ওই দুই ফুটবলার হলেন থাবিসো মোনিয়ান এবং কামোহেলো মাহলাতসি কোভিডে আক্রান্ত। এ ছাড়াও রয়েছেন ফুটবল দলের ভিডিও বিশ্লেষক মারিয়ো মাসহা। এরা সবাই জাপানে পৌঁছে যান। অবস্থান নিয়েছেন গেমস ভিলেজেই।

আগামী বৃহস্পতিবার আয়োজক দেশ জাপানের বিরুদ্ধে ম্যাচ দিয়ে অলিম্পিক ফুটবল অভিযান শুরু করার কথা দক্ষিণ আফ্রিকার। তবে তার আগে এ খবরে দক্ষিণ আফ্রিকা দলকে বেশ চাপে রেখেছ। পুরো দলকেই আইসোলেশনে রাখা হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

নিয়ম অনুযায়ী দক্ষিণ আফ্রিকা দল এখন আর অনুশীলন করতে পারবে না। আর অনুশীলন না করলেও রোববার থেকে শুরু হওয়া অলিম্পিকে জাপানের বিপক্ষে ম্যাচে মাঠে নামার কথা রয়েছে দক্ষিণ আফ্রিকার। এই গ্রুপে জাপান ছাড়াও ফ্রান্স এবং মেক্সিকো রয়েছে। কঠিন চ্যালেঞ্জের আগে অনুশীলন না করতে পারায় চাপে রয়েছে দক্ষিণ আফ্রিকা।

দেশটির ফুটবল অ্যাসোসিয়েশনের পক্ষ থেকে রোববার এক বিবৃতি দেয়। যেখানে দলের ম্যানেজার ম্যাক্সোনিসি সিবম বলেন, ‘আমাদের দলের তিনজনের করোনা পরীক্ষার ফল পজিটিভ। এদের মধ্যে দু’জন ফুটবলার। দুই ফুটবলারই জানায় তাদের জ্বর এসেছে। তাপমাত্রা খুব বেশি ছিল। তারপরেই তাদের কোভিডের ফল পজিটিভ আসে। এখানে প্রতিদিনই স্ক্রিনিং হয় ..., মাশা এবং মনায়ানে উচ্চ তাপমাত্রা এবং ধীরে ধীরে লালা পরীক্ষা করা হয়েছিল এবং এরপর নাসাল পরীক্ষা করা হয়েছিল এবং দুর্ভাগ্যক্রমে তাদেরকে কোভিড-১৯ পজিটিভ পাওয়া যায়। কামোহেলো মাহলাতসি সর্বশেষ খেলোয়াড় যার মধ্যে এই ভাইরাস পাওয়া গেছে।’

বিজ্ঞাপন

আগামী ২৩ জুলাই থেকে শুরু হওয়ার কথা এবারের অলিম্পিক। শেষ হওয়ার কথা ৮ আগস্ট। বিভিন্ন দেশ থেকে গেমসে অংশ নিবেন প্রায় ১১ হাজার অ্যাথলেট।

এদিকে, করোনাভীতির কারণে গেমসে থেকে নাম প্রত্যাহার করার তালিকাটা দিন দিন বেড়েই চলেছে। আন্তর্জাতিক অলিম্পিক কমিটির (আইওসি) এক মুখপাত্র নাম প্রকাশ না করার শর্তে সিএনএনকে জানিয়েছেন, করোনার এমন পরিস্থিতিতে জাপানের অলিম্পিক আয়োজনের সিদ্ধান্তে অনড় থাকার এই সিদ্ধান্ত আইওসি'র কাছে ‘অভূতপূর্ব’।

বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা/এসএস

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন