বিজ্ঞাপন

সন্দেহ থেকে স্ত্রীকে খুন, পিটুনি দিয়ে পুলিশে সোপর্দ

July 21, 2021 | 4:31 pm

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট

চট্টগ্রাম ব্যুরো: চট্টগ্রাম নগরীতে ছুরিকাঘাতে স্ত্রীকে খুন করায় স্বামীকে পিটুনি দিয়ে পুলিশের কাছে সোপর্দ করেছেন স্থানীয়রা। পুলিশ জানিয়েছে, দাম্পত্য কলহ ও স্ত্রীর প্রতি সন্দেহ থেকে তাকে খুন করেছে স্বামী।

বিজ্ঞাপন

বুধবার (২১ জুলাই) সন্ধ্যায় নগরীর হালিশহর থানার নয়াবাজার বিশ্বরোডে প্রকাশ্য সড়কে এ হত্যাকাণ্ড ঘটেছে বলে জানিয়েছেন নগর পুলিশের ডবলমুরিং জোনের সহকারী কমিশনার মাহমুদুল হাসান মামুন।

নিহত নারীর নাম রেহেনা বেগম (৩০)। তার বাবার বাড়ি নোয়াখালী জেলায়। আর গ্রেফতাকৃত জাহাঙ্গীর হেসেন (৩৮) বাগেরহাট জেলার মংলা থানার কেওড়াতলা গ্রামের মো. আলমগীরের ছেলে। বাসা চট্টগ্রাম নগরীর বৌবাজার আমতল এলাকায়। তবে তাদের আদি বাড়িও নোয়াখালীতে।

বিজ্ঞাপন

হালিশহর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রফিকুল ইসলাম সারাবাংলাকে জানান, জাহাঙ্গীর তিনবছর আগে দুবাই যান। একমাস আগে ফিরে আসেন। জাহাঙ্গীর ও রেহেনার মধ্যে বনিবনা ছিল না।

‘রেহেনা রাগ করে বাসা থেকে চলে গিয়েছিল। গতকাল (মঙ্গলবার) বিকেলে তাকে আনতে যায় জাহাঙ্গীর। আসার পথে দুজনের মধ্যে ঝগড়া হয়। রেহেনা তখন আবার ফিরে যাবার উদ্যোগ নেয়। জাহাঙ্গীর আগে থেকেই পকেটে ছুরি রেখেছিল। এতে বোঝা যায়, তার হত্যার পরিকল্পনা ছিল।’

বিজ্ঞাপন

এ সময় প্রকাশ্য সড়কে রেহেনাকে ছুরিকাঘাতের পর চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন বলে জানিয়েছেন ওসি।

সহকারী পুলিশ কমিশনার মাহমুদুল হাসান মামুন জানান, জাহাঙ্গীর ও রেহেনার এক ছেলে ও এক মেয়ে আছে। ছেলে মাদরাসায় থাকে। দুবাই থাকা অবস্থায় স্বামী জাহাঙ্গীরের সন্দেহ, রেহেনার সঙ্গে অন্য কারও বিবাহবর্হিভূত সম্পর্ক আছে। এ নিয়ে তাদের মধ্যে ঝগড়ার জেরে গত ছয়মাস আগে রেহেনা তার মেয়েকে নিয়ে নিজে বাসা ভাড়া করে সেখানে ওঠে। একমাস আগে জাহাঙ্গীর ফেরার পর সবাই তাকে স্ত্রী ছেড়ে গেছে বলে কটূক্তি করতে থাকে। এতে স্ত্রীর ওপর ক্ষুব্ধ হন জাহাঙ্গীর।

বিজ্ঞাপন

ক্ষুব্ধ জাহাঙ্গীর স্ত্রীকে খুনের পরিকল্পনা নিয়ে তাকে বাসায় আনতে গিয়েছিল বলে জিজ্ঞাসাবাদে তথ্য দিয়েছে বলে জানান পুলিশ কর্মকর্তা মাহমুদুল হাসান।

সারাবাংলা/আরডি/এনএস

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন