বিজ্ঞাপন

ভ্যাকসিন নেওয়ার বয়সসীমা ১৮ বছর করা হচ্ছে

July 24, 2021 | 11:29 am

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: দেশে নভেল করোনাভাইরাস (কোভিড-১৯) সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে ভ্যাকসিন প্রয়োগ কার্যক্রম চলছে জাতীয় পর্যায়ে। বর্তমানে ৩০ বছর বয়স হলেই ভ্যাকসিন গ্রহণ করার সুযোগ মিলছে। তবে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে খুব শীঘ্রই দেশে ভ্যাকসিন গ্রহণের বয়সসীমা ১৮ বছর করা হচ্ছে।

বিজ্ঞাপন

শনিবার (২৪ জুলাই) স্বাস্থ্য অধিদফতরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. আবুল বাশার মোহাম্মদ খুরশীদ আলম সারাবাংলাকে এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

এ বিষয়ে ডা. খুরশীদ আলম বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে বয়সসীমা কমানোর ব্যাপারে নির্দেশনা দিয়েছেন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রী জাহিদ মালেক। খুব শিগগিরই এ সিদ্ধান্তের ব্যাপারে আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দেওয়া হবে।

বিজ্ঞাপন

তিনি বলেন, কোভিড-১৯ সংক্রমণ প্রতিরোধে ‘ফ্রন্ট লাইনার’ হিসেবে যারা কাজ করছেন, তাদের পরিবারের সদস্যেদের মধ্যে যাদের বয়স ১৮ বছরের নিচে তাদের প্রথমে ভ্যাকসিন দেওয়া হবে। পরবর্তীতে ১৮ বছর বা তার চেয়ে বেশি বয়সী সাধারণ নাগরিকদের ভ্যাকসিনের আওতায় আনা হবে।

এর আগে শুক্রবার (২৩ জুলাই) স্বাস্থ্য অধিদফতরের মহাপরিচালক সরকারি মুগদা জেনারেল হাসপাতাল, কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালে ও মহাখালী গ্যাস্ট্রোলিভার হাসপাতাল পরিদর্শন করেন।

বিজ্ঞাপন

হাসপাতাল পরিদর্শন করার কথা উল্লেখ করে অধ্যাপক ডা. আবুল বাশার মোহাম্মদ খুরশীদ আলম বলেন, হাসপাতাল তিনটি পরিদর্শন করার সময় জেনেছি সেখানে চিকিৎসাধীন রোগীদের শতকরা ৯৭ ভাগ ভ্যাকসিন গ্রহণ করেননি। সেখানে যারা ভর্তি তাদের অধিকাংশের বয়স ৫০ বছরের বেশি। তাদের অনেকেই শুরুতে চিকিৎসাও নেননি। আর ভয় থেকে ভ্যাকসিন নেননি। তাদের স্বজনরা জানিয়েছেন— কেউ ভ্যাকসিন নিতে ভয় পেয়েছেন, আবার কেউ অবহেলা করে ভ্যাকসিন নেননি।

কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি থাকা রোগীদের কথা উল্লেখ করে স্বাস্থ্য অধিদফতরের মহাপরিচালক বলেন, হাসপাতালটিতে যারা ভর্তি হয়ে চিকিৎসা নিচ্ছেন তাদের ৯৭ শতাংশ ঢাকার বাইরে থেকে এসেছেন।

বিজ্ঞাপন

সামনের দিনগুলোতে রোগীদের চাপ সামাল প্রস্তুতি রয়েছে উল্লেখ করে অধ্যাপক ডা. খুরশীদ বলেন, ঢাকার বাইরে বিভিন্ন জেলায় ফিল্ড হাসপাতাল করার জন্য পরামর্শ দেওয়া হয়েছে।

সারাবাংলা/এসবি/এনএস

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন