বিজ্ঞাপন

‘কাবুলকে সারাদেশ থেকে বিচ্ছিন্ন করতে চায় তালেবান’

July 22, 2021 | 12:43 pm

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

আফগানিস্তানে তালেবান যোদ্ধারা দেশটির বিভিন্ন এলাকা দখলে ‘কৌশলগত গতি’ অর্জন করেছে। বর্তমানে তারা দেশটির প্রায় অর্ধেক গ্রামাঞ্চল নিয়ন্ত্রণ করছে। এখন তালেবানরা এসব এলাকাকে পশ্চিমাদেশগুলো সমর্থিত কাবুলের সরকারের কাছ থেকে বিচ্ছিন্ন করার দিকে যাচ্ছে বলে জানিয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের একজন শীর্ষ জেনারেল। খবর আলজাজিরা।

বিজ্ঞাপন

যুক্তরাষ্ট্রের পেন্টাগনের দফতরে জয়েন্ট চিফস অব স্টাফের চেয়ারম্যান জেনারেল মার্ক মিলি গতকাল বুধবার (২১ জুলাই) সাংবাদিকদের কাছে একথা বলেন। তিনি বলেন, এখন আফগানিস্তানের সরকার, দেশটির নিরাপত্তা বাহিনী ও আফগান জনগণের নেতৃত্ব ও ইচ্ছার পরীক্ষার সময়।

তিনি আরও বলেন, আফগানিস্তানের প্রায় ৪১৯টি ডিস্ট্রিক্ট নিয়ন্ত্রণ নিয়েছে তালেবান যোদ্ধারা। তারা এখন দেশটির ৩৪টি প্রদেশের মধ্যে ১৭টির রাজধানী দখল করার জন্য লড়াই করছে, যদিও তারা এখনো সফল হতে পারেনি।

বিজ্ঞাপন

মার্ক মিলি বলেন, কেন্দ্র থেকে দেশটির অধিকাংশ জনগণকে আলাদা করার জন্য তারা (তালেবান) যা করতে পারে। এখন তারা কাবুল থেকে বিচ্ছিন্ন করার জন্য তাই করছে।

এর জাবাবে, আফগান সরকারি বাহিনী তাদের অবস্থান দৃঢ় করে রাজধানীর নাগরিকদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করার জন্য কাজ করছে। আর ঈদুল আজহার ছুটির পর ধাপে ধাপে হামলার সংখ্যা বাড়াতে পারে সরকারি বাহিনী।

বিজ্ঞাপন

এদিকে গত সপ্তাহে কাতারের দোহায় আফগান সরকার ও তালেবানের প্রতিনিধিদের মধ্যে বৈঠক হয়। কিন্তু সেই বৈঠকে উভয় পক্ষ যুদ্ধবিরতি চুক্তি করতে ব্যর্থ হয়। যুদ্ধের ময়দানে এগিয়ে রয়েছে তালেবান, যা তাদের সাহসী করে তুলেছে। তালেবানরা ভেবে নিয়েছে যে, তারা এই যুদ্ধ জয়ী হতে চলেছে— বলেন এই মার্কিন জেনারেল।

এমনকি তারা (তালেবানরা) বেতার তরঙ্গ নিয়ন্ত্রণ নিয়েছে বলেও যোগ করেন মার্কিন জেনারেল মার্ক মিলি।

বিজ্ঞাপন

প্রসঙ্গত, চলতি বছরের ১১ সেপ্টেম্বরের মধ্যে আফগানিস্তান থেকে সকল সৈন্য প্রত্যাহার করে নেবে যুক্তরাষ্ট্র ও তার নেতৃত্বাধীন ন্যাটো জোট। গত বছর সেনা প্রত্যাহারের ঘোষণার পর থেকে আফগানিস্তানে তালেবানের সহিংসতা বেড়ে গেছে। প্রতিদিনই আফগানিস্তানের কোনো না কোনো অঞ্চল দখল করে নিতে সরকারি বাহিনীর সঙ্গে সংঘর্ষে লিপ্ত হচ্ছে সংগঠনটি। তালেবান জানিয়েছে, ইতিমধ্যে দেশটির ৮৫ শতাংশ দখলে নিয়েছে তারা। তবে সরকারি বাহিনীর তরফ থেকে বলা হচ্ছে, তালেবানের হাতে দখলকৃত এলাকা পুনরুদ্ধারে লড়াই করছে তারা।

সারাবাংলা/এনএস

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন